• শিরোনাম

    দৈনিক খুলনা

    দি গাংচিল ডেস্ক | ১৩ আগস্ট ২০২০


    দৈনিক খুলনা

    ডুমুরিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় মা-ছেলে জখম

    ডুমুরিয়ায় জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূ খালেদা বেগম (৪৫) ও তার ছেলে কলেজ ছাত্র ওসমান গণি (২০)আহত হয়েছে। আহত কলেজ ছাত্র খুলনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার মাগুরাঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতদের পরিবার সূত্রে জানা যায়,উপজেলার মাগুরাঘোনা এলাকার আলী মোর্ত্তজার সাথে একই এলাকার জাকির সরদারের জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। তারই জের ধরে ঘটনার দিন বিকেলে দখলীয় ওই জমিতে কাজ করতে থাকলে প্রতিপক্ষ জাকির সরদারের নেতৃত্বে আলামিন সরদার,তারমিন সরদার,আখির সরদারসহ ৭/৮জন দা,লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।এতে কলেজ ছাত্র ওসমান গণি রক্তাক্ত জখম ও তার মা খালেদা বেগম আহত হয়।পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ডুমুরিয়া হাসপাতালে নিলে ওসমান গণিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনায় প্রেরন করা হয়।অপরদিকে প্রতিপক্ষও আহত বলে দাবি করেছেন।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল।


    নগরীতে মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত

    মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ৫২৪৬তম শুভ আবির্ভাব জন্মাষ্টমী তিথি পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে নগরীর বাইতিপাড়ার জটাধারী বেদ আশ্রমের প্রধান অফিসে এ জন্মাষ্টমী তিথি পালিত হয়। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকলের মঙ্গলার্থে দুষ্টের দমন সৃষ্টির পালন এবং সাধুগণকে রক্ষাসহ ধর্মকে সংস্থাপনের জন্য তিনি এই ধরায় আর্বিভুত হয়েছিলেন। প্রভাতে মাঙ্গলিক ক্রিয়া, মধ্যহ্নে মহানাম সংকীতর্ন, রাতে পুজা, গতকাল বুধবার প্রসাদ বিতরণ করা হয়।


    আশ্রমের সেবাইত সমেন দেবনাথ সরকারের নির্দেশনা মেনে যত সম্ভব সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মন্দিরে অবস্থান নেয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানান। পাশাপশি কোভিড-১৯ এর কারণে মন্দিরে অযথা ভীড় না করে প্রত্যেকে তাদের নিজ নিজ ঘরে ঘরে মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের পূজা করার জন্য বিনীত অনুরোধ করেন। যে ভাবে গোপীরা সংগোপনে তাদের হৃদয় মন্দিরে কৃষ্ণ পূজা করে জীবন ধন্য করেছেন সে ভাবে সবার মঙ্গল কামনায় তিনি বলেন, “ বিশ্ব মহাবিশ্ব থেকে ক্ষুদ্রাদি ক্ষুদ্র তৃণ পর্যন্ত রোগ মুক্ত হোক আমার এই প্রার্থনায়”। মনের ব্যাকুলতা দিয়ে ঈশ্বরকে যাহা প্রদান করা হয় তাহা তিনি ভক্তের মাধ্যমে গ্রহণ করে। সনাতন ধর্মের ভক্তরা এই বিশ্বাস করেন। দিনটি হিন্দু সম্প্রদায়ের (সনাতন) ধর্মালম্বীরা ভাবগম্ভীর্য সহকারে পালিত হয়। মন্দিরের বাহির অভ্যান্তরে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূজা প্রার্থনাসহ যাবতীয় ক্রিয়া সুসম্পন্ন করেন উমা দেবনাথ, সৌমিত, সোমা, মনিষা, বিশ্বজিৎ,

    সৌম্যজিৎ, সরজিৎ, সুকুমার, মিলন, আশুতোষ, বিপ্লব, কাকুলী, জয়া, বীনা পানি দেবী প্রমুখ।


    নগরীতে ভোক্তা অধিকারের বাজার তদারকিতে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

    নগরীর হাজী মহসিন রোড ও গ্লাসকো মোড়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের খুলনা জেলা কার্যালয়ের বাজার তদারকিতে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শিকদার শাহীনুর আলম জরিমানার আদেশ প্রদান করেছেন।

    জেলা কার্যালয় সুত্রে জানা যায়, এই অভিযানে নগরীর হাজী মহসিন রোডে তদারকি করে নির্ধারিত মূল্য অপেক্ষা অধিক মূল্যে (২/৩ গুন বেশি) ডেটল/স্যাভলন/স্যানিটাইজার বিক্রয়ের দায়ে একুশে টেলিকমকে ৫হাজার টাকা, গ্লাসকো মোড়ে মূল্যবিহীন ও মেয়াদ উত্তীর্ণ বিদেশী কসমেটিকস রাখায় বাপ্পি স্টোরকে ৪হাজার ও নোংরা পরিবেশ ও বাসী খাদ্য ফ্রিজে সংরক্ষণ করায় দেশ বন্ধু ডেয়ারিকে এক হাজার টাকা প্রশাসনিক ব্যবস্থায় জরিমানা করা হয়। অভিযানে সহযোগিতা করেন ৩ এপিবিএন ও ক্যাব প্রতিনিধি। জনস্বার্থে এ অভিযান চলমান থাকবে

    রিকসা শ্রমিকদের দাবীতে মানববন্ধন ও পুলিশ কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি

    রিকসা, ব্যাটারি রিকসা ও ইজিবাইক চালক সংগ্রাম পরিষদ, খুলনা জেলা শাখা’র উদ্যোগে আজ ১৩ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত রিকসা শ্রমিকদের দাবীতে মানববন্ধন ও পুলিশ কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি পালিত করা হবে। উক্ত কর্মসূচি সফল করার জন্য সংগঠনের সকলকে অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ জানান নেতৃবৃন্দ।

    পুটিখালী ইউনিয়ন উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির প্রধান উপদেষ্টার সুস্থতা কামনা

    পুটিখালী ইউনিয়ন উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির প্রধান উপদেষ্টা অ্যাড. মিজানুর রহমান শিকদারের সুস্থতা কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন ৩নং পুটিখালী ইউনিয়ন উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন, উপদেষ্টা সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিলটন, মো. হাসিবুর রহমান রিজন, মো. সোহাগ সিকদার, মাস্টার মো. আতিয়ার রহমান, আসাদুজ্জামান মিলন, মো. রবিউল ইসলাম শিমুল, মো. আসাদুজ্জামান ইমন, মো. রফিকুল ইসলাম গাজি (স্বপন), মো. সাইফুল ইসলাম সোহাগ, মাস্টার মো. জাহিদুর রহমান, আহবায়ক এইচ এম ইকবাল হোসেন, সদস্য সচিব সাইফুল ইসলাম লেলিন, সদস্য যথাক্রমে ইমতিয়াজ মাহমুদ লিটন, মো. মেহেদী হাসান সোহেল হাওলাদার, মো. হাসিবুর রহমান, মো. আতিয়ার সজল, এইচ এম জাহিদ মাহমুদ, মাস্টার আল আমিন শিকদার, মো. রুবেল ইসলাম, শেখ জসিম উদ্দীন, মো. মাকসুদুর রহমান রিশাদ, এস এম মিজানুর রহমান, মাহমুদ হাসান শান্ত, মো. শাহীন হাওলাদার, মো. আকরাম আরমান, মো. হাফিজুল শেখ, মো. মিলন শেখ, মো. জাহিদ শেখ প্রমূখ।

