• শিরোনাম

    দৈনিক খুলনা

    দি গাংচিল ডেস্ক | ১০ আগস্ট ২০২০


    দৈনিক খুলনা

    নগরীতে পুলিশের অভিযানে মাদকসহ গ্রেফতার ৭

    মহানগর পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ২৪ বোতল ফেন্সিডিল, ৫পিস ইয়াবা ও ৮৫ গ্রাম গাঁজাসহ ৭ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।


    গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন নগরীর খালিশপুর ১০৯, পালপাড়ার মৃত. খান নূর মোহাম্মাদের ছেলে খান জাকির হোসেন (৬২), ডাকবাংলা এপিসি স্কুলের সামনের গলির আলমগীরের খাবার হোটেলের ২য় তলার বাসিন্দা মো. সাঈদ হাওলাদারের পালক ছেলে মো. রমজান হাওলাদার (১৫), শের-এ বাংলা রোড আমতলা মোড়ের হালিমের বাড়ীর ভাড়াটিয়া মো. মান্দার গাজীর ছেলে মো. বুলবুল গাজী (৫৮), ডালমিল মোড়স্থ বশিরহাট কলোনীর বাপ্পী ও ময়নাদের বাড়ীর ভাড়াটিয়া জনাব আলির ছেলে মো. বাবু মিজি (৩৯), বি কে রায় ক্রস রোডস্থ ন্যাশনাল স্কুল গলির আয়ুব বাঙ্গালীর বাড়ীর ভাড়াটিয়া নজরুল শেখের ছেলে মো. আল-আমিন শেখ (৩০), খালিশপুর পিপলস্ ৫ম তলা বয়স্ক মাদ্রাসার পাশে মুন্সী মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া মো. শাহাজাহান ওরফে খাকন মোল্লার ছেলে মো. সাকিব মোল্লা (২১) ও দৌলতপুর মহেশ্বরপাশা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনের বাসিন্দা মৃত. হাফিজুর রহমান খোকার ছেলে মো. রবিউল ইসলাম (২৩)।

    কেএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) কানাই লাল সরকার জানান, গত ২৪ ঘন্টায় নগরীর বিভিন্ন থানা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে মহানগর পুলিশ। এসময় ২৪ বোতল ফেন্সিডিল, ৫ পিস ইয়াবা ও ৮৫ গ্রাম গাঁজাসহ ৭ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় ৬টি মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।


    রূপসায় র‌্যাবের অভিযানে ১১০পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১

    খুলনা জেলার রূপসা থানাধীন ঘাটভোগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১১০ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। গতকাল রবিবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী হলেন খুলনা জেলার রূপসা থানার ঘাটভোগ পূর্ব পাড়ার মো. আবুল কালাম সরদারের ছেলে মো. আসাদুর জামান সরদার রানা (২২)।


    র‌্যাব-৬ জানায়, গতকাল রবিবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে খুলনা জেলার রূপসা থানাধীন ঘাটভোগ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল। এসময় ঘাটভোগ ব্রীজ মোড়ের লালন ফকির এর মুদির দোকানের সামনে থেকে ১১০ পিস ইয়াবাসহ রানাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে রূপসা থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।

    খুলনা বিভাগে করোনা শনাক্ত ১৪০৫২

    খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। বিভাগে প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হওয়ার ১৪৪তম দিন আজ রোববার রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৫২ জনে। শনিবার সকাল আটটা থেকে রোববার সকাল আটটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে খুলনা বিভাগে নতুন ২০৯ জন কোভিড–১৯–এ আক্রান্ত হয়েছেন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থতার হার ৬৬ শতাংশের কিছুটা বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও চুয়াডাঙ্গায় কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি।

    বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা জানান, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন পাঁচজন। এ নিয়ে বিভাগে মোট ২৪২ জনের মৃত্যু হলো। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩০০ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৯ হাজার ২৯৯ জন।

    বিভাগে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ২৪২ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৭২ জন মারা গেছেন খুলনায়। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ৪২ জন, যশোরে ৩২ জন, সাতক্ষীরায় ২২ জন, ঝিনাইদহে ১৮ জন, বাগেরহাটে ১৫ জন, চুয়াডাঙ্গা ও নড়াইলে ১৩ জন করে, মাগুরায় ৮ জন এবং মেহেরপুরে ৭ জন মারা গেছেন।

    স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, বিভাগে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ১৪ হাজার ৫২ জনের মধ্যে ৪ হাজার ৬৮৫ জনই খুলনা জেলার। বিভাগের মোট রোগীর প্রায় ৩৪ শতাংশ খুলনার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৬৯৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৮১৬ জন, যশোরে ২ হাজার ২১৫, ঝিনাইদহে ১ হাজার ১২৮, কুষ্টিয়ায় ১ হাজার ৯৮১, মাগুরায় ৫৭৩, মেহেরপুরে ২৫৬, নড়াইলে ৯২৪ জন এবং সাতক্ষীরা জেলায় ৭৮০ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

    সাধারণ মানুষকে সচেতণ করতে তৎপর নৌবাহিনী

    খুলনা, ০৯ আগস্ট২০২০ রবিবার করোনা ভাইরাস এর সংক্রমণ রোধকল্পে উপকুলীয় অঞ্চলে নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে সাধারণ মানুষকে সচেতণ করছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। নৌবাহিনী কন্টিনজেন্ট মোংলা উপজেলার সোনাইতলা, আমড়াতলি, দিগরাজ বাজার, আপাবাড়ি, মামারঘাট ও ফেরিঘাট এলাকায় নিয়মিত সচেতনতামূলক টহল প্রদান করে। উপজেলাসমূহের বিভিন্ন স্থানে কোভিড-১৯ প্রতিরোধমূলক লিফলেট বিতরণ করে ও কোভিড-১৯ এর ক্ষতিকর দিকসমূহ প্রচারে প্যাকার্ড নিয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। সাধারণ জনগণকে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চতকরণ, গণপরিবহন ব্যবহারের ক্ষেত্রে মাস্ক ব্যবহার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়ে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে মোতায়েনকৃত নৌ কন্টিনজেন্ট বরগুনা সচেতনতামূলক টহল পরিচালনা করে। উপজেলাসমূহের বিভিন্ন এলাকায় কোভিড-১৯ প্রতিরোধ সর্ম্পকিত ২২৫টি লিফলেট বিতরণ করে। নৌ কন্টিনজেন্ট দু’টি জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কার্যক্রমে সহায়তা প্রদানসহ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সর্ম্পকিত বিভিন্ন ব্যানার স্থাপন, অসহায় ও দুস্থ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ এবং জনসচেতনতামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

    ফকিরহাটের উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের করোনা পজেটিভ

    খুলনা বিভাগের শ্রেষ্ট, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ, বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা পরিষদের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্বপন দাশ এর করোনা পজেটিভ হয়েছে। গত ৬আগষ্ট তার নমূনা সংগ্রহ করেন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ৮আগষ্ট পরীক্ষার ফলাফলে তার পজেটিভ হয়। তিনি বেতাগাস্থ্য নিজেস্ব বাস ভবনে থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ ক্রমে চিকিৎসা গ্রহন করছেন। তিনি সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ কামনা করেছেন। এ উপজেলায় এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৬৭জন। এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন ১০জন। মোট সুস্থ্য হয়েছেন ১৩১জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ অসিম কুমার সমাদ্দার। এদিকে স্বপন দাশ এর সুস্থ্যতা কামনা করেছেন বাগেরহাট-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জননেতা শেখ হেলাল উদ্দীন।

    খুমেক কর্তৃপক্ষকে চিকিৎসা সামগ্রী হস্তান্তর করলেন নগর আ’লীগ

    খুলনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষককে করোনার চিকিৎসা সামগ্রি হস্তান্তর করছেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। রবিবার বেলা ১১টায় খুলনা প্রেস কাবে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এবং খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা চিকিৎসকদের নিরাপত্তার লক্ষে এ চিকিৎসা সামগ্রী হস্তান্তর করেন। এ সময়ে চিকিৎসা সামগ্রি গ্রহণ করেন স্বাচিপের সভাপতি ডা. শামছুল আহসান মাসুম, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদি নেওয়াজ, কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আব্দুল আহাদ, হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সি রেজা সেকান্দার, সমন্বয়ক ডা. ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ, স্বাচিপের প্রচার সম্পাদক ডা. জিল্লুর রহমান তরুণ। এ সময়ে উপস্থিত আছেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাবেক দপ্তর সম্পাদক মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, সাবেক শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, খুলনা প্রেস কাবের সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা, ২৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ আব্দুল আজিজ।

    উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, পিপিই, গগলস, হ্যা- স্যানিটাইজার, সান প্রটেক্টর, স্যাম্পু, আয়্যুষ ক্রিম,আয়্যুষ মাউথ ওয়াস, প-স পিম্পলসহ চিকিৎসা সামগ্রী খুলনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল সহ করোনা চিকিৎসকদের জন্য মহানগর আওয়ামী লীগের কাছে প্রেরণ করেন। কেন্দ্রিয় কমিটি প্রেরিত চিকিৎসা সামগ্রী গতকাল রবিবার প্রেস কাবের মাধ্যমে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ চিকিৎসকদের মাঝে হস্তান্তর করেন॥

    ২৫নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদকের মৃত্যুতে আ’লীগ, মন্ত্রী, মেয়র, সংসদ সদস্য ও বিসিবি’র শোক

    ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগের বার বার নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক শেখ আবুল হোসেন (৭৬) মৃত্যুবরণ করেছেন (ইন্নালিল্লাহে ……… রাজেউন)। তিনি হৃদরোগ আক্রান্ত হয়ে রবিবার রাত ২টায় বসুপাড়ায় নিজবাসভবনে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে ৪ মেয়ে নাতি নাতনি সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। শেখ আবুল হোসেনের নামাজে জানাযা বাদ জোহর রহমতপাড়া জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে মরহুমকে বসুপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়।

    এদিকে শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এবং খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা শোকাহতদের পাশে যান এবং সেখানে কিছু সময় অবস্থান করেন। নেতৃবৃন্দ শোকাহতদের ধৈর্য্য ধারনের জন্য সান্তনা দেন। পরে নেতৃবৃন্দ জানাযায় অংশগ্রহণ করেন। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, তসলিম আহমেদ আশা, মুন্সি আইয়ুব আলী, সরদার আব্দুল হালিম, সোহাগ, আব্দুর রহিম, শরীফ এনামুল কবির, বিএনপি নেতা শফিকুল আলম তুহিন সহ এলাকার বিভিন্ন পর্যায়ের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

    অপরদিকে আওয়ামী লীগ নেতা শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, মুন্সি আইয়ুব আলী, সরদার আব্দুল হালিম।

    ॥ শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র শোক ॥

    ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন।

    ॥ সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল এমপি’র শোক ॥

    ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল।

    ॥ এস এম কামাল হোসেন ॥

    ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন।

    ॥ শেখ সোহেল ॥

    ২৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ আবুল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল।

    মোংলায় চলাচলের পথ জবর দখলে রাখার অভিযোগ ভূমিদস্যু বারীর বিরুদ্ধে

    মোংলার কেওড়াতলা এলাকার একটি নিরিহ পরিবারের চলাচলের একমাত্র রাস্তা দখল করে রাখার অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী ভূমিদস্যু আ: বারীর বিরুদ্ধে। একই সাথে তার বিরুদ্ধে এই এলাকার আরো কয়েক ব্যক্তির ভূমি দখল ও হুমকি ধামকির দেয়ার ঘটনায় থানায় একাধিক লিখিত অভিযোগ এবং সাধারণ ডায়েরী করেছে ভুক্তভোগীরা।

