• শিরোনাম

    দক্ষিণ কোরিয়ায় বন্যা ও ভূমিধস পরিস্থিতির অবনতি

    গাংচিল আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ০৬ আগস্ট ২০২০


    দক্ষিণ কোরিয়ায় বন্যা ও ভূমিধস পরিস্থিতির অবনতি

    বেশ কয়েকদিন ধরে প্রবল বর্ষণের কারণে দক্ষিণ কোরিয়ায় বন্যা ও ভূমিধসের সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে দেড় হাজারেরও বেশি মানুষ তাদের আবাসস্থল হারিয়েছেন এবং তারা অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বন্যার কারণে দেশটিতে ১৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

    ইতোমধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার গিয়নগি এবং চুংশেং প্রদেশকে ‘বিশেষ দুর্যোগপূর্ণ’ অঞ্চল বলে শনাক্ত করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী চুং সাই কিয়ান।


    দক্ষিণ কোরিয়ার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণ কাজে কর্তব্যরত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভয়াবহ বন্যার কারণে দেশটির রাজধানী সিউলের অনেক এলাকার সেতু এবং রাস্তা প্লাবিত হয়ে গিয়েছে। এর পাশাপাশি বিপর্যস্ত হয়েছে অনেক ফসলি জমি।

    সাধারণত এরকম সময়ে প্রতি বছরই বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে। কিন্তু বেশ কয়েকবছরের ইতিহাসে এমন প্রবল বৃষ্টিপাত বা বন্যা দেখা যায় নি দেশটিতে। তবে বন্যা কবলিত জনগণের সাহায্যার্থে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন দেশটির উদ্ধারকর্মীরা। যদিও করোনা পরিস্থিতির কারণে তাদের উদ্ধারকাজ সাময়িকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। তাদের ধারণা, আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থিত অসংখ্য মানুষ একত্রিত থাকার কারণে তাদের মধ্যে করোনা ভাইরাসের পরিব্যাপ্তি ঘটছে। কারণ একই সঙ্গে জনবহুলভাবে থাকার কারণে তারা নির্ধারিত স্বাস্থ্যবিধি অনুসারে বসবাস করতে পারছেন না।


    দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চলমান পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে বলেছেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কিছু মানুষ এখনো অবদি আশ্রয়কেন্দ্রে পৌঁছাতে পারেন নি, তাদের সমস্যা নিরসনেই কাজ করে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা। জরুরী মুহূর্তে ব্যায়ামাগার ও কমিউনিটি শেল্টারকে বন্যা কবলিতদের জন্যে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে এবং সেখান থেকেই তাদেরকে সেবা দেওয়া হচ্ছে।

    এছাড়া বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এবং মানুষের মৃত্যুর হার হ্রাস করার লক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে কর্মকর্তাদের উপর দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।


    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১