    ডুমুরিয়ায় ২০টি গরু নিয়ে ৪ প্রতারক উধাও

    ডুমুরিয়ায় গরু ব্যবসার নামে প্রতারিত হয়ে প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়েছে ৪ প্রতারক। উপজেলার বাগদাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় ওই প্রতারকদের বিবাদী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,উপজেলার সাহস ইউনিয়নের বাগদাড়ী এলাকার গরু ব্যবসায়ী মহিত মোড়ল,অতিয়ার শেখ ও মঞ্জু সরদার ফুলতলা উপজেলার ছাতিয়ানি গ্রামস্থ জিয়া মোল্যা,জোবায়ের হোসেন,জমির খাঁ ও সরোয়ার মোল্যার সাথে যৌথ ভাবে গরুর ব্যবসা করে আসছে। তারই জের ধরে গত ৩০ জুলাই ভুক্তভোগি মহিত,আতিয়ার ও মঞ্জু নিজ এলাকা থেকে প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা মূল্যের ২০টি এঁড়ে গরু বাকিতে ক্রয় করে গরুগুলি বিক্রির জন্য কথিত ব্যবসায়ী অংশীদার জিয়া মোল্যা,জোবায়ের হোসেন,জমির খাঁ ও সরোয়ার মোল্যার হাতে দেয়।কথিত ওই ব্যবসায়ীরা প্রতারনার পথ অবলম্ভন করে গরুগুলো নিয়ে উধাও।এতে সর্বশান্ত হয়ে পথে বসেছে ভুক্তভোগি পরিবার গুলি।ঘটনা প্রসঙ্গে অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন জানান,অভিযুক্ত প্রতারকদের খুঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

    কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতিসহ দুই জনের মৃত্যু

    কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি বদরুজ্জামানসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে তারা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

    কোভিড পজিটিভ নিয়ে মারা যাওয়া দুই ব্যক্তি হলেন, দেবহাটা উপজেলার জাহাপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ও দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি বদরুজ্জামান (৪১) এবং শ্যামনগর উপজেলার নকীপুর গ্রামের মোখছেদ আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান (৩৯)।

    মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, কোভিড পজিটিভ ও নিউমোনিয়া নিয়ে বদরুজ্জামান গত ২৫ জুলাই সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি হন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

    এদিকে, কোভিড পজিটিভ ও কিডনি জনিত রোগ নিয়ে গত ৮ আগষ্ট শনিবার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন হাফিজুর রহমান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দেড়টার দিকে তিনিও মারা যান। তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্য বিধি মেনে তাদের লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। একই সাথে লকডাউন করা হয়েছে তাদের বাড়ি।

    সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন শাফায়াত বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, কোভিড আক্রান্ত হয়ে জেলায় বুধবার পর্যন্ত মারা গেছেন মোট ২৬ জন। এছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরো অন্তত ৬১ জন।

    মোড়েলগঞ্জে হাসপাতালে অত্যাধুনিক অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন এমপি

    মোড়েলগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে অত্যাধুনিক অক্সিজেন সিলিন্ডার ও করোনা মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় বিভিন্ন উপকরণ দিয়েছেন বাগেরহাট-৪, মোড়েলগঞ্জ-শরণখোলা আসনের সংসদ সদস্য, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন।এমপি আমিরুল আলম মিলন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটির পক্ষে বুধবার বেলা ২টায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. কামাল হোসেন মুফতির নিকট এসব উপকরণ হস্তান্তর করেন।

    এ সময় উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা ছাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এমদাদুল হক, যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. তাজিনুর রহমান পলাশ ও হোগলাবুনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক অধ্যাপক শামীম আহ্সান পলাশ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    রূপসা নদী থেকে শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার

    রূপসা নদীতে পড়ে যাওয়ার দু’দিন পর ফিশিং বোটের শ্রমিক মোঃ রাকিব হোসেন হাওলাদারের (১৮) মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। বুধবার (১২ আগস্ট) দুপুরে নগরীর শিপইয়ার্ডগেট এলাকার নদী থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। রাকিব নগরীর লবনচরা ইসলামপাড়া ১নং গলির মোঃ সেলিম হাওলাদারের ছেলে। রূপসা নৌপুলিশ ফাঁড়ির এস আই অমিত সাহা জানান, রাকিব ফিশিং ট্রলারের বাম পাশে পরিস্কার করার সময় পা পিছলে পড়ে গিয়েছিল। এঘটনায় মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে (যার নং-১৮৮)। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (১১ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে রূপসা শিপইয়ার্ড সংলগ্ন বরিশাল ঘাট এলাকায় এম.বি ম্যাটাডর নামের ফিশিং ট্রলারে পরিচ্ছন্ন কাজ করা সময় রাকিক হাওলাদার নদীতে পড়ে যায়।

    করোনা: সংকটের মুখে ছোট-মাঝারী ব্যবসায়ীরা

    খুলনায় করোনার প্রভাবে প্রায় ৫০ হাজার বেশি ছোট-মাঝারী ব্যবসায়ী আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। দোকানে বেচাকেনা বন্ধো থাকলেও, কর্মচারীদের বেতন, ঘর ভাড়া, বিদ্যুৎ বিল, ভ্যাট-ট্যাক্স থেমে নেই। পাশাপাশি আয়-রোজগার না থাকায় লকডাউনে বাসা ভাড়া ও ভরণ-পোষণে পুঁজি শেষ হয়ে গেছে অনেকের। বিশেষজ্ঞদের মতে, ছোট-মাঝারী ব্যবসায়ীদের বাঁচাতে প্রণোদনা দিতে হবে।