    থানায় দাখিলকৃত অভিযোগ ও জিডির প্রেক্ষিতে জানা যায়, পৌর শহরের কেওড়াতলা এলাকায় একই ব্যক্তির কাছ থেকে জমি ক্রয় করেন কবির হোসেন ও অভিযুক্ত আঃ বারী। এরপর প্রভাবশালী আঃ বারী খরিদকৃত জমির পাশের রাস্তার জায়গাটুকুও দখল করে নেন। এদিকে ভূমি খরিদের পর মৃত্যু হয় কবির হোসেনের। তার অসহায় স্ত্রী সন্তান বারীর পিছনের অংশে বসবাস করতে থাকেন। তাদের খরিদকৃত জমির দলিলে তিন ফুট রাস্তার উল্লেখ থাকলেও জোরপূর্বক সেটি দখল করে রেখেছেন প্রভাবশালী আবদুল বারী। ন্যায় বিচার আর চলাচলের রাস্তা পেতে অপর বাসিন্দা মরহুম নুর ইসলামের স্ত্রী সূর্য্য বানু একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন মোংলা থানায়। একই এলাকার বাসিন্ধা দন্ত চিকিৎসক মোঃ নুরুল ইসলামের মালিকানাধীন ভূমি জোরপূর্বক দখল নেয়ার জন্য তার সাথে প্রতিনিয়ত বিবাদ তৈরী করছেন আঃ বারী। এমন দাবী করে তিনিও মোংলা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। স্থানীয় আরেক বাসিন্দা মোঃ শাহাদাৎ হোসেনের ভূমি দখলে নেয়ার জন্য তার সাথেও দীর্ঘদিন বিরোধ তৈরী করে তাকেও নানা হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে বলে মোঃ আঃ বারী ও তার দুই সন্তান নাইম মোল্লা ও হোসাইন মোল্লার বিরুদ্ধে মোংলা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন তিনি।

    সাধারন ডায়েরী ও অভিযোগকারীরা জানান, আবদুল বারী মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার বিভাগে চাকুরী করতেন। একই সাথে তিনি জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। এলাকায় তিনি একটি শক্তিশালী ভূমিদস্যু বাহিনী তৈরী করেছেন। লালন পালন করেন কিছু মাদকসেবী। তার অত্যাচারে আমাদের মতো অনেক নিরিহ মানুষ হয়রানীর শিকার হচ্ছেন। তার অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে আমরা থানা পুলিশের সহায়তা চেয়েছি। পুলিশের নির্দেশনাও মানছেন না প্রভাবশালী আঃ বারী।

    এ বিষয়ে মোংলা থানার এসআই অমিত কুমার বিশ্বাস বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়ে বাদী-বিবাদীকে ডেকে তাদের কাগজপত্র দেখেছি। অভিযোগকারী সূর্য্য বানুর দলিলে চলাচলের রাস্তার কথা উল্লেখ রয়েছে। জমিজমা নিয়ে যাতে কোন প্রকার বিরোধ সৃষ্টি না হয় সেজন্য রাস্তা ছেড়ে তাদেরকে দলিল মোতাবেক মাপঝোপ করে নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

    এ বিষয়ে আঃ বারী বলেন, দলিলেও উল্লেখ থাকলেও তিনি রাস্তা দিতে পারবেন না। চলাচলে সমস্যা হলে সূর্য্য বানুর সম্পত্তি তার কাছে বিক্রি করে দিতে পারেন। এদিকে এ বিষয়ে সংবাদ না করার জন্য তিনিসহ ছাত্রদলের পরিচয়বহনকারী এক মাদকসেবীকে দিয়ে সাংবাদিকদের ম্যানেজের অপচেষ্টাও চালান।

    পাইকগাছা সোলাদানায় হতদরিদ্র ১০৫০ পরিবারের মাঝে চাউল বিতরণ

    পাইকগাছার সোলাদানা ইউনিয়নে অসহায় ও হতদরিদ্রদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত চাল বিতরণ করা হয়েছে। রোববার সকালে সোলাদানা বাজারস্থ ইউপি কার্যালয়ে ১০৫০টি পরিবারের মাঝে ১০ কেজি হারে চাউল বিতরন করেন ইউপি চেয়ারম্যান এস,এম, এনামুল হক। উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য মোঃ আজিজুর রহমান লাভলু, আবুল কাশেম, ঠাকুর দাশ সরদার, আবু সাইদ মোল্যা, আব্দুস সবুর, রাজেশ কুমার মন্ডল, আবু বক্কার সিদ্দিক শিকারী, মোঃ আনিছুর রহমান, কল্যানী মন্ডল, গ্রাম পুলিশ সদস্য সহ আরো অনেকে।

    চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ৯৬তম জন্মবার্ষিকী আজ

    বিশ্ব বরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ৯৬তম জন্মবার্ষিকী সোমবার (১০ আগস্ট)। দিনটি পালন উপলক্ষে সুলতান সংগ্রহশালা চত্বরে আজ সোমবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকালে কোরআনখানি, দোয়া মাহফিল ও শিল্পীর কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণের আয়োজন করা হয়েছে। সুলতান ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা জানান স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিল্পীর ৯৬তম জন্মবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হবে। শিল্পী সুলতান ১৯২৪ সালের ১০ আগস্ট নড়াইল শহরের মাছিমদিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম মেছের আলী, মা মাজু বিবি। রাজমিস্ত্রি পিতা মেছের আলীর নান্দনিক সৃষ্টির ঘঁষামাজার মধ্য দিয়ে ছোট বেলার লাল মিঞার (সুলতান) চিত্রাংকনে সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ হয়।

    রাজমিস্ত্রি বাবার সংসারে দারিদ্রতার মাঝেও ১৯২৮ সালে নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুলে লেখাপড়া শুরু করেন এসএম সুলতান। স্কুলের অবসরে বাবার রাজমিন্ত্রী কাজে সহযোগিতার করার ফাঁকে ছবি আঁকতে শুরু করেন। রাজনীতিক ও জমিদার শ্যামাপ্রাসাদ মুখোপাধ্যায় ১৯৩৩ সালে নড়াইলের জমিদার ব্যারিস্টার ধীরেন রায়ের আমন্ত্রণে ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুল পরিদর্শনে আসলে তার একটি পোট্রেট আঁকেন পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র এসএম সুলতান। মুগ্ধ হন শ্যামাপ্রাসাদসহ অন্যরা। শিশু-কিশোরদের চারুকলা শিক্ষার প্রসারের লক্ষ্যে সুলতানের উদ্যোগে ১৯৬৯ সালের ১০ জুলাই নড়াইলে ‘দি ইনস্টিটিউট অব ফাইন আর্ট’ প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৮৭ সালে তিনি স্থাপন করেন ‘শিশুস্বর্গ’। এদিকে, সুলতান তার সঞ্চিত অর্থ দিয়ে ১৯৯২ সালে ৬০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৫ ফুট প্রস্থ বিশিষ্ট দ্বিতলা নৌকা (ভ্রাম্যমাণ শিশুস্বর্গ) নির্মাণ করেন। সুলতানের শিল্পকর্ম ছিল বাংলার কৃষক, কৃষাণী, জেলে, তাঁতি, কামার, কুমার, মাঠ, নদী, হাওড়, বাওড়, জঙ্গল, সবুজ প্রান্তর ইত্যাদি। চিত্রাংকনের পাশাপাশি বাঁশি বাজাতে পারতেন তিনি। পুষতেন সাপ, বেজি, বানর, খরগোস, মদনটাক, ভলুক, ময়না, গিনিপিগ, মুনিয়া, ষাঁড়সহ বিভিন্ন পশু-পাখি। চিত্রাপাড়ের লালমিয়া শিল্পের মূল্যায়ন হিসেবে পেয়েছেন ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ম্যান অব দ্য ইয়ার’ নিউইয়র্কের বায়োগ্রাফিক্যাল সেন্টার থেকে ‘ম্যান অব অ্যাচিভমেন্ট’ এবং এশিয়া উইক পত্রিকা থেকে ‘ম্যান অব এশিয়া’ পুরস্কার। এছাড়া ১৯৮২ সালে একুশে পদক এবং ১৯৯৩ সালে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হন। ১৯৮৪ সালে বাংলাদেশ সরকারের রেসিডেন্ট আর্টিস্ট হিসেবে স্বীকৃতি এবং ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ সম্মাননা পান। সুলতানের স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য শিল্পীর মৃত্যুর পর সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে শিল্পীর বাসভবন সংলগ্ন ২একর ৫৭ শতক জমির ওপর নির্মিত হয়েছে এস এম সুলতান স্মৃতি সংগ্রহশালা।

    কাজের মান নিয়ে কোন ছাড় দেয়া হবে না; ওবায়দুল কাদের

    সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কাজের মান নিয়ে কোন রকম ছাড় দেয়া হবে না। কোনভাবেই কাজের মান খারাপ করা যাবে না। যেসকল ঠিকাদার মানসম্মত কাজ করে না বা সময়মত সম্পন্ন কওে না তাদেও কার্যাদেশ বাতিল করা হবে। গোপালগঞ্জ জোনের উন্নয়ন প্রকল্প সমূহের অগ্রগতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, বিআরটিএ, বিআরটিসিকে লাভজনক করতে হবে। দূর্নীতির বৃত্তায়ন থেকে বের হয়ে আসতে হবে। সরকারি অর্থেও সর্বাধিক ব্যবহার করতে হবে। সরকারি অর্থ অপচয় করা যাবে না।

    রোববার বেলা ১১টায় গোপালগঞ্জ সড়ক ও জনপথ জোন অফিসের হলরুমে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী কাজী শাহরিয়ার হোসেন, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (পরিকল্পনা ও রক্ষণাবেক্ষণ উইং) একেএম মনির হোসেন পাঠান, গোপালগঞ্জ জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ জাকির হোসেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, গোপালগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন, বিআরটিএ এর সহকারী পরিচালক সুবির সাহা, বিআরটিসির ব্যবস্থাপক নিহার মজুমদারসহ বিভিন্ন কর্মকর্তা ও গোপালগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিক বৃন্দ।

    ফসলের সাথে শত্রুতা!

    যশোরের মণিরামপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে আব্দুল আজিজ নামে এক প্রান্তিক কৃষকের দুই বিঘা জমির সবজি ক্ষেত কেটে সাবাড় করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (৮ আগষ্ট) কোন একসময় উপজেলার মুন্সিবাড়ি মাঠে এঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আব্দুল আজিজ উপজেলার মুন্সি খানপুর গ্রামের বাদশা দিদারের ছেলে। বাঁচার একমাত্র সম্বল হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন তিনি। রোববার (৯ আগষ্ট) বিষয়টি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন তিনি।

    আব্দুল আজিজ বলেন, চল্লিশ হাজার টাকায় দুই বিঘা জমি লিজ নিয়ে পটল ও কাকরোল চাষ করেছি। ইতিমধ্যে গাছে ফলন এসেছে। গাছের ডগায় ডগায় ঝুলছে পটল ও কাকরোল। শুক্রবার দিনভর ক্ষেতে কাজ করেছি। শনিবার আর ক্ষেতে যেতে পারিনি। রোববার ভোরে যেয়ে দেখি ক্ষেতের সব গাছ কাটা। এখন ভরা মৌসুম। সপ্তাহে পাঁচ-ছয় হাজার টাকার সবজি বিক্রি করা যায়। যা দিয়ে আমার সংসার চলে। এখন সব শেষ।

    তিনি বলেন, কারো সাথে আমার শত্রুতা নেই। আমার ক্ষেতে গ্রামের দুই নারী কাজ করেন। তাদের একজনকে প্রায়ই বিরক্ত করেন গ্রামের এক যুবক। বিষয়টি জানতে পেরে আমি প্রতিবাদ করেছি। ফলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই যুবক একাজ করতে পারে।

    খানপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মিলন হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমি সকালে ওই ক্ষেতে গিয়েছি। আব্দুল আজিজের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।

    মণিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হীরক সরকার বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিন দেখে কৃষককে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

    সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জ থেকে অবৈধভাবে কাঁকড়া ধরায় ৬ জেলে আটক

    পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের গহিনে অবৈধ ভাবে কাঁকড়া ধরার সময় মালামালসহ ৬ জেলেকে আটক করেছে বনবিভাগের সদস্যরা। রোববার সকালে কাচিকাটা টহল ফাঁড়ির সদস্যরা ৪৮ নং কম্পার্টমেন্টের চরের খাল থেকে তাদের আটক করেন।

    আটককৃত জেলেরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার মরগাং গ্রামের আজগর শেখের ছেলে আলম শেখ, মোফাজ্জল শেখের ছেলে আদম শেখ ও আজিবর শেখ, কুরবার গাজীর ছেলে কওছার গাজী এবং ভেটখালী গ্রামের মৃত অছির সরদারের শাহাদত সরদার ও জিয়াদ গাজীর ছেলে মুজিবর রহমান গাজী।

    গুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বনসংরক্ষক (এসিএফ) এম.এ হাসান জানান, সুন্দরবন নিরাপত্তা টহল দেওয়ার সময় কাচিকাটা টহল ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে ২টি নৌকা, বৈঠা ও কাঁকড়া ধরার কাজে ব্যবহৃত আনুষাঙ্গিক মালামালসহ উক্ত ৬ জেলেকে আটক করে। এ ঘটনায় বন আইনে মামলা দেয়া হয়েছে। আটক জেলেদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি আরো জানান।

    পাইকগাছায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টার অভিযোগ

    পাইকগাছায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখল নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। অভিযোগে দেখা যায়, উপজেলার কুমখালী মৌজার ৫০ বিঘা সম্পত্তি নিয়ে সঞ্জীব ঢালী ও পরিমল বৈদ্যদের মধ্যে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। বাদা কাটা সম্পত্তিতে সঞ্জীবের পূর্ব পুরুষরা ভোগ দখল করে আসছে। ধান রোপন ও কাটার সময় আসলে প্রতিপক্ষরা উক্ত সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা করে বলে অভিযোগে প্রকাশ। চলতি আমন ধান রোপন মৌসুমের সময় পরিমল বৈদ্যরা আবারো জবর দখলের চেষ্টা করলে সঞ্জীব ঢালী বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ পরিমল বৈদ্য ও দিলিপ সানা সহ ৪ জনের নামে থানায় ৬৩৬/২০ নং জিডি করেছেন। এদিকে, প্রতিপক্ষরা ২০১৯ সালে আমন ধান কাটার চেষ্টা করলে সঞ্জীব ঢালী বাদী হয়ে বিজ্ঞ উপজেলা নির্বাহী আদালতে এম.আর ২০৮/১৯নং মামলা করে। বিজ্ঞ আদালত উভয়পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক শুনানী অন্তে সম্পত্তিতে শান্তি-শৃংখলা ভঙ্গের আশংকা দেখা দেয়ায় প্রতিপক্ষদের সম্পত্তিতে প্রবেশে অন্তর্বর্তীকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ সহ ওসি, পাইকগাছাকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার আদেশ দেন। চলতি বছর একই ভাবে এ আইন অম্যান্য করায় প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে পুলিশ সুপার, খুলনা বরাবর অভিযোগ দায়ে হয়েছে। তিনি বিজ্ঞ আদালতের আদেশ ও তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সহকারী পুলিশ সুপার (ডি-সার্কেল) এর নিকট অভিযোগটি প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে দিলিপ সানা জানান, আমরা বৈধ কাগজপত্রের ভিত্তিতে দাবীদার। এ জমি নিয়ে আদালতে মামলা চলমান।

    খুলনায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি

    হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে খুলনায় বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

    ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা এবং সূর্যাস্তের পূর্বে নামানো হবে। সকাল সাড়ে আটটায় বাংলাদেশ বেতার খুলনা কেন্দ্রে অবস্থিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে। প্রতি দপ্তর হতে সর্বোচ্চ তিন জন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পুষ্পমাল্য অর্পণে অংশ নিতে পারবেন। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব কালীন স্বাস্থ্যঝুঁকি বিবেচনায় এবছর জাতীয় শোক দিবসের র‌্যালি হবে না। পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে সকাল ১০টায় খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জুম এ্যাপের মাধ্যমে দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। পরে একই স্থানে শিশু একাডেমির চিত্রাংকন, কবিতা আবৃত্তি ও রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার এবং যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ঋণ বিতরণ করা হবে।

    ১২ আগস্ট সুবিধামত সময়ে দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে শিশু একাডেমি বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মভিত্তিক কবিতা আবৃত্তি ও চিত্রাংকন প্রতিযোতিার আয়োজন করবে। এছাড়া ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে সকল সরকারি, বেসরকারি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দিবসের সাথে সংগতিপূর্ণ আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, চিত্র প্রদর্শনী, হামদ ও নাত প্রতিযোগিতা এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে।

    ১৫ আগস্ট সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে মসজিদসমূহে বাদ যোহর বিশেষ মোনাজাত এবং সুবিধাজনক সময়ে মন্দির, গীর্জা, প্যাগোডা ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনা করা হবে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে বাদ যোহর কালেক্টরেট জামে মসজিদ, পুলিশ লাইন মসজিদ ও টাউন জামে মসজিদে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মাসব্যাপী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রোথসেন্টারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে শোক দিবসের পোস্টার স্থাপন এবং এলইডি বোর্ডের মাধ্যমে জাতীয় শোক বিষয়ক প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম নিয়ে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

    ১৫ আগস্ট ইসলামিক ফাউন্ডেশন সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কোরআন তেলাওয়াত, হামদ-নাত, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে। দিবসটি উপলক্ষে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও সমাজসেবা অধিদপ্তর তাদের অধীন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন, সরকারি শিশু পরিবারসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে কোরআন তেলাওয়াত, আলোচনা সভা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, দামদ-নাত ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে। জাতীয় শোক দিবসে স্থানীয় সংবাদপত্রগুলো বিশেষ সংখ্যা বা ক্রোড়পত্র প্রকাশ এবং বাংলাদেশ বেতার খুলনা বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচার করবে। সকল সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং উপজেলা পর্যায়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে।

    অগ্নিদগ্ধ প্রতিবন্ধী যুবক পেল সরকারি সহায়তা

    যশোরের মণিরামপুরে আগুনে পুড়ে যাওয়া মমিনুর রহমান (২৬) নামে এক যুবক সরকারি সহায়তা পেয়েছেন। রোববার (৯ আগষ্ট) বিকেলে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে ওই যুবকের পিতার হাতে ১৫ হাজার টাকার চেক তুলে দেন ইউএনও সৈয়দ জাকির হাসান। এসময় রোহিতা ইউপি চেয়ারম্যান আবু আনছার সরদার, ইউপি সচিব কৃষ্ণ গোপাল মুখার্জী, ইউপি সদস্য মনিরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    মমিনুর রহমান উপজেলার কোদলাপাড়া গ্রামের রমজান আলীর ছেলে। মমিনুর বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। আর তার পিতা রমজান আলী নিজেই পঙ্গু।

    ইউপি সচিব কৃষ্ণ গোপাল মুখার্জী বলেন, গত আট জুলাই মায়ের সাথে অভিমান করে গায়ে পেট্রোল ঢেলে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় মমিনুর। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তার বুক থেকে মুখ পর্যন্ত ঝলসে গেছে।

    ইউপি সচিব বলেন, আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল হওয়ায় ছেলের চিকিৎসা করাতে পারছেন না রমজান। ফলে বিনা চিকৎসায় ঘরের বারান্দায় পড়ে আছে মমিনুর। মমিনুরের দেহের পোড়া অংশে পচন ধরেছে। আমি বিষয়টি ইউএনও সৈয়দ জাকির হাসান স্যারকে জানিয়েছি। পরে রমজান আলীর আবেদনের ভিত্তিতে ইউএনও জেলা প্রশাসক স্যারের সাথে কথা বলে ১৫ হাজার টাকা পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।

    মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হাসান বলেন, অগ্নিদগ্ধ যুবকের পিতা আর্থিক সহায়তা চেয়ে আবেদন করেছিলেন। সেই আবেদনের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসক স্যারের পক্ষ থেকে ১৫ হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে।

    ইশা ছাত্র আন্দোলন জেলা শাখার ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

    রবিবার বিকাল ৩ টায় জেলা কার্যালয়ে ইশা ছাত্র আন্দোলন খুলনা জেলা শাখার ঈদ পুনর্মিলনী জেলা সভাপতি মুহাম্মাদ নাজমুস সাকিবের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এইচ এম ইনামুল হাসান সাঈদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

    প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা জেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল্লাহ ইমরান। বিশেষ অতিথি ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা জেলা সহ-প্রচার সম্পাদক এস কে নাজমুল হাসান। প্রধান অতিথি বক্তব্যে বলেন বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে ইশা ছাত্র আন্দোলন সারা দেশে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছে, যা বাংলাদেশের জনগণ এখন স্বীকার করছে। তিনি আরও বলেন ছাত্রদের সংগঠনে আরও ভূমিকা ও সক্রিয় তার সাথে কাজ করতে হবে।

    উক্ত ঈদ পুনর্মিলনীতে উপস্থিত ছিলেন কে এম মাহমুদুল হাসান, ফরহাদ মোল্লা, আবু রায়হান, আব্দুল আলীম, আলিমুল ইসলাম, মোঃ আব্দুল্লাহ, রাসেল, শফিকুর রহমান, ইউসুফ, শরিফুল ইসলাম, কাবির হুসাইন সহ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

    ফুলতলায় প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধু জখম

    প্রতিবেশির বাড়িতে ৩ মাস বয়সী গরুর বাছুর প্রবেশ করাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় স্বর্ণ বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধু গুরুতর জখম হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনা ঘটে শুক্রবার সন্ধ্যায় ফুলতলার গাড়াখোলা গ্রামে। তিনি ঐ গ্রামের মোঃ তোতা আকুঞ্জীর স্ত্রী।

    পারিবারিক সূত্র জানায়, তোতা আকুঞ্জীর গুরুর বাছুর প্রতিবেশি আবজাল আকুঞ্জীর বাড়ি ঢুকে পড়ে। এ সময় স্বর্ণা বেগম বাছুরটি আনতে গেলে আবজাল আকুঞ্জীর স্ত্রী সাহিদা বেগম ও পুত্র বাপ্পি আকুঞ্জীর সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এক পর্যায়ে তার মাথা ফেটে সঙ্গাহীন হয়ে পড়লে তাকে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সে ভর্তি করা হয়। তবে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রোববার সকালে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

    আন্তঃ জেলা মটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের ৪ সদস্য আটকঃ চোরাই দুই মটরসাইকেল উদ্ধার

    থানা পুলিশ শনিবার দিবাগত রাতে মাগুরার শ্রীপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোরাই পালসার মটরসাইকেল উদ্ধার এবং চোর সিন্ডিকেটের ৪ সদস্যকে আটক করে। আটককৃতরা হলো মাগুরা জেলার শ্রীপুর থানার বটিয়াখালী গ্রামের ফনে বিশ্বাসের পুত্র শুভদেব বিশ্বাস (২৫), সঞ্জয় বিশ্বাসের পুত্র সজিব বিশ্বাস (১৯), বরালিধা গ্রামের সুনীল সরকারের পুত্র সৌরভ সরকার (২০) এবং নারকোল গ্রামের মৃত বনি মোল্যার পুত্র শিবলু মোল্যা (৩২)।

