• শিরোনাম

    খুলনার পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে লোকালয়ে ঢুকছে পানি, দুর্ভোগ চরমে!

    খুলনা প্রতিনিধি | ২২ আগস্ট ২০২০


    খুলনার পাইকগাছায় বাঁধ ভেঙ্গে লোকালয়ে ঢুকছে পানি, দুর্ভোগ চরমে!

    খুলনা অঞ্চলের বিভিন্ন নদ-নদীর পানি বিপদসীমার উপরে প্রবাহিত হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ভারী বর্ষণ ও নদীর অস্বাভাবিক জোয়ারের কারণে প্লাবিত হচ্ছে বিস্তীর্ণ নিচু এলাকা।

    জোয়ারের পানিতে রাস্তাঘাট ও নদী তীরবর্তী বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে এবং বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ায় লকালয়ে ঢুকছে পানি। বাড়ি-ঘর, রাস্তা-ঘাট, মাছের ঘের, আবাদি জমি পানিতে ডুবে যাচ্ছে । সেই সাথে ভাটায় নদীর পানি নামার সঙ্গে সঙ্গে দেখা দিচ্ছে ভাঙন।


    শুক্রবার প্রবল জোয়ারের পানির চাপে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার চকরি বকরি বদ্ধ জলমহলের দক্ষিণ পাশ ভেঙে যাওয়ায় আবারও পারমধুখালী, চকরি বকরি ও গেওয়াবুনিয়া গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। কাঁচা ঘর বাড়ি, ফসলের ক্ষেত, পুকুর ও চিংড়ি ঘেরের ক্ষতির পাশাপাশি শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। এ বছর ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পর এ নিয়ে তিনবার ভাঙনের কবলে পড়লো এলাকাটি।

    অমাবশ্যায় জোয়ারে পানি অত্যাধিক বৃদ্ধি পাওয়ায় পাইকগাছার বিভিন্ন এলাকায় ভাঙনের পাশাপাশি ওয়াপদা ছাপিয়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। গত দুই তিন থেকে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বুধ ও বৃহস্পতিবার সোলাদানার বেতবুনিয়া গুচ্ছগ্রামসহ তিনটি এলাকা, গদাইপুর ইউনিয়নের কচুবুনিয়া এলাকা ও লতা ইউনিয়নের একটি এলাকা জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে। শুক্রবার গড়ইখালীর গুচ্ছগ্রাম পানিতে তলিয়ে যায়।


    এলাকাবাসী জানান, গত বুধবার থেকে জোয়ারের পানিতে উপজেলার ৪ ইউনিয়নের সাতটি স্থানে ওয়াপদার ভেড়িবাঁধ ভেঙে ও ভেড়িবাঁধ উপচে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

    উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নে বেতবুনিয়া আবাসন ও গুচ্ছগ্রাম পানিতে থৈ থৈ করছে এবং বেতবুনিয়ার আবাসন প্রকল্পের পাঁচ শতাধিক পরিবার পানির মধ্যে বসবাস করছে। টেংরামারী ও ভাঙ্গা হাড়িয়ার ওয়াপদার বাঁধ ভেঙে বুধবার ৫ হাজার বিঘা চিংড়ি ঘের প্লাবিত হয়েছে। ফসল ও মাছের ঘেরের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।


    স্থানীয়ভাবে বাঁধ মেরামত করা হয়েছে। তবে, টেকসই বাঁধের দাবি জানিয়েছেন সোলাদনা ইউপি চেয়ারম্যান এসএম এনামুল হক, দেলুটি চেয়ারম্যানরা রিপন কুমার ম-ল ও গড়ইখালী ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস।

    পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বিভিন্ন এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শন করে সার্বিক খোঁজ খবর নিচ্ছেন এবং দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিদায় ফুটবল ঈশ্বর!

    ২৫ নভেম্বর ২০২০

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১