    ঋণ সহায়তা দিতে ব্যবসায়ী সংগঠন বা প্রশাসনের মধ্যস্থতায় ব্যাংকগুলোর সঙ্গে সমন্বয় তৈরি করতে হবে। জানা যায়, করোনাকালীন গত প্রায় চার মাসে খুলনার অধিকাংশ দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলো এক এক করে বন্ধো হতে চলেছে। দোকানে বেচাকেনা নেই, প্রতিদিন বাড়ছে দেনার পরিমাণ। ব্যবসায়ী নাজমুল শেখ জানান, প্রতি মাসে ২৫-৩০ হাজার টাকা ভর্তুকি গুনতে হচ্ছে। তার ওপর রয়েছে সংসারের বাড়তি চাপ। ফলে দেনার ভারে বন্ধো হচ্ছে অনেক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। নগরীর ডাকবাংলা সুপার মার্কেট ও কে রোড ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক এইচ এম মাহফুজুল ইসলাম বাবলু জানান, এখানকার প্রায় দুই হাজার বেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আর্থিক ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে। এসব দোকান মালিকদের সব মিলিয়ে প্রতি মাসে ৫০ থেকে এক লাখ টাকা ক্ষতি গুনতে হচ্ছে। বেচাকেনা না থাকায় পুঁজি শেষের দিকে অনেকের। খুলনা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি কাজী আমিনুল হক বলেন, পরিস্থিতি এভাবে চলতে থাকলে অধিকাংশ ব্যবসায়ী ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়বে। এদের মধ্যে আবার অনেকের দেউলিয়া হওয়ারও আশঙ্কা রয়েছে। ব্যাংকের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের তেমন লেনদেন বা ঋণের সম্পর্ক না থাকায়, ব্যাংক থেকে ঋণ পাচ্ছে না ছোট- মাঝারী ব্যবসায়ীরা। এ ক্ষেত্রে ছোট-মাঝারী ব্যবসায়ীদের বাঁচাতে বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠন বা স্থানীয় প্রশাসনের মধ্যস্থতায় ব্যাংকগুলোর সঙ্গে সমন্বয়ের দাবি জানিয়েছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)-এর জেলা সম্পাদক অ্যাডভোকেট কুদরত-ই খুদা। তিনি বলেন, ব্যাংকগুলোকে সহজ শর্তে ঋণ প্রদানে এগিয়ে আসতে হবে। পাশাপাশি দোকান মালিক-কর্মচারীদের সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে।

    বঙ্গবন্ধু,মুক্তিযুদ্ধ ও আজকের বাংলাদেশ শীর্ষক আলোচনা সভা আজ

    একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কাজী আজহারুল মিলনায়তনে (বিএমএ ভবনে) বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও আজকের বাংলাদেশ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। আলোচনায় বঙ্গবন্ধুর জীবনী, মুক্তিযুদ্ধে ও ইতিহাস, ও আজকের বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট প্রাধন্য পাবে। উক্ত আলোচনা সভায় মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল সংগঠনকে প্রতিনিধিদের উপস্থিত থাকার জন্য আহবান জানিয়েছেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির জেলা শাখার সভাপতি ডা: শেখ বাহারুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন।

    সুন্দরবনে বিষ দিয়ে আহরিত ১৫ মণ শুঁটকি চিংড়ি উদ্ধার

    পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জে (মোংলা) পশুর নদী এলাকা থেকে একটি ফিশিং ট্রলার থাকা বিষ দিয়ে মারা ১৫ মণের অধিক চিংড়ির শুঁটকি উদ্ধার করেছে বনবিভাগ। মঙ্গলবার রাতে ওই সব শুঁটকি চিংড়ি পাচারের সময় বন প্রহরীরা ফিশিং ট্রলারটিকে থামাতে সংকেত দেয়। এ সময় ট্রলারটিকে মোংলার চিলা এলাকায় পশুর নদীর পূর্ব পাড়ে রেখে পাচারকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ট্রলারটি থেকে সুন্দরবনে বিষ দিয়ে আহরিত চিংড়ির শুঁটকি উদ্ধার করে অভিযানকারীরা।

    পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, সুন্দরবনে একটি ফিশিং ট্রলার থেকে বিষ দিয়ে আহরিত চিংড়ির ১৫ মণের অধিক শুঁটকি উদ্ধার করা হয়েছে। এ সব শুটঁকি চিংড়ি ৩৪টি বস্তায় ভরে সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে নিয়ে আসছিল পাচারকারীরা। প্রতিটি বস্তায় ১৮ কেজি করে শুঁটকি রয়েছে। পাচারকারীরা পালিয়ে যাওয়ায় কেউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলেও জানান তিনি।

    বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকীতে কেসিসির কর্মসূচি গ্রহণ\

    স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকীতে জাতীয় শোক দিবস ২০২০ পালন উপলক্ষে আগামী ১৫ আগস্ট খুলনা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৯টায় নগর ভবনে সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক-এর নেতৃত্বে কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠান।

    এর আগে সকাল সাড়ে ৮টায় সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বাংলাদেশ বেতার-খুলনা কেন্দ্রে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ভাষ্কর্যে পুষ্প স্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন।

    দুস্থদের মাঝে সিটি মেয়রের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

    খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধে বুধবার সকালে নগরীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ প্রাঙ্গণে ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ঘরে থাকা চারশত ২১ কর্মহীন নি¤œআয়ের শ্রমজীবী, অসহায়, দুস্থ ও হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-২ মোঃ আলী আকবার টিপুর উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে ছিল তিন কেজি চাল এবং তিন কেজি আটা।

    খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে সিটি মেয়র বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাব থেকে মুক্তি পেতে সঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও সবসময় মাস্ক ব্যবহার করা সকলের কর্তব্য। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুস্থ, অসহায়, শ্রমজীবী মানুষের পাশে রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত আছে। পাশাপাশি সারা দেশের দিনমজুর ও নি¤œআয়ের মানুষের জন্য মানবিক সহায়তা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে কেসিসি’র প্যানেল মেয়র-২ মোঃ আলী আকবার টিপু, ২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আইয়ুব আলী, সাধারণ সম্পাদক সরদার আব্দুল হালিমসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    মোড়েলগঞ্জে ব্যবসায়ী ছুরিকাঘাতে খুন

    বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের পল্লীতে ছুরিকাঘাত করে মফিজুল সরদার (৫২) এক সুপারী ব্যবসায়ীকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কিচমত গড়ঘাটা গ্রামে। নিহতের ভাই তাইজুল সরদার ও ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ হাওলাদার জানান, ঘটনারদিন মফিজুল সরদার নামাজ পড়ার উদ্যোশে বাড়ি থেকে মসজিদের রওনা হলে মসজিদে পৌঁছানোর মাত্রই তাকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে পিছন থেকে গলায় ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। তাৎক্ষনিক তিনি চিৎকার করে মসজিদ মেঝেতে ঢলে পড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন মফিজুল।

    তবে নিহতের স্বজনরা ধারনা করছে ব্যবসায়ী শত্রুতার কারনে এ হত্যার ঘটনা ঘটতে পারে। কিচমত গড়ঘাটা গ্রামের অব্দুল জব্বার সরদারের ছেলে নিহত মফিজুল সরদার তার স্ত্রী রজিনা বেগম ও ২ মেয়ে রয়েছে। এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতের বিষয়টি শুনে। তাৎক্ষনিক ফাঁড়ি পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তিনি নিজেও ঘটনাস্থলের উদ্যোশে পথিমধ্যে রয়েছেন।

    খুলনা বিভাগে করোনা রোগী ১৫ হাজার ছাড়াল

    খুলনা বিভাগে মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে বুধবার সকাল আটটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হিসেবে নতুন ৩৩৩ জন করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে বিভাগে শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়েছে। বিভাগে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের ১৪৭তম দিন বুধবার রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় ১৫ হাজার ২২ জনে।

    বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এসব তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনা জেলার ৫৯ জন, বাগেরহাটের চারজন, চুয়াডাঙ্গার ২৩ জন, যশোরের ৬১ জন, ঝিনাইদহের ৬৪ জন, কুষ্টিয়ার ৬১ জন, মাগুরার ২৪ জন, মেহেরপুরের ১৫ জন, নড়াইলের ২০জন এবং সাতক্ষীরার দুজন রয়েছেন।