    পুলিশ জানায়, শনিবার সন্ধ্যা ৭ টায় ফুলতলার চৌদ্দমাইল এলাকার ইউনাইটেড ব্রিক্স এর মালিক আবুল হাসান মোড়লের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গাড়ির গ্যারেজ থেকে একটি পালসার মোটর সাইকেল (খুলনা-মেট্রো-ল-১১-৪৬০৬) চুরি হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওসি (তদন্ত) মোস্তফা হাবিবুল্লাহ’র নেতৃত্বে পুলিশ শনিবার দিবাগত রাতে মাগুরার শ্রীপুরের বটিয়াখালী গ্রামের ফনে বিশ্বাসের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চুরিকৃত ঐ মটরসাইকেলটি উদ্ধার এবং চোর শুভদেব বিশ্বাস (২৫) কে আটক করে। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক সজিব বিশ্বাস, সৌরভ সরকার ও শিবলু মোল্যাকে আটক করে। এ সময় শিপলু মোল্যার বাড়ি থেকে অপর একটি চোরাই ১৩৫ সিসি ডিসকভার মোটর সাইকেল উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে ফুলতলা থানায় মামলা (নং- ০৩, তারিখ- ০৯/০৮/২০২০ ইং) দায়ের হলে গতকাল তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

    এনটিভির খুলনা অফিসের স্টাফ ক্যামেরাপার্সন’র মাতার ইন্তেকাল

    মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (এমইউজে) খুলনার সদস্য ও এনটিভির খুলনা অফিসের স্টাফ ক্যামেরাপার্সন মো. আজিজুল ইসলামের মাতা সরবানু বেগম (৮৭) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। শনিবার দিবাগত রাত সোয়া নয়টার দিকে নগরীর বাগমারা বাইলেনের নিজ বাসায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ৫ ছেলে ও ২ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। রোববার বাদ জোহর খুলনা দারুল উলুম মাদরাসা ময়দানে মরহুমার নামাজে জানাজা শেষে নিরালা কবরস্থানে দাফন করা হয়। এদিকে সাংবাদিক মো. আজিজুল ইসলামের মায়ের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন দৈনিক খুলনাঞ্চল সম্পাদক মিজানুর রহমান মিলটন ও খুলনাঞ্চল পরিবারের সদস্যবৃন্দ। বিএফইউজের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী ও মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, এমইউজের একাংশের খুলনার সভাপতি মো. আনিসুজ্জামান, সহ-সভাপতি এহতেশামুল হক শাওন, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান হিমালয় ও কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রানা, বিএফইউজের সাবেক সহ-সভাপতি ড. মো. জাকির হোসেন, সাবেক নির্বাহী সদস্য শেখ দিদারুল আলম ও এহতেশামুল হক শাওন। অনুরুপ বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা প্রেসকাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজাসহ নির্বাহী পরিষদের সদস্যবৃন্দ। খুলনা টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের নিয়ামুল হোসেন কচি, আবু সাঈদ, শাহজালাল মোল্লা মিলন, হাসান আল মামুন, আমির সোহেল, আরিফ বিল্লাহ, মেহেদী হাসান পলাশ, রকিবুল ইসলাম মতি, জাকারিয়া হোসেন তুষার, শেখ জুয়েল, আরাফাত হোসেন অনিক, আবুল বাশার, সোহেল, শেখ রাসেল, মনিরুল ইসলাম সাগর, রফিক আলী সহ সংগঠনের সকল সদস্যবৃন্দ।

    কয়রায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ

    জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী, মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কয়রায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। গত শনিবার সকাল ১১টায় ৬ নং কয়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু। এ সময় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের আত্মার মাগফিরত কামনা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ শেখ পরিবারের সকলের দীর্ঘায়ু করে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলা ও বাঙালির ইতিহাসে যার নাম জড়িয়ে রয়েছে, তিনি আমাদের জাতির পিতা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার জীবনে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের সেই ‘বিজয় লক্ষ্মী’ নারী হিসেবে এসেছিলেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ মুজিবের বাঙালি জাতির জনক হয়ে ওঠার পেছনে ফজিলাতুন্নেছার অবদান, অনুপ্রেরণা ও আত্মোৎসর্গ অনস্বীকার্য। তার কারণেই একটি জাতির মনে স্বাধীনতার স্বপ্ন বপণ করে এর স্বাদও এনে দিতে পেরেছিলেন বঙ্গবন্ধু। তার রাজনৈতিক দর্শন ও আদর্শকে বাস্তবায়ন করতে পেছন থেকে কাজ করেছেন শেখ মুজিবের সহধর্মীণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকুর সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন, কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস এম শফিকুল ইসলাম, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) মোঃ নুর-ই-আলম ছিদ্দিকি, বি আই ডবিউ টি এ যুগ্ম পরিচালক আশসাব হোসেন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক এ্যাডঃ ফরিদ আহমেদ,পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম মোঃ হুমায়ুন কবির, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ মোঃ আবু হানিফ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাগর হোসেন সৈকত, কয়রা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাঃ হুমায়ুন কবির, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবু, জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, হারুন আর রশীদ, কয়রা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক সরদার হারুন আর রশিদ, উপাধ্যক্ষ এইচ এম নজরুল ইসলাম, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ আবু সাঈদ খান, বিএল কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শেখ মোঃ শাকিল, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাস, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আমিনুল ইসলাম বাদলসহ ছাত্রলীগে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মী।

    দাকোপে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে এক ব্যবসায়ীর সর্বস্ব ভস্মীভূত

    খুলনার দাকোপে চালনা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে এক ব্যবসায়ীর বসত বাড়ীসহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার গার্মেন্টসের বিভিন্ন মালামাল সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় তুলসীর পাকাঘাট সংলগ্ন এলাকায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। বৈদ্যতিক শটসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারনা করা হচ্ছে।

    ভূক্তভোগী ব্যবসায়ী তাপস সাহা জানায়, তার বসত বাড়ি কাঠের পাটাতনের দোতলায় বৈদ্যতিক শটসার্কিট থেকে আগুন লাগে। এসময় তিনি পাশর্^বর্তি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে ছিলেন। সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে তিনি বাড়িতে আসেন। আগুনের লেলিহান শিখা দেখতে পেয়ে এলাকার লোকজন চিৎকার শুরু করেন। এসময়ে শত শত নারী পুরুষ এগিয়ে এসে পানি দিয়ে প্রায় সোয়া এক ঘন্টা ধরে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালিয়ে নিয়ন্ত্রনে আনে। ততক্ষনে দোতলায় থাকা গার্মেন্টসের জিন্সের প্যান্ট, লুঙ্গি, শার্ট, ১২ ভরি সোনা, নগদ ৫৫ হাজার টাকাসহ প্রায় ১০ লক্ষ টাকার মালামাল সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এব্যাপারে চালনা পৌরসভার মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস বলেন তিনি খবর পেয়েছেন কিন্তু করোনা পজেটিবের কারণে ঘটনাস্থলে যেতে পারেনি। তবে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার আবেদন করলে তিনি আর্থিক সহায়তা করবেন বলে জানান।

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৫৩ জন করোনায় আক্রান্ত

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৫৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১১২৮ জন। ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন কার্যলয়ের মেডিক্যাল অফিসার ও করোনা সেলের মুখপাত্র ডা. প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ জানান, রোববার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ১২৮ টি নমুনার রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ৫৩ টি পজেটিভ।

    আক্রান্তরা হলেন, সদর উপজেলায় ৩৯ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ৭ জন, শৈলকুপা উপজেলায় ৩ জন, কোটচাদপুর উপজেলায় ১ জন এবং মহেশপুর উপজেলায় ৩ জন। আক্রান্ত ১১২৮ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৬৪১ জন। কোভিড-১৯ হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২১ জন। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১৮ জন।

    নদীর চর থেকে মৃত ডলফিন উদ্ধার

    সাতক্ষীরা শ্যামনগরের কাশিমাড়ী ইউনিয়নের ঝাপালী খোলপেটুয়া নদীর চর থেকে একটি মৃত ডলফিন উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (৯ আগস্ট) সকালে স্থানীয়রা খোলপেটুয়া নদীর চরে ডলফিনটি ভাসতে দেখে উদ্ধার করে কাশিমাড়ী ইউপি চেয়ারম্যানকে জানায়। ইউপি চেয়ারম্যান এসএম আব্দুর রউফ তাৎক্ষণিক শ্যামনগর মৎস্য কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। কাশিমাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ বলেন, আগে এসব নদীতে ভাটা হলে অনেক ডলফিন দেখা যেত। কিন্তু নদী ছোট হয়ে যাওয়ার কারণে ডলফিন খুব কম দেখা যায়। সকালে স্থানীয়রা ডলফিনটি খোলপেটুয়া নদীর চরে ভাসতে দেখে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। মরা ডলফিন পরিবেশের ক্ষতি করছে। সে কারণে মাটিতে পুতে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

    শ্যামনগর মৎস্য কর্মকর্তা তুষার মজুমদার জানান, মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কামাল হোসাইন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মৃত ডলফিনটি মাটিতে পুতে রাখার সিদ্ধান্ত দেন। ডলফিনটি পুরুষ প্রজাতির। লম্বা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। ওজন প্রায় ৮০ কেজি।

    বাসচাপায় ৬ জন নিহতের ঘটনায় কারাগারে চালক

    চুয়াডাঙ্গায় বাসচাপায় ছয়জন নিহতের ঘটনায় গ্রেফতারকৃত বাসচালককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রোববার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এর আগে এ ঘটনায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আবু হাছান বাদী হয়ে দুইজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন। গ্রেফতার বাসচালক আসাদুল আলম চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার ফার্মপাড়ার আব্দুল ওহাব মন্ডলের ছেলে। জানা যায়, শনিবার সকালে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার সরোজগঞ্জ বাজারে যাত্রীবাহী বাসচাপায় ছয়জন নিহত ও চারজন আহত হন। এ ঘটনায় সদর থানা পুলিশের এসআই আবু হাছান মামলা করেন। এরপর বাসচালক আসাদুল আলমকে শহরের বড়বাজার এলাকা থেকে শনিবার সন্ধ্যায় গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে রোববার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা আমলী আদালতে সোপর্দ করা হয়। চুয়াডাঙ্গা আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাজেদুর রহমান তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বিকেলে তাকে কারাগারে নেয়া হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ মো. ফকরুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতার বাসচালককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

    শান্তিরক্ষা মিশনে যোগ দিতে লেবানন যাচ্ছে যুদ্ধজাহাজ ‘সংগ্রাম’

    পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ‘সংগ্রাম’ রোববার (৯ আগস্ট) লেবাননের উদ্দেশে চট্টগ্রাম নৌ জেটি ত্যাগ করেছে। এ সময় চট্টগ্রাম নৌঅঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল এম মাহবুব-উল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে জাহাজটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানান। অন্যান্যদের মধ্যে নৌবাহিনীর পদস্থ সামরিক কর্মকর্তাগণ, জাহাজে গমনকারী কর্মকর্তা ও নাবিকদের পরিবারের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    জাতিসংঘের আওতায় মাল্টিন্যাশনাল মেরিটাইম টাস্কফোর্সের অধীনে ভূ-মধ্যসাগরে টহরঃবফ ঘধঃরড়হং ওহঃবৎরস ঋড়ৎপব রহ খবনধহড়হ (টঘওঋওখ) বর্তমানে বানৌজা। ‘বিজয়’ দায়িত্বরত রয়েছে। জাহাজটি দীর্ঘ ২ বছর ৮ মাস সফলভাবে দায়িত্ব পালন শেষে বানৌজা সংগ্রাম’কে দায়িত্ব হস্তান্তর করবে। নৌবাহিনী যুদ্ধজাহাজ সংগ্রামের অধিনায়ক ক্যাপ্টেন ফয়সাল মোহাম্মদ আরিফুর রহমান ভূঁইয়ার নেতৃত্বে সর্বমোট ১৫ জন কর্মকর্তা এবং ৯৫ জন নাবিক শান্তিরক্ষা মিশনে যোগ দিতে লেবাননের উদ্দেশে গমন করেন। বানৌজা বিজয়কে প্রতিস্থাপনের উদ্দেশে গত ১৮ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বানৌজা সংগ্রামকে কমিশনিং করেন।