    বিভাগে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হিসেবে শনাক্ত মোট ১৫ হাজার ২২ জনের মধ্যে ৪ হাজার ৮৯০ জনই খুলনা জেলার (প্রায় ৩৩ শতাংশ)। এ ছাড়া বাগেরহাটের ৭২৭ জন, চুয়াডাঙ্গার ৮৯১, যশোরে ২ হাজার ৩৯৬, ঝিনাইদহের ১ হাজার ২১৩, কুষ্টিয়ার ২ হাজার ১৮২, মাগুরার ৬৩১, মেহেরপুরের ২৯৫, নড়াইলের ৯৬৮ জন ও সাতক্ষীরার ৮২৯ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

    স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেবে, খুলনা বিভাগে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির সংখ্যা ২৫০ ছাড়িয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন তিনজন করোনা রোগী। এ নিয়ে করোনায় বিভাগে মোট ২৫২ জনের মৃত্যু হলো। বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৭৩ জন মারা গেছেন খুলনায়। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ৪৪ জন, যশোরে ৩৩ জন, সাতক্ষীরায় ২৩ জন, ঝিনাইদহে ২০ জন, বাগেরহাটে ১৬ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১৫ জন, নড়াইলে ১৩ জন, মাগুরায় আটজন ও মেহেরপুরে সাতজন মারা গেছেন। এদিকে খুলনা বিভাগে করোনামুক্ত হওয়া মানুষের সংখ্যাও ১০ হাজার ছুঁই ছুঁই করছে। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬০ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৯ হাজার ৯১২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার প্রায় ৬৬ শতাংশ।

    চিনিকল নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় যুবকের নামে মামলা

    ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ফেসবুকে অসত্য তথ্য দিয়ে স্ট্যাটাস দেয়ায় এক যুবকের নামে মামলা করেছে মোবারকগঞ্জ চিনিকল কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার রাতে মিল ভান্ডারের জুনিয়র অফিসার জামাল হোসেন বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় এ মামলা করেন। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, সুজন নামের এক যুবক গত ১০ আগস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার নিজ নামে আইডিতে স্ট্যাটাস দেন “কালীগঞ্জ মোবারকগঞ্জ চিনিকলের ৭০০ টন চিটে গুড় গায়েব”। স্ট্যাটাসটি মিল কর্তৃপক্ষের নজরে এলে ঘটনাটি অসত্য ভিত্তিহীন উল্লেখ করে এজাহার দায়ের করেন। এজাহারে আরও উল্লেখ করেন, চিটে গুড় গায়েব হওয়ার মতো কোনো ঘটনা না ঘটলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন অসত্য তথ্য প্রচার করায় বাংলাদেশ সরকারের শিল্প প্রতিষ্ঠান তথা ঐতিহ্যবাহী মোবারকগঞ্জ সুগার মিলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে। সুজন কালীগঞ্জ পৌরসভাধীন বাকুলিয়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। কালীগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, মঙ্গলবার রাতে মোবারকগঞ্জ চিনিকলের পক্ষ থেকে একটি এজাহার দায়ের করেছে। এখন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে খুলনায় অভিযান

    সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অতিরিক্ত যাত্রী বহন, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং অবৈধ ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান চলাচল শুরু করায় যানজট, যাত্রী হয়রানিসহ খুলনাঞ্চলের সড়কে এক ধরনের অরাজক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এ কারণে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ ও জেলা প্রশাসন দ্বিমুখী অভিযানে নেমেছে। সম্প্রতি কয়েকদিনের অভিযানে ২৯৮টি অবৈধ ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান, নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেল এবং মাহেন্দ্র-ইজিবাইক আটক করা হয়েছে। এছাড়া, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় ও অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহনে যাত্রীবাহী বাস, ইজিবাইক-মাহেন্দ্রকে জরিমানা করা হয়েছে।

    বুধবার (১২ আগস্ট) খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) কানাই লাল সরকার বিষয়টি জানিয়েছেন। নগরীর দৌলতপুর এলাকার বাসিন্দা কামরুন্নাহার শিরিন অভিযোগ করে জানান, নানা অজুহাতে ভাড়া বৃদ্ধি করা হচ্ছে। মাহেন্দ্র ইজিবাইকে ১৫ টাকার ভাড়া ৩০ টাকা ও ২০ টাকার ভাড়া ৪০ টাকা পর্যন্ত আদায় করা হচ্ছে। বর্ধিত ভাড়া না দিলে হয়রানির শিকার হতে হয়। অভিযান পরিচালনাকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিদুল ইসলাম এবং তাহমিনা সুলতানা নীলা জানান, পরিবহনে ধারণক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী ও সর্বোচ্চ ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির সরকারি নির্দেশনা থাকলেও চালকরা তা মানছেন না। অভিযানে যাত্রীদের নিকট থেকে পূর্বের ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ বা তারও বেশি ভাড়া আদায় করতে দেখা গেছে। এসব কারণে কয়েকটি বাস, মাহেন্দ্র ও ইজিবাইককে জরিমানা করা হয়েছে। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) কানাই লাল সরকার জানান, সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে কঠোর অবস্থানে নেমেছে মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। অবৈধ যানবাহন আটকে ট্রাফিক বিভাগের পাশাপাশি থানাগুলোতেও অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এরই অংশ হিসেবে গত কয়েকদিনে খুলনার বিভিন্ন স্থানে ২৯৮টি ব্যাটারি চালিত অবৈধ রিকসা-ভ্যান, মাহেন্দ্র, মোটরসাইকেল আটক করা হয়েছে।

    আওয়ামী লীগ এখন নিজেদের ছায়া দেখলেও আঁতকে ওঠে: খুলনা বিএনপি

    মহান স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বীরউত্তম এবং জনগনের ভোটে বাংলাদেশের প্রথম নির্বাচিত নারী প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র মরহুম আরাফাত রহমান কোকো’র ৫১তম জন্মদিনে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তার কবর জিয়ারত দলীয় নেতাকর্মি ও সাধারণ আবেগপ্রবন মানুষকে পুলিশ কর্তৃক বাঁধাদানের তীব্র নিন্দা ও গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেন খুলনা মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন বিনা ভোটের সরকার আওয়ামী লীগ গণতান্ত্রিক সকল অধিকার ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা হরণ করার পাশাপাশি ধর্মীয় রীতিনীতি, শোক ও আবেগ প্রকাশের মত সংবেদনশীল অনুভুতি প্রকাশে পর্যন্ত ন্যাক্কারজনক বাঁধা প্রদান করে দেশের রাজনীতিতে নিকৃষ্ট উদাহরণ সৃষ্টির নজির স্থাপন করছে।