    উল্লেখ্য, গত ২০১০ সাল থেকে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ লেবাননে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণ করে আসছে। লেবাননের ভূ-খ-ে অবৈধ অস্ত্র এবং গোলাবারুদ অনুপ্রবেশ প্রতিহত করতে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে চলেছে নৌবাহিনীর জাহাজ। পাশাপাশি লেবানিজ জলসীমায় উক্ত জাহাজ মেরিটাইম ইন্টারডিকশন অপারেশন, সন্দেহজনক জাহাজ ও এয়ারক্রাফটের ওপর গোয়েন্দা নজরদারি, দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজে উদ্ধার তৎপরতা এবং লেবানিজ নৌসদস্যদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে বিশ্ব শান্তিরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

    বিএনপি নেতা ফরিদুল হকসহ ৩ জনের ইন্তেকালে নগর বিএনপির শোক

    খুলনা সদর থানা বিএনপির কোষাধ্যক্ষ ও ২৮নং ওয়ার্ড বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক এস এম ফরিদুল হক, এনটিভি খুলনার ক্যামেরা পারসন আজিজুল ইসলামের মাতা ও নগর ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফা সুমনের পিতা ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…..রাজিউন)।

    রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন এস এম ফরিদুল হক (৪৫)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দু’ছেলে, এক মেয়ে, মা ও এক ভাইসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। গতকাল বাদ আসর টুটপাড়া হাজীবাগ জামে মসজিদে জানাযা শেষে তাকে টুটপাড়া সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। শনিবার রাতে নগরীর একটি স্থানীয় কিনিকে বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন এনটিভি খুলনার ক্যামেরা পারসন আজিজুল ইসলামের মাতা সরবানু (৮৭)। তিনি মৃত্যুকালে ৫ ছেলে, ২ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। গতকাল রবিবার বাদ জোহর দারুল উলুম মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে জানাযা শেষে তাকে নিরালা সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়। শনিবার বিকেল ৫টায় আবু নাসের হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন নগর ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফা সুমনের পিতা রেজাউল করিম (৫০)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে যান। গতকাল রবিবার সকাল ৯টায় সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার গাবুরা গ্রামের চকবারা সি এস কাব মাঠে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

    তাদের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন নগর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দরা হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মোঃ মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

    দেবহাটায় ইউএনওর ভ্রাম্যমান আদালতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বাস চালককে জরিমানা

    দেবহাটায় ইউএনওর ভ্রাম্যমান আদালতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় একটি বাস চালককে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের নির্দেশনা মোতাবেক গাড়িতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় একটি যাত্রীবাহী বাসের ড্রাইভারকে নগদ জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এসময় দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক যাত্রীবাহী বাসসহ সকল জনগনকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান। জানা গেছে, একটি যাত্রীবাহী বাস সাতক্ষীরা থেকে কালীগঞ্জ দিকে রবিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে যাচ্ছিলো। কিন্তু উক্ত বাসে সরকারের নির্দেশনা বঙ্গ করে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় একজন সচেতন যাত্রী সরকারের জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করেন। উক্ত ফোন কলের সূত্র ধরে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের নির্দেশনা মোতাবেক দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন উপজেলার সখিপুর মোড়ে বিভিন্ন পরিবহন ও ইজিবাইকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এসময় তিনি সাতক্ষীরা মেট্রো জ ১১-১৩৫৮ নম্বরের একটি যাত্রীবাহী বাসে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করায় উক্ত বাসের ড্রাইভার আব্দুর রশিদকে ১৮৬৫ দন্ডবিধিতে নগদ ২৭ শত টাকা জরিমানা আদায় করেন। এসময় ইউএনওর সাথে দেবহাটা থানার এসআই হুমায়ুন কবিরসহ থানার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

    দেবহাটা সদরে আকষ্মিক অগ্নিকান্ডে পঙ্কজ দত্তের মুদিখানার দোকান পুড়ে ছাই

    দেবহাটা উপজেলার সদরের পঙ্কজ দত্তের মুদিখানার দোকানটি আকষ্মিক অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ২০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে পঙ্কজ দত্তের। আর উপার্জনের একমাত্র মাধ্যমে দোকানটি পুড়ে যাওয়ায় পথে বসেছে পঙ্কজ দত্তের পরিবারটি। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন, দেবহাটা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শেখ ইয়াছিন আলী ঘটনাস্থলটি পরিবার করেছেন। তারা যতটুকু সম্ভব সহযোগীতা করবেন বলে জানিয়েছেন। স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার রাত ১০ টার আগে পঙ্কজ দত্ত প্রতিদিনের মতো তার দোকানটি বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। তার দোকানের মধ্যে মুদিখানার মালামালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সকল প্রকারের মালামাল বিক্রয় করা হয়। রাত ৩ টার দিকে তার দোকানে আকষ্মিক অগ্নিকান্ড দেখেন দোকানের পাশে বসবাসকারীরা। এসময় তারা চিৎকার দিলে আশেপাশের লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ করলেও তারা আগুন নিয়ন্ত্রনে না আনতে পেরে দেবহাটা প্রেসকাবের সাধারন সম্পাদক আর.কে.বাপ্পা সরকারের জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করে দ্রুত কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে যোগাযোগ করেন। ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনলেও ততক্ষনে সব পুড়ে শেষ। পঙ্কজ দত্ত জানান, তার দোকানে সব মিলিয়ে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার মালামাল ছিল। এছাড়া তার অনেক ক্রেতার কাছে বহু টাকা পাওনা আছে। তিনি এখন পরিবার পরিজন নিয়ে পথে বসেছেন। পঙ্কজ দত্ত তার অসহায় পরিবারকে বাচাতে প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়েছেন। এলাকাবাসী জানান, পঙ্কজ দত্ত একজন ভাল মানুষ। তিনি সকলের সাথে ভাল ব্যবহার করতেন। এছাড়া তার দোকানে সকল প্রকারের মালামাল পাওয়া যেত বিধায় তার দোকানের কাষ্টমার অনেক বেশী। কেউ শত্রুতামূলকভাবে এমন জঘন্য কাজ করেছে কিনা বা কি কারনে এমন ধরনের আগুনের সূত্রপাত হলো তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেছেন।

    কেশবপুর প্রেসকাবের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা

    কেশবপুর প্রেসকাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের নির্বাচনী তফসিল ৭ আগস্ট (শুক্রবার) ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ৫ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ব্যালটে প্রার্থীর নামের উপর অথবা নামের ডান পাশে সীল প্রদান করে ভোটাধিকার প্রয়োগের মধ্য দিয়ে দ্বিবার্ষিক এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কেশবপুর প্রেসকাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের এই নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সাক্ষরিত একটি পত্র থেকে জানা গেছে, নির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়েছে ৫ সেপ্টেম্বর (শনিবার) বিরতিহীনভাবে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত। খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে কেশবপুর প্রেসকাবের নোটিশ বোর্ডে ১০ আগস্ট (সোমবার)। ভোটার তালিকা সংক্রান্ত আপত্তি গ্রহণ ১১ আগস্ট (মঙ্গলবার) বিকাল ৫টা থেকে ৬টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে কেশবপুর প্রেসকাবের নোটিশ বোর্ডে ১৩ আগস্ট (বৃহস্পতিবার)। মনোনয়ন পত্র ক্রয় ১৬ আগস্ট (রবিবার) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। প্রতিটি মনোনয়ন পত্র ক্রয়ের মূল্য সভাপতি/সম্পাদকের ৫শ, সহ-সভাপতি ৪শ, অন্যান্য পদ/সদস্য ৩শ টাকা। মনোনয়ন পত্র জমাদান ১৮ আগস্ট (মঙ্গলবার) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। তবে মনোনয়ন পত্র কাটা ছেড়া ওভার রাইটিং গ্রহণযোগ্য নয়। মনোনয়ন পত্র বাছাই ১৯ আগস্ট (বুধবার) বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার ২০ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। চুড়ান্ত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে কেশবপুর প্রেসকাবের নোটিশ বোর্ডে ২২ আগস্ট (শনিবার) বিকাল ৫টায়। ভোটাররা ৫ সেপ্টেম্বর (শনিবার) ভোটের দিন ব্যালটে প্রার্থীর নামের উপর অথবা নামের ডান পাশে সীল প্রদান করে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

    ফুলতলায় সন্ধানী ইন্স্যুরেন্স ও রিকো এনজিও কর্মকর্তার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

    খুলনার ফুলতলায় সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এবং রিকো এনজিও’র দু’ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ১৩ গ্রাহকের ১২ লক্ষাধিক টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পাওয়া গেছে। ঐ দু’ প্রতিষ্ঠানের দু’ কর্মকর্তা হলেন ফুলতলার পায়গ্রাম কসবা গ্রামের মৃত বাবর আলী তরফদারের কন্যা ও সাবেক ইউপি সদস্য নাহিদা সুলতানা শান্তা এবং আটরা ডাক্তারবাড়ী এলাকার আঃ মান্নান তালুকদারের পুত্র কামরুজ্জামান তালুকদার ওরফে ফিরোজ ভূয়া ভাউচার প্রদান করে গ্রাহকদের ১০ বছর মেয়াদী ডিপিএস এর টাকা আত্মসাত করেছে এমন অভিযোগে প্রতারনার শিকার গ্রাহকেরা গতকাল রোববার বিকালে প্রেসকাব ফুলতলায় অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এ অভিযোগ করা হয়। লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গ্রাহক তরফদার মাসুমের স্ত্রী জোসনা বেগম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতারণার শিকার গ্রাহক সুলতানা রাজিয়া, রিতা সরকার, হোসনেয়ারা বেগম, জেসমিন আক্তার, রেখা রানী বিশ্বাস, শেখ দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

    সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, এনজিও রিকো’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ কামরুজ্জামান ফিরোজ এবং হিসাব রক্ষক ও সাবেক ইউপি সদস্য মোসাঃ নাহিদা সুলতানা শান্তা সাধারণ গ্রাহকদের নিকট থেকে সন্ধ্যানী লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড এবং এনজিও রিকো গত ২০১১ সাল থেকে গ্রাহকদের বিভিন্ন মেয়াদে ডিপিএস প্রকল্পের সঞ্চয়ী কিস্তির টাকা গ্রহণ করে। গ্রাহকদের মধ্যে ফুলতলার পায়গ্রাম কসবা এলাকার মুক্তিযোদ্ধা মজিদ দফাদারের পুত্র তরফদার মাসুম (৩৫) মাসিক কিস্তি ৫ হাজার ২শ’ ৬৯ টাকা হরে ১০ বছর মেয়াদি ডিপিএস, কাজী আনিছুর রহমানের স্ত্রী মিসেস সুলতানা রাজিয়া (৫৫) মাসে ২শ’ টাকা হারে ৭ বছর মেয়াদি, সাধন সরকারের স্ত্রী রিতা সরকার (৪৫) ১শ’ টাকা হারে ৩ বছর মেয়াদি, মজিদ তরফদারের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম (৫৫) প্রতি বছর ৫ হাজার ৪শ’ ৫০ টাকা হারে ৮ বছর মেয়াদি, শেখ নজরুল ইসলামের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৪৫) ১০ হাজার ৭শ’ টাকা হারে ৮ বছর মেয়াদি, রাজকুমার বিশ্বাসের স্ত্রী রেখা রানী বিশ্বাস (৬০) প্রতি মাসে ১শ’ টাকা হারে ৮ বছর মেয়াদি, মৃতঃ ওসমান শেখের পুত্র শেখ দেলোয়ার হোসেন (৪২) ২শ’ টাকা হারে ৬ বছর মেয়াদে টাকা জমা দেয়। এদিকে মেয়াদ পূর্তির পর গ্রাহকেরা তাদের পাওনা টাকা নাহিদা সুলতানা শান্তার কাছে দাবি করলে তিনি কামরুজ্জামান তালুকদার ওরফে ফিরোজ এর কাছে যেতে বলেন। আবার ফিরোজ এর কাছে গেলে তিনি সন্ধানী লাইফ ইন্সরেন্সের খুলনা শাখায় যেতে বলেন। অপরদিকে ফিরোজ ও শান্তার দেয়া জমাদানের রশিদ নিয়ে সন্ধানী লাইফ ইন্সরেন্সের খুলনা শাখায় গেলে গ্রাহকদের প্রথম কিস্তি ছাড়া বাকি সব রশিদ ভূয়া এবং এই ভূয়া রশিদের দায় তাদের নয় বলে জানিয়ে দেয়। ফলে গ্রাহকদের লক্ষ লক্ষ টাকা ভূয়া রশিদের মাধমে ফিরোজ শান্তা গং এর আত্মসাতের বিষয়টি প্রকাশ পায়। ইতোমধ্যে প্রতারণার শিকার অসহায় গ্রাহকেরা তাদের জমাকৃত টাকার দাবিতে ইউএনওসহ বিভিন্ন দপ্তরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

    সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ফিল্ড অফিসার ও রিকো’র হিসাব রক্ষক এবং সাবেক ইউপি সদস্য মোসাঃ নাহিদা সুলতানা শান্তা নিজেকে আওয়ামীলীগ নেত্রী দাবি করে বলেন, অভিযোগকারীরা টাকা জমা দিয়েছে এটা সত্য। তবে জমাকৃত টাকা যথাযথভাবে অফিসে জমা দেয়া হয়েছে। তারা জমা রশিদও নিয়েছে। দায় দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের।

    এনজিও রিকো’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সন্ধানী লাইফ ইন্সরেন্সের শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ কামরুজ্জামান ফিরোজ মুঠোফোনে গ্রাহকদের বিভিন্ন মেয়াদি ডিপিএস ও সঞ্চয়ের টাকা গ্রহণের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, রিকো এবং সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের জমাকৃত টাকা করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে আগামী জানুয়ারী থেকে গ্রাহকদের জমাকৃত টাকা পর্যায়ক্রমে ফেরত দেয়া হবে। গ্রাহকদের কোন ভূয়া রশিদ দেয়া হয়নি। হিসাব রক্ষক নাহিদা সুলতানা শান্তা নিজেই কৌশলে গ্রাহকদের হয়রানি এবং টাকা আত্মসাত করেছে। তার আত্মসাতকৃত টাকার দায় তাকেই বহন করতে হবে।

    পদোন্নতি পেয়ে বিদায় নিলেন ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি অফিসার মোফাকখারুল ইসলাম, যোগদান করলেন জাহিদুল করিম

    ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় ২ বছর ১মাস সফলভাবে কর্মকাল শেষ করে পদোন্নতি পেয়ে বিদায় নিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার মুহ: মোফাকখারুল ইসলাম। ২৫ তম বিসিএস (কৃষি) ক্যাডারের মেধাবী এই কর্মকর্তা ২০১৮ সালে ২ জুলাই ঝিনাইদহ সদর উপজেলার যোগদান করেছিলেন । এর আগে তিনি মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলা কৃষি অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় যোগদানের শুরু থেকেই কৃষি উন্নয়নের সুনিদিষ্ট পরিকল্পনা প্রনয়ন করে তিনি সেই মোতাবেক কাজ করতে থাকেন। কৃষির আধুনিক ও লাগসই প্রযুক্তি সম্প্রসারণ, নিরাপদ ফসল উৎপাদন এবং ফসলের সর্বাধুনিক জাত সম্প্রসারণের উপর গুরুত্বারোপ করেন। কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মৌসুমের শুরুতে কৃষক প্রশিক্ষণ ও কৃষি উপকরণ বিতরণ করেন। কৃষিতে আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার উৎসাহিত করার লক্ষ্যে ভূর্তকীমূল্যে রাইচ ট্রান্সপ্লান্টার, রিপার ও কম্বাইন্ড হার্ভেষ্টার যন্ত্র বিতরন করেন। কৃষিকে লাভজনক পেশায় পরিনত করতে তিনি গ্রামে গ্রামে কৃষকদের সাথে মতবিনিময় করতে উঠান বৈঠক, মাঠ দিবস ও প্রশিক্ষণের আয়োজন করেন। কৃষি উপকরন যেমন সার, বীজ, কীটনাশক ও কৃষি যন্ত্রপাতি সহজলভ্য করার ক্ষেত্রেও তিনি বিশেষ ভূমিকা রাখেন। ফলে তাঁর কর্মকালিন সময়ে সদর উপজেলায় কৃষিতে দৃশ্যমান ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। তাঁর কর্মতৎপরতার কারনে ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় শস্য নিবিড়তা এখন ২৬৩%। উপজেলার দানাদর ফসলের পাশাপাশি ফুল, গ্রীষ্মকালীন তরমুজ, ড্রাগন ফল, উন্নতমানের কুল, আম সহ বিভিন্ন ফলের বাগান বৃদ্ধি পেয়েছে ফলে খাদ্য উদ্বৃত্ত্ব এলাকা হিসেবে বিশেষ পরিচিতি লাভ করেছে।

    এক প্রতিক্রিয়ায় বিদায়ী উপজেলা কৃষি অফিসার মুহঃ মোফাকখারুল ইসলাম জানান ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মাটি উর্বর ও বন্যামুক্ত এলাকা হওয়ায় কৃষিতে উন্নয়নের সম্ভাবনা অবারিত। কৃষিকে লাভজনক ও সম্মানজনক পেশা উল্লেখ করে তিনি এক্ষেত্রে শিক্ষিত যুব সমাজকে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান। বিদায় লগ্নে তিনি সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ কামনা করেছেন। জেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে বিদায়ী উপজেলা কৃষি অফিসার মুহ: মোফাকখারুল ইসলাম সম্প্রতি অতিরিক্ত উপপরিচালক (পিপি) হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে রাজবাড়ী জেলায় পদায়ন পেয়েছেন। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হবেন জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ জাহিদুল করিম। বিদায়ী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃপাংশু শেখর বিশ্বাস, জেলা বীজ প্রত্যয়ণ অফিসার শংকর কুমার মজুমদার, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরষ্কার প্রাপ্ত জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার ড. খান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক বিজয় কৃষ্ণ হালদার, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (উদ্যান) মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, বিএফএ সভাপতি হাজী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার রোকনুজ্জামান, জুনাইদ হাবিবসহ কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ।

    শরণখোলায় চুরি প্রতিরোধে পুলিশের সভা সমাবেশ শুরু

    বাগেরহাটের শরণখোলায় গত তিন মাসে শতাধিক চুরির ঘটনার সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসন সক্রিয় হয়ে উঠেছে। মাদকের ব্যবহার ও মোবাইল আসক্তির প্রতিরোধে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি ও কমিউনিটি পেট্রলিং জোরদার করতে সভা সমাবেশ শুরু করেছে শরণখোলা থানা পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার লাকুড়তলা বাজারে এ সংক্রান্ত এক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

    উপজেলা আওয়ামী-যুবলীগের আহায়ক ও রায়েন্দা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তৃতা করেন, শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ এস.কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, ইউপি সদস্য মোঃ শাহজাহান বাদল জোমাদ্দার, মোঃ কাওসার আকন, রেজাউল কবির খান ও ওমর জোমাদ্দার প্রমুখ। বক্তারা যার যার সন্তানদের মাদক ও ইন্টারনেট আসক্তির ব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতন থাকার আহবান জানান এবং কমিউনিটি পেট্রলিং এর ব্যাপারে জনগনের সহযোগীতা কামনা করেন। শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ এস. কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, সাম্প্রতিক চুরির ঘটনায় উপজেলার মুল মুল বাজারে সভা, সমাবেশ করে জনসচেতনতা সৃষ্টি ও কমিউনিটি পেট্রলিং জোরদার করা হবে।

    সুদ কারবারীদের অত্যাচার-নির্যাতন: মায়ের চিকিৎসা’র টাকা নিয়ে শিব শংকর আজ ভিটেমাটি হারা

    মা খুব অসুস্থ। তাকে চিকিৎসা করাতে হবে। কিন্তু পকেটে টাকা নেই। টাকার জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কেউ টাকা ধার দেয়নি। বাধ্য হয়ে এক সুদ কারবারীর দারস্থ হলাম। সপ্তাহে সাড়ে তিন হাজার টাকা সুদে ৩৫ হাজার টাকা নিলাম। কোন উপায় নেই। মায়ের বড় সন্তান। তাই জড়িয়ে গেলাম কারেন্ট সুদ নামের রাহুগ্রাসে। সেই ৩৫ হাজার টাকার সুদ একলাখ ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। ওই টাকা দিতে আরো ৪-৫ জনের কাছ থেকে সুদে টাকা নিয়েছি। তাদের টাকা পরিশোধ করতে ভিটেমাটি সব হারিয়ে আজ আমি পথের ফকির। বউ, ছেলে-মেয়ে নিয়ে পরের আশ্রয়ে আছি।’ রবিবার দুপুরে কান্নাজড়িতকণ্ঠে এমনটাই জানালেন সুদের দায়ে সহায়-সম্বলসহ সব হারানো শিব শংকর বিশ্বাস (৪১)।

    উপজেলার সদর ইউনিয়নের কুরমনি গ্রামের শীতল বিশ্বাসের ছেলে কৃষক শিব শংকর আরো জানান, কুরমনি মৌজায় তাদের ১৫ শতক বসতভিটা ও ৬৪ শতক চাষের জমি ছিল। মা, ছোট ভাই দিপঙ্কর ও স্ত্রী, ছেলে-মেয়েকে নিয়ে সুখ-শান্তিতে বসবাস করছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করে মায়ের অসুস্থতার কারণে সুদ কারবারীদের জালে জড়িয়ে পড়েন। এরপর থেকে জীবনে নেমে আসে ঘোর অমাবশ্যা। শুরু হয় সুদখোরদের নির্মম অত্যাচার-নির্যাতন। বাধ্য হয়ে একে একে ভিটেমাটি জমি বিক্রি করে সুদের টাকা পরিশোধ করেন। তাতেই সব হারিয়ে আজ পথের ফকির। বর্তমানে নবম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ে শান্তা বিশ্বাস ও চতুর্থ শ্রেণীতে অনির্বাণ বিশ্বাস এবং স্ত্রীকে নিয়ে চরবানিয়ারী ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন।

    তিনি আরো জানান, সুদ কারবারিদের নির্যাতনে চিতলমারীর কয়েক’শ পরিবার ভিটেমাটি, জায়গা-জমি ও গাড়ি-বাড়ি হারিয়ে আজ নিঃস্ব। এছাড়া সুদে কারবারিদের অত্যাচার-নির্যাতন সইতে না পেরে বাপ-দাদার ভিটে-মাটি ফেলে বহু পরিবার পালিয়েছে। এখানে সুদের দেনার চাপ সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেন কালশিরা গ্রামের ভাস্কার্য শিল্পী রাম প্রসাদ মালাকার, রুইয়ারকুল গ্রামের সনজিত ব্রু , সুরশাইল গ্রামের মাওলানা হারুন ও সর্বশেষ গত ২০ জুলাই সুদখোরদের নির্মম অত্যাচার-নির্যাতন সইতে না পেরে স্কুল শিক্ষিকা হাসিকনা বিশ্বাস (৩৮) আত্মহত্যা করেছেন।

    এ ব্যাপারে চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক জানান, মাদক ও সুদ কারবারীদের বিরুদ্ধে চিতলমারী থানা পুলিশ জিহাদ ঘোষণা করেছে। সুদ ও মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যে কয়েকজন সুদ কারকারীকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। চিতলমারী থেকে সুদ ও মাদক উচ্ছেদ করা হবে। তবে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মারুফুল আলম জানান, মাদক ও অবৈধ সুদ কারবারীদের বিরুদ্ধে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে। এছাড়া অবৈধ ভাবে অর্থলগ্নীকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়া চলছে।