    গতকাল ১২ আগস্ট ছিলো জিয়া পরিবারের কনিষ্ঠ সন্তান দেশের অন্যতম ক্রীড়া সংগঠক আরাফাত রহমান কোকো’র ৫১তম জন্মদিন। প্রয়াত কোকো’র কবর জিয়ারতে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এবং সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদের নেতৃত্বে বিএনপি নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হলে বনানী কবরস্থান গেটে পুর্বে অবস্থান গ্রহণ করা বিপুল সংখ্যক পুলিশ সেখানে নেতৃবৃন্দবে বাঁধা দেয়। শহীদ জিয়া, খালেদা জিয়া এবং জিয়া পরিবারের প্রতি এ দেশের মানুষের আবেগ, শ্রদ্ধা, ভালোবাসা যে গভীর সেটা ২০১৫ সালে অবরোধ চলাকালে এবং পরিবহনশুন্য ঢাকাতে মরহুম আরাফাত রহমান কোকো’র জানাযায়ই প্রমানিত হয়েছিল। আর এ বিষয়টি বুঝতে পেরেই সরকারের নির্দেশে পুলিশের এই অপ্রয়োজনীয় বাড়াবাড়ি বলে মনে করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। পরবর্তীতে নেতৃবৃন্দের অনমনীয় মনোভাবের প্রেক্ষিতে পুলিশ মাত্র কয়েকজন নেতাকে কবরস্থানে ভিতরে প্রবেশ করতে দিলে নেতৃবৃন্দ মরহুমের কবর জিয়ারত করতে সক্ষম হন। বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব সাবেক ডাকসু জিএস খায়রুল কবির খোকনসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মি ও সাধারণ শুভানুধ্যায়ীগণ কবরস্থানের বাইরের সড়কে দাঁড়িয়ে মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।

    বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান ক্ষমতাসীনরা জনবিচ্ছিন্ন এবং পুলিশ নির্ভর। আওয়ামী লীগ এখন নিজের ছায়া দেখলেও আঁতকে ওঠে। তারা এতটাই নার্ভাস যে, পুলিশের উপর নির্ভর করতে করতে পুলিশকে সেই ফ্রাঙ্কেস্টাইনের দানবে পরিণত করে ফেলেছে। একজন মৃত ব্যক্তির কবর জিয়ারত ও দোয়া অনুষ্ঠানের মত নিরীহ কর্মসূচি তাদের জন্য মারাত্মক মাথাব্যাথার কারণ হয়েছে এবং পুলিশ লেলিয়ে তা বাঁধাগ্রস্থ করতে হচ্ছে। এহেন নিকৃষ্ট এবং হীন মানসিকতা নিয়ে রাস্ট্র পরিচালনা করা যায় না বলে নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন।

    নেতৃবৃন্দরা হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মো. মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

    খুলনায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৪ জনের মৃত্যু

    খুলনায় করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় কলেজ ছাত্রসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন করোনা আক্রান্ত ও তিনজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। খুলনায় এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে ৭৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন ওয়ার্ড ও খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে তাদের মৃত্যু হয়। খুলনা করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. শেখ ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, মঙ্গলবার রাত পৌনে ৯টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মুজাহিদ শেখ (১৮) নামের এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়। মুজাহিদ মহানগরীর লবনচরা থানাধীন পুটিমারী এলাকার আমিরুল ইসলামের ছেলে। তাকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় খুলনা মেডিকেল কলেজের করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

    এর আগে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয় সালেহা বেগম (৩৮) নামে এক গৃহবধূর। তিনি ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা থানার বাসিন্দা আব্দুল কুদ্দুসের স্ত্রী। করোনা উপসর্গ নিয়ে গত ১০ আগস্ট সোমবার তাকে খুমেকে ভর্তি করা হয়। সোমবার (১০ আগস্ট) রাত ১২টায় পাইকগাছা উপজেলার রহিমপুরের বাসিন্দা আব্দুর রউফের মেয়ে শাবানার (৩৫) মৃত্যু হয় করোনা উপসর্গ নিয়ে। জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে রোববার (৯ আগস্ট) সন্ধ্যায় করোনা সাসপেক্টেড আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি হন তিনি। এছাড়া করোনা আক্রান্ত হয়ে নুরনগর ডায়াবেটিক হাসপাতালে মৃত্যু হয় আব্দুল হাশেম (৪০) নামে এক ব্যক্তির। মহানগরীর ১৭৪, শের-ই-বাংলা রোডের বাসিন্দা আব্দুল কাশেমের ছেলে আব্দুল হাশেম করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯ আগস্ট থেকে করোনা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় তার মৃত্যু হয়।

    পাউবোর ভুলের মাশুল দিচ্ছেন শার্শার কৃষকরা

    যশোর পানি উন্নয়ন বোর্ডের ত্রুটিপূর্ণ স্লুইচগেট নির্মাণের কারণে ইছামতি নদীর পানিতে প্লাবিত হয়েছে যশোরের শার্শা উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন। দক্ষিণাঞ্চলের হাজার হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হচ্ছে পানির নিচে। উত্তর শার্শায়ও ঢুকে পড়েছে ভারতের উজানের পানি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, ইছামতির জোয়ারের পানি শার্শার রুদ্রপুর ও পুটখালির খলশী খাল দিয়ে প্রবেশ করে শার্শা ও ঝিকরগাছার বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত করেছে। উপজেলায় ৩টি স্লুইচগেট থাকলেও তার কোনো খালাসী নেই, নেই নজরদারিও। শার্শা উপজেলার পুটখালী, গোগা, উলাশী, বাগআঁচড়া ও কায়বাসহ ৫টি ইউনিয়নের প্রায় ৩ হাজার হেক্টর জমির ফসল পানির নিচে তলিয়ে রয়েছে। ইছামতির সঙ্গে সংযুক্ত রুদ্রপুর ও খলশী খালে ক্রটিপূর্ণ স্লুইচগেট নির্মাণের ফলে ভারতের ইছামতি নদীর পানিতে এলাকা প্লাবিত হচ্ছে বলে চাষিদের অভিযোগ। ইছামতির পানি ঠেকাতে রুদ্রপুর খালে দুটি ও খলশী খালে একটি স্লুইচগেট নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু ত্রুটিপূর্ণ থাকায় তা কোনো কাজে আসছে না। ফলে ওই খাল দুটি দিয়েই ভারতের পানি ঢুকে শার্শার বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত করছে। কয়েকজন চাষি জানান, রুদ্রপুর ও খলশী খালে পাম্পসহ স্বয়ংক্রীয় গেট নির্মাণ করলে এর স্থায়ী সমাধান হবে এবং চাষিরা ১২ মাস ঘরে ফসল তুলতে পারবেন। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সৌতম কুমার শীল জানান, ৫টি ইউনিয়নে চলতি মৌসুমে ২০ হাজার ১৩১ হেক্টর জমিতে ফসল লাগানো হয়েছে। কিন্তু ভারতের উজানের পানিতে ২ হাজার ৯৭০ হেক্টর জমির ধান, পাট ও সবজি তলিয়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে বেনাপোলের পুটখালী ইউনিয়নে। এখানে ৪০০ হেক্টর জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। কায়বায় ৩৫০ হেক্টর, গোগায় ২২৫ হেক্টর, বাগআঁচড়ায় ২৫০ হেক্টর ও উলশীতে ১২৫ হেক্টর জমির ফসল ভারতের উজানের পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মন্ডল বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যানদের মুখে শুনেছি ভারতের পানি রুদ্রপুর ও খলশী খাল দিয়ে ঢুকে ফসলের ক্ষতি করছে। এসিল্যান্ড ও ইঞ্জিনিয়ারকে সঙ্গে নিয়ে মঙ্গলবার পুটখালী ও বারোপোতার বিভিন্ন অঞ্চল পরিদর্শন করেছি। ইছামতি নদীর পানির সমস্যাটা আন্তর্জাতিক ব্যাপার। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ড ইচ্ছা করলে এর সমাধানের পথ খুঁজে বের করতে পারে।