    সাতক্ষীরায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগে স্বামী আটক

    যৌতুকের দাবিতে স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা কাজল রাণী সরকারকে নির্যাতনের অভিযোগে অগ্রণী ব্যাংক সাতক্ষীরা শাখার অফিসার রঞ্জন কুমার বৈদ্যকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে, নির্যাতনের ফলে গুরুতর আহত শিমুলবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা কাজল রাণী সরকারকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে হাসপাতালের বেডে শুয়ে অসহ্য যন্ত্রণায় ছটফট করছেন শিক্ষিকা কাজল রাণী সরকার। শনিবার দুপুরে শহরের সুলতানপুর শাহপাড়ায় এ ঘটনাটি ঘটে।

    সাতক্ষীরা সদর থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১১ সালের ০৭ মার্চ হিন্দু শাস্ত্রীয় মতে দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া ইউনিয়নের শশাডাঙ্গা গ্রামের নিতাই বৈদ্য’র ছেলে রঞ্জন কুমার বৈদ্য’র সাথে ময়মনসিংহ জেলার পরিতোষ সরকারের মেয়ে কাজল রাণী সরকারের বিবাহ হয়। বিবাহের সময় নগদ পাঁচ লক্ষ টাকা, ১.৫ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন, স্বর্ণের হাতের রুলি, ২টি আংটি ও সাংসারিক যাবতীয় আসবাবপত্রসহ চার লক্ষ টাকার জিনিসপত্র গ্রহণ করেন রঞ্জন কুমার বৈদ্য’র পরিবার। বিবাহের পর তাদের ঘর আলোকিত করে আসে একটি কন্যা সন্তান। যার নাম রুদ্রা (৮)। সন্তান জন্ম গ্রহণের পরপরই কাজল রাণী সরকারের শ^াশুড়ি সবিতা বৈদ্য’র কু-পরামর্শে রঞ্জন কুমার বৈদ্য তার স্ত্রীর কাছে পঁচিশ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে শারীরিক নির্যাতন শুরু করে। সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে শত নির্যাতন সহ্য করেও এ পর্যন্ত রঞ্জন কুমার বৈদ্যকে বিশ লক্ষ টাকা যৌতুকও দেওয়া হয়। কিন্তু এতেও ক্ষ্যান্ত না হয়ে আরও যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে নির্যাতন করতে থাকে রঞ্জন। একপর্যায়ে বিশেষ টাকার প্রয়োজন উল্লেখ করে স্ত্রীর কাছে পাঁচ লক্ষ টাকা চায় রঞ্জন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় রঞ্জন উত্তেজিত হয়ে শনিবার দুপুরে শহরের সুলতানপুর শাহপাড়ার বাসায় স্ত্রী কাজল রাণী সরকারের তলপেটে স্বজোরে লাথি মারে। এতে সে ঘরের মেঝেতে পড়ে যায়। এতে তার যৌনাঙ্গ দিয়া রক্ত ক্ষরণ হতে থাকে। এ সময় তার শ^াশুড়ি এসে তিনিও বউমাকে চড়, কিল, লাথি মারেন। এক পর্যায়ে স্বামী ও শ^াশুড়ি মিলে গামছা নিয়ে কাজলের গলায় পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় চিৎকার ও ধস্তাধস্তির শব্দ পেয়ে স্থানীয়রা এসে কাজলকে উদ্ধার করেন। পরবর্তীতে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

    এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান জানান, যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে নির্যাতনের লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে নির্যাতনকারী ব্যাংক কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার বৈদ্যকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    রামপালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

    রামপালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন উপলক্ষে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ১০টায় উপজেলা সভা কক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাধন কুমার বিশ্বাস এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সেখ মোয়াজ্জেম হোসেন, অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নুরুল হক লিপন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসাঃ হোসনেয়ারা মিলি, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ মোজাফ্ফার হোসেন, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জয়দেন কুমার মন্ডল, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ রবিউল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক মনির আহম্মেদ প্রিন্স, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শেখ সাদী, বিভিন্ন দপ্তরের সরকারী কর্মকর্তা, শিক্ষক বৃন্দ, বিভিন্ন এনজিও কর্মকর্তা ও সুধীবৃন্দ।

    খুলনা মহানগর ছাত্রদলের গভীর শোক প্রকাশ

    বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল খুলনা মহানগর শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফা সুমন এর পিতা মোঃ রেজাউল করিম (৫০) সরকারি আবু নাসের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল আনুমানিক বিকাল ৫:০০ ঘটিকার সময় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ছাত্রদল নেতার পিতার মৃত্যুতে গভীর শোক ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা মহানগর ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শরিফুল ইসলাম বাবু, সিনিঃ সহ সভাপতি তারেক হাবিবুল্লাহ, রিয়াজ শাহেদ, ইফতেখার জামান নবীন, শামীম আশরাফ, শরিফুল ইসলাম সাগর, আল আমিন তালুকদার প্রিন্স, আব্দুল্লাহ কিমিয়া সাদাত, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মল্লিক জাহিদুল ইসলাম, বেল্লাল হোসেন, রবিউল আলম, মোঃ ফিরোজ আহমেদ, হুমায়ুন আজিজ ডাবলু, সৈয়দ আব্দুল্লাহ, আশিকুর রহমান আশিক, মেহেদী হাসান, সোহাগ আহমেদ, রশিউর রহমান রুবেল, আশিকুর রহমান অনি, ইশতিয়াক আহমেদ ইস্তি, শেখ মসফিকুর হাসান অভি, আরিফুর রহমান আরিফ, মাহিম আহমেদ রুবেল, মামুনুর রহমান, রাজিবুল আলম বাপ্পী, উজ্জ্বল হোসেন সুমন, মাহমুদুল হাসান মুন্না, আব্দুল আহাদ শাহীন, মাসুদ রানা, রাজু আহমেদ রাজ, আরিফুর ইসলাম, শরীফ চৌধুরী সোহেল, হৃদয় হোসেন রিপন, ফারুক হোসেন, সামুরাই হোসেন মাসুদ, মিজানুর রহমান শাকিল, শামীম রেজা, ইবাদুল ইসলাম, আশিক মাহমুদ নকিব, জিল্লুর রহমান, মোঃ জুয়েল রহমান, আল মুহাইমিন রেজা, মোঃ নাজিম উদ্দিন, মশিউর রহমান তুষার, রাজু হাওলাদার জুম্মান, তুহিন ইসলাম, শেখ আল মামুন, জিয়াউর রহমান জুয়েল, এবাদত হোসেন, ইয়াসিন আরাফাত, নাজমুল হোসেন, রাজু আহমেদ, আবু সাহালে শিমুল, মাজহারুল ইসলাম রাসেল, রাব্বি চৌধুরী, আকরাম হোসেন, ইয়াসিন শেখ, রাসেল ফারাজি, তরিকুল ইসলাম, শাহাবুদ্দীন শাওন, ইজবুর রহমান ইমুল, আল আমিন হোসেন, মুস্তাহিদুল হক দিহান, মুন্সি হাসিবুর রহমান প্রমুখ।

    কয়রায় দিন ব্যাপী সেনাবাহিনীর বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা

    মুজিব জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর যশোর ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের উদ্যোগে কয়রার বানভাসি মানুষের মাঝে বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এ সময় চিকিৎসা সেবা গ্রহন করা রোগীদের মাঝে ফ্রি ওষুধ দেওয়া হয়। সকাল ১০ টায় মদিনাবাদ মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এ চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন যশোর-৫৫ পদাতিক ডিভিশনের-৯ বেংগল লেন্সারের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ তানভীর আলম। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সেনা সদস্য সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। দিন ব্যাপী শত শত অসহায় মানুষ এ সেবা গ্রহন করেন। ৩ জন পুরুষ ও ২ জন নারী চিকিৎসক চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। সেনা বাহিনী কর্তৃক অবহেলিত জনপদ কয়রায় এ ধরনের মহতী উদ্যোগ গ্রহন এলাকাবাসি সাধুবাদ জানিয়েছে। কয়রা সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাঃ হুমায়ুন কবির বলেন,আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত কয়রার অসহায় মানুষ এ চিকিৎসা সেবা গ্রহন করে উপকৃত হয়েছে। তা ছাড়া বিনামুল্যে চিকিৎসা সেবা পাওয়ার পাশাপাশি ফ্রি ওষুধ পেয়ে অনেকেই ব্যাপক খুশি বলে তিনি মন্তব্য করেন।

    ইন্দুরকানীতে শেয়ারিং সভা অনুষ্ঠিত

    ইন্দুরকানীতে নারীর প্রতি সহিংসতা এবং বৈষম্য থেকে রক্ষা ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে নাগরিক সংগঠন সমূহকে সাথে নিয়ে একযোগে কাজ করার লক্ষ্যে রোববার রুপান্তর উদ্যোগে প্রেস কাবে সভাকক্ষে উপজেলা প্লাটফর্ম সদস্যদের নিয়ে শেয়ারিং সভা অনুষ্ঠিত হয় । উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্লাটফর্মে সভাপতি দিলরুবা নাহার মিলন এর সভাপতিত্বে এ শেয়ারিং সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প সমন্বয়কারী,রুপান্তর অসীম আনন্দ দাস, রুপসী বাংলা উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ও ইন্দুরকানী প্রেসকাবের সভাপতিমোঃ আজাদ হোসেন বাচ্চু, রুপান্তর প্রকল্প কর্মকর্তা শফিকুল আজম, উপজেলা প্লাটফর্মের পরিচালকবৃন্দ ।

    যশোরে করোনা আক্রান্ত নারীর মৃত্যু

    যশোরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নুরুন্নাহার (৪৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত নুরুন্নাহার যশোর শহরের চোরমারা দিঘিরপাড় এলাকায় বাসিন্দা। শনিবার রাতে যশোর বক্ষব্যাধি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বক্ষব্যাধি হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. পলাশকুমার পাল। এই নিয়ে যশোরে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গেল ৫ আগস্ট তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। তখন থেকে তিনি করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শনিবার রাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

    এদিকে, স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, শনিবার রাত পর্যন্ত যশোর জেলার আটটি উপজেলা থেকে মোট দশ হাজার ২০০ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে আট হাজার ৮৪৮ টি নমুনা। নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে জমা আছে এক হাজার ৩৫২টি। তবে এর মধ্যে কতটি নমুনা নষ্ট হয়ে গেছে, সে হিসেব নেই স্বাস্থ্য বিভাগের কাছে। যে পদ্ধতিতে নমুনা সংগ্রহ, পরিবহন ও সংরক্ষণ হয়, তা বিশ্বমানের নয়। এতে অনেক নমুনা নষ্ট হয়ে যায় বলে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা প্রথম থেকেই বলে আসছেন।

    যবিপ্রবি ল্যাবে আরো ৯১ জন করোনা পজিটিভ

    যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে আরো ৯১ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ল্যাবে মোট ২৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৯১ জন পজিটিভ এবং বাকি ১৫৬ জন নেগেটিভ।

    বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, যবিপ্রবি অনুজীবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও জিনোম সেন্টার পরীক্ষণ দলের সদস্য ড: তানভীর ইসলাম। আক্রান্ত ৯১ জনের মধ্যে যশোরে ১৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৬ জন, মাগুরার ৩৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জন ও নড়াইলে ৪৩ টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৪ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন।

    শিরোমনি কেডিএ সুপার মার্কেটে ময়লার স্তুপ এবং গাড়ি পাকিং ব্যবস্থা না থাকায় ক্রেতাদের ক্ষোভ

    শিরোমনি কেডিএ সুপার মার্কেটের চারপাশে ও ভিতরে ময়লার স্তুপ এবং মার্কেটে মেইন গেটের সামনে গাড়ী পাকিং সহ মার্কেটের চতুরপাশে^ অবৈধ ভাবে দোকান ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। অবৈধভাবে দোকান ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠায় গাড়ী পাকিং এর কোন জায়গা না থাকায় দিন দিন কমতে শুরু করেছে ক্রেতা সাধারণ। এতে করে মার্কেটের ব্যবসায়ীদের মধ্যে এক রকমের চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে । মার্কেটের ভিতরে দোকানের সামনে অনেক ক্রেতা মটর সাইকেল, বাইসাইকেল রাখাতে চরম বিশৃংখলার সৃষ্টি হয় । অনেক সময় ক্রেতাদের সাথে বাকবিতন্ডা হয় দোকানের সামনে গাড়ী রাখাতে । গৃহবধু রেবেকা আকতার বলেন ঈদের সময় মার্কেটে গিয়েছিলাম বাচ্চার নতুন কাপড় সহ প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র কেনাকাটা করতে, কিন্তু মার্কেটের ভিতর চারিদিকে ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধে দম বন্ধ হয়ে আসছিল। মার্কেটের ব্যবসায়ীরা বলেন দিন দিন মার্কেটের ভাড়া বাড়লেও টয়লেট পরিস্কারের এবং মার্কেটের ঝাড়– দেয়ার কোন ব্যবস্থা নাই। ব্যবসায়ীরা আরোও বলেন প্রতিনিয়ত ভাড়া বাড়লেও আধুনিকায়ন করণের কোন উদ্যোগ কেডিএ কর্তৃপক্ষের নাই । এছাড়া কেডিএর কাঁচা বাজারের একাধিক ব্যসায়ীরা বলেন মার্কেটের বিভিন্ন সমস্যার কারণে দিন দিন ক্রেতা শুন্য হতে চলেছে। পরিস্কার পরিচ্ছন্ন না করায় ময়লার গন্ধে ক্রেতা শুন্য হয়ে পড়েছে। এব্যপারে কেডিএ সুপার মার্কেটের সুপারিনটেনডেন্ট বুলবুল এর নিকট মোবাইল করলে তিনি মোবাইল রিসিভ করেননি, পরে কেডিএ মার্কেটের কালেকটর মাহাবুবুর রহমান এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন এগুলো আমার দেখার বিষয় না। মার্কেটের ব্যবসায়ীরা অতিদ্রুত কেডিএ কতৃপক্ষের স্বরেজমিনে তদন্তপূর্বক আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

    পাইকগাছায় অনলাইনে পাঠদান পরিকল্পনা বিষয়ে শিক্ষকদের সাথে ইউএনও’র মতবিনিময়

    পাইকগাছায় করোনাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদেরকে অনলাইনে পাঠদান পরিকল্পনা বিষয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.বি.এম. খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) লিপিকা ঢালী, ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দীন ফিরোজ বুলু, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জয়নাল আবদীন, উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ (অবঃ) আবুল কালাম আজাদ, সম্পাদক হরেকৃষ্ণ দাশ, অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মিহির বরণ মন্ডল, অজিত কুমার সরকার, নারায়ন চন্দ্র শিকারী, সরদার বদিউজ্জামান, অঞ্জলী রাণী শীল, রহিমা আক্তার শম্পা সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ।

    উপ-সচিব পরিচয়ে এপিবিএন সিওকে হুমকি : গ্রেফতার প্রতারক হামিমের আদালতে স্বীকারোক্তি

    নগরীর খানজাহান আলি থানাধিন শিরোমনি ৩, এপিবিএন এর কমা-িং অফিসার (সিও) কে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব পরিচয়ে হুমকি দেয়ার মামলায় গ্রেফতার প্রতারক মো. আবু ফুয়াদ হামিম (২৫) আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

    গতকাল রবিবার তার দেয়া ফৌজদারী কার্যবিধির ১৬৪ ধারার জবানবন্দি মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. আমিরুল ইসলাম রেকর্ড করেছেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খানজাহান আলি থানার এসআই মো. হাসানুর রহমান আসামিকে আদালতে হাজির করেন। হামিম আড়ংঘাটা থানাধিন রায়েরমহল পুর্বপাড়ার মৃত. আবু দানেশ মোল্লার ছেলে।

    মামলার বিবরণে জানা যায়, নগরীর শিরোমনিস্থ ৩ এপিবিএন-এ কর্মরত কনস্টোবল মো. ওবাইদুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন স্ত্রী মোসা. অন্তি আক্তার। ৮আগস্ট অভিযোগের স্বাক্ষ্যর দিন ধার্য থাকায় অভিযুক্ত ওবাইদুরের সঙ্গে অফিসে আসেন মো. আবু ফুয়াদ হামিম। স্বাক্ষ্যগ্রহণ চলাকালে হামিম বাইরে এসে সিওকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব পরিচয়ে ওবাইদুরের পক্ষে কাজ করতে বলেন। আর কাজ না করলে মন্ত্রণালয়ে অভিযোগসহ তাকে ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করেন। তাৎক্ষণিকভাবে হামিমের মোবাইল ফোন ট্যাকিং করে তাকে এপিবিএন-এর মেইন গেটের পাশ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এঘটনায় এপিবিএন-এর পরিদর্শক মো. মিজানুর রহমান বাদী হয়ে হামিমের বিরুদ্ধে খানজাহান আলি থানায় ১৭০/৪১৯/৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করেন যার নং- ৫।

    অস্ত্র মামলায় রিমা- শেষে জাফরিন জেলহাজতে

    নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন আটরা গিলাতলা ইউনিয়নের মশিয়ালির ট্রিপল মার্ডারের ১৭ দিন পর জাফরিনের স্বীকারোক্তি মোতাবেক অস্ত্র ও গুলি উদ্ধারের মামলায় আসামি মো. জাফরিন শেখ (৩২) কে ৩দিনের রিমা- শেষে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।

    গতকাল রবিবার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তরিকুল ইসলাম এ আদেশ প্রদান করেছেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস ৩দিনের রিমা- শেষে জাফরিনকে আদালতে হাজির করেন। গত ৪ আগস্ট আদালতে ৫দিনের রিমা-ের আবেদন করলে তার ৩দিনের রিমা- মঞ্জুর হয় । ৩ আগস্ট নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. এনামুল হক বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় মামলাটি দায়ের করেন যার নং-১। মামলার আসামিরা হলেন মশিয়ালী গ্রামের মৃত. হাসান আলি শেখের ৩ছেলে মো. জাফরিন শেখ (৩২), মো. মিল্টন শেখ (৪৫) ও মো. জাকারিয়া শেখ (৩৭)।

    মামলার বিবরণে জানা যায়, আটককৃত আসামি জাফরিনের স্বীকারোক্তি মোতাবেক কেএমপি ডিবি পুলিশের একটি টিম ২আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযান চালিয়ে মশিয়ালি গ্রামের শেখ বাড়ি কবরস্থানে ৩ রাউন্ড ফায়ার্ড কার্তুজ এবং সরদার বাড়ীর পিছনের ডোবা থেকে ১টি প্লাষ্টিকের বাজার করার ব্যাগের মধ্যে থেকে পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় ২টি দেশিয় তৈরি ওয়ান স্যুটার গান ও ২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করে। এঘটনায় নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. এনামুল হক বাদী হয়ে খানজাহান আলী থানায় ৩ভাইয়ের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলাটি দায়ের করেন যার নং-১।

    ৩নংনৈহাটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি আলোচনা সভা

    রূপসায় নৈহাটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলে প্রস্তুতিমূলক আলোচনা সভা গত ৯ আগষ্ট রবিবার বিকাল ৪ ঘটিকায় রূপসা কলেজ হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রূপসা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ কামাল উদ্দিন বাদশা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিষ্টার বাংলাদেশ খ্যাত বিশিষ্ট ক্রীড়াবিদ আজাদ আবুল কালাম। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাকের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেন বুলবুলের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও অধ্যক্ষ ফ.ম. আঃ সালাম,সহ-সভাপতি মোল্লা আরিফুর রহমান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ শ্যামল দাস, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল,সাংগঠনিক সম্পাদক এম ডি রকিব, প্রচার সম্পাদক আব্দুর গফুর খান, দপ্তর সম্পাদক আক্তার ফারুক, কোষাধ্যক সেলিম মোল্লা, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা নাসির উদ্দিন সজল, প্রভাষক অহিদুজ্জামান , খুলনা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাংগঠনিক ও রূপসা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি সাংবাদিক বেনজীর হোসেন , জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রীনা পারভীন, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রুহুল আমিন রবি, উপজেলা কৃষকলীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল মান্নান শেখ, ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক বাদশা মিয়া, আব্দুর গফ্ফার, শেখ ফরিদ, সাংবাদিক ফ,ম, আইয়ুব আলি, মামুন শেখ, ওলিয়ার রহমান, রবি মিনা,বাবর আলি, নাজির শেখ, সিদ্দিকুর রহমান, সাগর শেখ, মহিউদ্দিন মানিক, তুষার দাস প্রমূখ।

    শরণখোলা সরকারী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম মামুনের মৃত্যু

    বাগেরহাটের শরণখোলা সরকারী কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও শরণখোলা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আমিনুল ইসলাম মামুন (৫৮) রবিবার সন্ধ্যা ৭টায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজেঊন। তিনি শরণখোলা উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মফিজুল হকের কনিষ্ঠ পুত্র। মরহুমের ভাই শরণখোলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্জ্ব এম সাইফুল ইসলাম খোকন জানান, গত দুই দিন পূর্বে ব্রেন স্ট্রোক জনিত কারনে অসুস্থ্য হয়ে খুলনা শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ১পূত্র ১ কন্যা সহ অসংখ্য গুনাগ্রহী ও আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। শরণখোলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আলহাজ্জ আজমল হোসেন মুক্তা, রায়েন্দা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ রুমী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার ও আওয়ামীলীগ নেতা আবু জাফর জব্বার, উপজেলা আওয়ামী-যুবলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান মিলন, মুক্তিযোদ্ধার সন্তাান ঐক্য প্লাটফর্মের মূখপাত্র শামীম বিশ্বাস বীরপূত্র আমিনুল ইসলাম মামুনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

    মণিরামপুরে বিদ্যুৎস্পর্শে বৃদ্ধার মৃত্যু

    যশোরের মণিরামপুরে বিদ্যুৎস্পর্শে সামছুন্নাহার (৬২) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। রোববার (৯ আগষ্ট) ভোরে উপজেলার গৌরিপুর গ্রামে এঘটনা ঘটে। তিনি ওই গ্রামের ফয়েজুর খাঁর স্ত্রী। রাজগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই খালিদ হাসান বলেন, রোববার ভোরে সামছুন্নার নামাজ পড়তে ওঠেন। তখন বিদ্যুতের ত্রুটিপূর্ণ্য সুইচে হাত লেগে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যান তিনি। এই ঘটনায় মণিরামপুর থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। স্বজনদের অনুরোধে ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

    শরণখোলায় উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটি গঠন

    বাগেরহাটের শরণখোলায় উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সভাপতি এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে সদস্য সচিব করে ২৩ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়। গঠিত কমিটিতে উপজেলা চেয়ারম্যানকে উপদেষ্টা হিসাবে রাখা হয়েছে। রবিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ কমিটি গঠন করা হয়। এর আগে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ-২০২০ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ ফরিদা ইয়াসমিন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা বিনয় কৃষ্ণ রায়, রায়েন্দা ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন, সাউথখালী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোজ্জাম্মেল হোসেন, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মামুন অর রশিদ, প্রাউভেট সেক্টর স্পেশালিষ্ট আশ্রাফ উদ্দিন, জাগ্রত যুব সংঘের উপজেলা কো-অর্ডিনেটর ফরিদুজ্জামান, রূপান্তরের সুমাইয়া পারভিন প্রমুখ।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১