    বটিয়াঘাটায় র‌্যাবের অভিযানে তক্ষকসহ দুই বন্যপ্রাণী পাচারকারী গ্রেফতার

    খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানাধীন গঙ্গারামপুর ইউনিয়নের কাতিয়ানাংলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে একটি বন্যপ্রাণী তক্ষকসহ দু’পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। গতকাল বুধবার বিকেল ৫টার দিকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

    গ্রেফতার দু’পাচারকারী হলেন নগরীর ৭৬ রূপসা স্ট্যান্ড রোডস্থ মোল্লাবাড়ির মো. রোস্তম আলীর ছেলে মো. আরিফুল ইসলাম ওরফে সাগর (৪২) ও লবণচরা থানাধিন মোহাম্মদ নগরের মো. মিলন শেখ (৩৪)। সে বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট থানার আড়ুয়াডাংগা গ্রামের শেখ আব্দুর বর ওরফে মজিবর রহমান শেখের ছেলে।

    র‌্যাব-৬ জানায়, গতকাল বিকেল ৫টার দিকে খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানাধীন গঙ্গারামপুর ইউনিয়নের কাতিয়ানাংলা গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল। এসময় ওই গ্রামের আমানউল্লাহ এর চায়ের দোকানের সামনে থেকে একটি বন্যপ্রাণী তক্ষকসহ দু’পাচারকারী সাগর ও মিলন শেখকে গ্রেফতার করা হয়। তারে বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি হলছে।

    রামপালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান জোরদার: ২৫৪ মামলায় ৮৭৮০০ টাকা জরিমানা

    রামপালে গত ২৩ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত স্বাস্থ্য বিধিমালা অধ্যাদেশের আওতায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে মোট ১০২ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা গেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাধন কুমার বিশ্বাস জানান, এ উপজেলার মানুষকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা ও বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক ব্যাবহােের বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। মানুষ যাতে মহামারি করোনাকে প্রতিরোধ করে সুস্থ জীবন যাপন করতে পারেন সে জন্য সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। স্বাস্থবিধি না মানায় এ পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের ১০২ টি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময়ে ২৫৪ টি মামলা দায়ের করে ৮৭ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করে তা তাৎক্ষণিকভাবে আদায় করা হয়েছে। করোনার প্রাদূর্ভাব না কমা পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান। কেউ স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করলে বিধি অনুযায়ী ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি সকালের সহযোগিতা কামনা করেন।

    দক্ষিণ যোগীপোল বায়তুল আরাফাত জামে মস্জিদের দান বাক্স ভেঙ্গে টাকা চুরি

    নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন দক্ষিণ যোগীপোল বায়তুল আরাফাত জামে মস্জিদের দান বাক্স ভেঙ্গে টাকা চুরি হয়েছে। ১১ আগষ্ট গভীর রাতে দক্ষিণ যোগীপোল বায়তুল আরাফাত জামে মস্জিদের দান বাক্স ভেঙ্গে কে বা কারা টাকা চুরি করে নিয়ে গেছে। ১২ আগষ্ট ফজরের নামাজ পড়তে এসে দেখে মসজিদ সংলগ্ন দান বাক্সটির দরজা ভাংগা এবং কোন টাকা পয়সা নাই। মস্জিদের ইমাম খোকা হুজুর জানান প্রতি মাসে একবার দান বাক্সটি খোলা হয়। ২ দিন বাকী থাকতে চোরেরা দরজা ভেঙ্গে টাকা পয়সা চুরি করে নিয়ে গেছে। এলাকাবাসী জানান পুলিশি টহল না থাকায় এলাকায় চুরি ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ড বৃদ্ধি পেয়েছে।

    নগরীতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ব্যবসায়ীককে হুমকি

    নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন যোগিপোল ৪ নং ওয়ার্ডের মৃত আবুল কালাম আজাদের পুত্র ও খুলনা বড় বাজারের ব্যবসায়ী মোঃ শহিদুল ইসলাম সোহেল ( ৪০) কে তার ব্যক্তিগত মোবাইলে গত ১১ আগষ্ট বিকাল ৬ টায় ০১৮১৮ ৫৪০ ৪৫৯ নং হতে নিজেকে ডিবি পুলিশের এস আই পরিচয় দিয়ে বাড়ি থেকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার হুমকি প্রদান করে । পরবর্তিতে সোহেলের মোবাইলে রাত সাড়ে ৮টায় আবারো ফোন দেয় এবং ডিবির এসআই মনিরুজ্জামান পরিচয় দিয়ে হুমকি দিতে থাকে। তার কথাবার্তা সন্দেহজনক হওয়ায় ব্যবসায়ী সোহেল ১১ আগষ্ট খানজাহান আলী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ কবির হোসেন বলেন আমরা খোজ খবর নিয়ে দেখছি এটা কোন প্রতারক চক্রের কাজ হতে পারে । বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

    ফকিরহাটে সীমিত পরিসরে শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালন

    বাগেরহাটে ফকিরহাটে করোনা পরিস্থিতিতে সীমিত পরিসরে শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালন করেছে। শোভাযাত্রা বের না হলেও স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে ধর্মীয় পূজা অর্চনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফকিরহাট কেন্দ্রীয় কালি মন্দিরে করোনা থেকে মুক্তির আশায় ও জগতের মঙ্গলের জন্য প্রার্থনা ও মোমবাতী প্রজ্জলন করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কালী মন্দিরের সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, সাধারন সম্পাদক প্রশান্ত মোদক, শীতলা মন্দিরের সাধারন সম্পাদক গোবিন্দ কুমার পাল, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক মনোতোষ রায় কেষ্ট, থানা সদর মন্দিরের সাধারন সম্পাদক নির্মল কুমার দাশ, অশোক কুমার ঘোষ, আনন্দ দে সহ ভুক্তবৃন্দ।

    মহেশপুরে বাড়ী ফেরার পথে ছিনতায়কারীর কবলে খন্দকার ফ্যাশানের মালিক

    বাজারের দোকান বন্ধ করে মটর সাইকেল যোগে বাড়ী ফেরার পথে ছিনতায়কারীর কবলে পড়েছেন মহেশপুর বাজারের খন্দকার ফ্যাশানের মালিক হামিদুর রহমান। ছিনতায়কারীরা পথ রোধকরে অস্ত্রের মুখে মটর সাইকেলের চাবি,মোবাইলফোন ও কাছে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে গ্রামের ছিনতায়কারীদের চিনে ফেলায় ছিনিয়ে নেওয়া মটর সাইকেলের চাবি,মোবাইলফোন ও টাকা ফেরত দিয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে নোয়ানীপাড়া নলপাতুয়া পাথরা সড়কের নোয়ানীপাড়া ঈদগার পাঠের মধ্যে। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার সকালে খড়োমান্দারতলা গ্রামের সেলিম,মনির ওরফে মনি ও অজ্ঞাত নামা একজনকে আসামী করে মহেশপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

    ছিনতায়কারীর কবলে পড়া খন্দকার ফ্যাশানের মালিক হামিদুর রহমান জানান, দোকানের কাজ শেষ করে রাত ১১টার দিকে বাড়ী যাওয়ার সময় নোয়ানীপাড়া ঈদগার পাঠের মধ্যে পৌছালে ৩ জন ছিনতায়কারী আমার পথ রোধ করে। এ সময় অজ্ঞাত এক জন অস্ত্রের মুখে আমার মটর সাইকেলের চাবি,মোবাইলফোন ও ৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেই। পরে আমি দু’জনকে চিনে ফেলাই তাদের সাথে কথা বলার পর তারা আমার মটর সাইকেলের চাবি,মোবাইলফোন ও টাকা ফেরত দিয়েছে। আর এ কথা কাউকে না বলার জন্য হুমকি নেয়। তিনি আরো জানান,বিষয়টি আমি বাড়ীতে এসে বলার পর ছিনতায় কারীরা এখন আমাকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে।

    মহেশপুর থানার এস আই রনোউত্তম জানান,খন্দকার ফ্যাশানের মালিক হামিদুর রহমান এ ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। আসামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    বাগেরহাটে মাদ্রাসার নির্মাণ কাজে বাঁধা, পিলার ভাঙ্গার অভিযোগ

    বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে জি.বি. আমেনা খাতুন বালিকা দাখিল মাদ্রাসার নির্মাণাধীন নতুন ভবনের কাজে বাঁধা ও পিলার ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে মাদরাসা পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা মঙ্গলবার জরুরি সভায় বসেছেন। একই সাথে থানায়ও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

    অভিযোগে জানা গেছে, সোমবার বিকেলে হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নের গোদাড়া এলাকায় জি. বি. আমেনা খাতুন বালিকা দাখিল মাদ্রাসার শ্রেনীকক্ষের পূন: নির্মাণ কাজে বাঁধা সৃষ্টি ও নির্মাণাধীন ভবনের পিলার ভেঙ্গে ফেলেন পার্শ্ববর্তী ওয়ালিউর রহমান অলিদ ও তার সহযোগীরা।

    পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অলিদ, ফারুক হোসেনসহ ৪/৫ জন প্রতিষ্ঠানে এ হামলা ও ভাংচুর চালায় বলে অভিযোগে বলা হয়েছে। এ ঘটনার পরপরই মাদ্রাসা ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা মঙ্গলবার সকালে জরুরি সভা করেছেন। সভায় ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টদের বিচারের দাবি জানানো হয় প্রশাসনের কাছে। এ বিষয়ে মাদ্রাসা সুপার মাওলানা মো. ইব্রাহিম খান বাদি হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ওয়ালিউর রহমান অলিদ বলেন, মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জোরপূর্বক তাদের পৈত্রিক জমিতে অবৈধভাবে পাকা ভবন নির্মানের কাজ শুরু করেছে। ওই কাজে বাঁধা দেওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানে হামলা করা হয়নি।

    ফকিরহাটের লখপুরে সুস্থ্যতা কামনায় দোয়া মাহফিল

    বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ,লীগের সভাপতি স্বপন দাশ এর আশুসুস্থ্যতা কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠান বুধবার বিকাল ৫টায় লখপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের জলছত্র বটতলাস্থ দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাওলানা মোঃ মোস্তাকিন বিল্লা এর পরিচালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ,লীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক শেখর রঞ্জন দেবনাথ, সাংগঠনিক সম্পাদক তপন দেবনাথ ভজন, ইউনিয়ন আ,লীগের সাধারন সম্পাদক এমডি সেলিম রেজা, আ,লীগ নেতা আসপিয়ার হোসেন মোড়ল, জামাল ফারাজী, আবুবক্কার সিদ্দিক, আব্দুর রাজ্জাক বিশ^াস, মোঃ আরিফ শেখ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক জয়ন্ত দাশ, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক অনিমেষ দাম, যুবলীগ নেতা মোঃ সেলিম শেখ ও মহিলা নেত্রী তাসলিমা বেগম লতা। পরে জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। অপরদিকে ৫নং ওর্য়াড আ,লীগের উদ্যোগে অনুরুপ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ড আ,লীগের সভাপতি আবু বক্কার সিদ্দিক, সাধারন সম্পাদক মোঃ আরিফ শেখ, ছাত্রলীগ নেতা মিরাজুল ইসলাম মিরাজ ও মোঃ মনিরুজ্জামান মনি প্রমুখ।

    মোড়েলগঞ্জে নিশানবাড়িয়ায় লজিক প্রকল্পের উদ্যোগে নগদ অর্থ প্রদান করলেন চেয়ারম্যান বাচ্চু

    মোরেলগঞ্জে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে ইউএনডিপি’র লজিক প্রকল্পের উদ্যোগে বুধবার সকাল ১১টায় ইউনিয়ন পরিষদ সভাকক্ষে ২৯৫(সিআরএস) সুবিধাভোগী পরিবারকে ২২টি গ্রুপে ভাগ করে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

    এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু।

    অন্যান্যের মাধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন সচিব মো. সালাউদ্দিন, কমিউনিটি মোবিলাইজেশন ফ্যাসিলিটের মো. আব্দুল আলিম, মনিরা আক্তার ও ইউপি সদস্যবৃন্দ। এ ইউনিয়নে মাছ, ভেড়া, কাকড়া, হাঁস ও মুরগি চাষের জন্য জনপ্রতি ২৯ হাজার ৪শ’ ৮০ টাকা করে ২৯৫ সদস্যর মাঝে ৮৬ লক্ষ ৯৬ হাজার ৬শ টাকা প্রদান করার লক্ষে কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

    বাগেরহাটে জেলেদের অন্যায়ভাবে আটকের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

    রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে প্রতিপক্ষ ও বনবিভাগের কর্মকর্তাদের যোগসাযোগে সুন্দরবনে মাছ আহরণে নিয়োজিত থাকা ৯ জেলের নামে হয়রানি মূলক মামলা দায়ের পূর্বক জেল হাজতে প্রেরণের অভিযোগ উঠেছে। বৈধ অনুমতি নিয়ে সুন্দরবনের অভ্যন্তরে প্রবেশকৃত জেলেদের কাছ থেকে প্রতিগোনে জাল ফেলার জন্য ২ হাজার ৫‘শ টাকা ঘুষ গ্রহণ করেন পূর্ব সুন্দরবন বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের কটকা অভয়ারন্য কেন্দ্রের ওসি আবুল কালাম সরকার। এছাড়াও নানা ভাবে জেলেদের হয়রানির অভিযোগ রয়েছে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। বুধবার (১২ আগস্ট) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন শরণখোলা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়াম্যান মোঃ হাসানুজ্জামান পারভেজ। এসময় শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার তোফাজ্জেল হোসেন ব্যাপারী, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা জামাল জমাদ্দার, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও কারাগারে প্রেরিত জেলে পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

    সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন গনমাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে জেলেদের ওপর হামলার অভিযোগে যে সংবাদ প্রচার করা হয়েছে। তা সঠিক নয় । আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা স্থানীয় সফিকুল ইসলাম ডালিম, এমাদুল শরীফ, খলিল মৃধা, জাহাঙ্গির হোসেন হিরু, রহিম হাওলাদার ও শাহ আলমকে ব্যবহার করে এসব মিথ্যা নাটক সাজিয়েছে। এছাড়াও বৈধ পাস পারমিট নিয়ে সুন্দরবনে প্রবেশ করা আমার ৯ জেলেকে অবৈধভাবে আটক করে বন বিভাগের কর্মকর্তারা। পরে মঙ্গলবার তারা আমার জেলেদেরকে আদালতে সোপর্দ করে। এটাও আমার প্রতিপক্ষদের ষড়যন্ত্রের অংশ। এটা সম্পূর্ণ বেআইনি ও অন্যায়। আমি এসবের বিচার চাই।

    উল্লেখ, সুন্দরবনে প্রবেশ করে জেলেদের মারধরের অভিযোগে শরণখোলা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়াম্যান মোঃ হাসানুজ্জামান পারভেজের বিরুদ্ধে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। ওই জেলেরা ভাইস চেয়ারম্যানসহ ৬জনকে আসামী করে শরণখোলা থানায় মামলা দায়ের করেন।

    ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত কয়রা ও দাকোপের সাড়ে চার সহ¯্রাধিক পরিবারে ‘নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় উপকরণসমূহ’ বিতরণ শুরু

    কেয়ার-বাংলাদেশের সহায়তায় রূপান্তরের বাস্তবায়নাধীন সাইকোন আম্ফান সাড়াদান প্রকল্পের আওতায় খুলনা জেলার কয়রা ও দাকোপে ৪,৬০০ পরিবারের মধ্যে “নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় উপকরণসমূহ” (উরমহরঃু করঃং) বিতরণ কার্যক্রম আজ বুধবার থেকে শুরু হয়েছে। আজ কয়রা উপজেলার কয়রা সদর, মহারাজপুর এবং বাগালী ইউনিয়নের ১০২১টি পরিবারের মধ্যে নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় ১৭ ধরণের উপকরণ প্রদান করা হয়। করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই উপকরণাদি হস্তান্তর করা হয়। বুধবার এই বিতরণ অনুষ্ঠানসমূহে কেয়ার বাংলাদেশের পক্ষে সিনিয়র প্রজেক্ট অফিসার আব্দুল মতিন তালুকদার, রূপান্তর-এর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মসূচীর প্রধান ফারুক আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। কয়রা-মদিনাবাদ মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কয়রা সদর ইউনিয়নের ৩৯০টি পরিবারের মধ্যে নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় উপকরণসমূহ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসিমা আলম, সমাজসেবিকা লতা আমিন প্রমূখ।

    মহারাজপুরে গ্রাজুয়েট হাই স্কুলে ২৯৬টি পরিবারের মধ্যে নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় উপকরণসমূহ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন ৭ ৮ ৯ ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য আয়শা খাতুন, সহকারী শিক্ষিকা সঞ্জিতা রায় প্রমূখ। বাগালী ইউনিয়নে ৩৩৫টি পরিবারের মধ্যে নারীর মর্যাদা সুরক্ষায় উপকরণসমূহ বিতরণকালে বাগালী ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান হোসনেয়ারা পারভীন, মধ্য বামিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সাবিনা ইয়াসমিন মিতা উপস্থিত ছিলেন।

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত ॥ উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১২১৩ জন। এদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইনের চাচা শরাফত হোসেন মারা গেছেন।

    ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন কার্যলয়ের মেডিক্যাল অফিসার ও করোনা সেলের মুখপাত্র ডা. প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ জানান, বুধবার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ১৬৬ টি নমুনার রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ৬৪ টি পজেটিভ।

    আক্রান্তরা হলেন, সদর উপজেলায় ৪৯ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ৪ জন, শৈলকুপা উপজেলায় ২ জন, কোটচাদপুর উপজেলায় ৩ জন এবং হরিনাকুন্ডু ৬ জন। আক্রান্ত ১২১৩ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৭৩২ জন। কোভিড-১৯ হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৬ জন। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২০ জন।

    ঝিনাইদহ জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল হামিদ খান জানান, এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিদের ইফা গঠিত কমিটি লাশ দাফন করেছে।

    ফকিরহাটে নারী ও কিশোরীদের সহিংসতা প্রতিরোধে সভা

    বাগেরহাটের ফকিরহাটে নারী ও কিশোরীদের সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয় প্রকল্পের অবহিত করন সভা বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা বাদাবন সংঘের উদ্যোগে বুধবার সকাল ১১টায় লখপুর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনাতয়নে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্যানেল চেয়ারম্যান শেখ আলী আহম্মদ এর সভাপতিত্বে সভায় বক্তৃতা করেন, এ্যাডভোকেট মেহেরুন্নেছা, ইউপি সচিব প্রসুন দাশ, বাদাবন সংঘের প্রগ্রাম ম্যানেজার নাইমা জাহান, লাইলা খাতুন, প্রগ্রাম অফিসার খান ফারুক হোসেন, মনিটরিং অফিসার আল আমীন ইজারাদার, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার নাজির আহম্মে, বিপ্লব দাশ, সংরক্ষিত মহিলা সদস্যা তাসলিমা বেগম লতা, বাদাবন সংঘের ইউনিয়ন সমন্বয়কারী রাবেয়া খাতুন, ইউপি সদস্য বিল্লাল হোসেন মিলন, রেজাউল হক, হুমায়ুন কবির ও ফিরোজ খান। সভায় নারী ও কিশোরীদের সহিংসতা প্রতিরোধে ব্যাপক আলোচনা করা হয়।

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত : উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু

    ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১২১৩ জন। এদিকে করোনা উপসর্গ নিয়ে হরিণাকুন্ডু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইনের চাচা শরাফত হোসেন মারা গেছেন।

    ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন কার্যলয়ের মেডিক্যাল অফিসার ও করোনা সেলের মুখপাত্র ডা. প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ জানান, বুধবার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ১৬৬ টি নমুনার রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ৬৪ টি পজেটিভ।

    আক্রান্তরা হলেন, সদর উপজেলায় ৪৯ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ৪ জন, শৈলকুপা উপজেলায় ২ জন, কোটচাদপুর উপজেলায় ৩ জন এবং হরিনাকুন্ডু ৬ জন। আক্রান্ত ১২১৩ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ৭৩২ জন। কোভিড-১৯ হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৬ জন। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২০ জন।

    ঝিনাইদহ জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল হামিদ খান জানান, এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিদের ইফা গঠিত কমিটি লাশ দাফন করেছে।

    মহানগর ছাত্রদলের সভাপতির সুস্থতা কামনায় সদর ও সোনাডাঙ্গা থানা ছাত্রদলের বিবৃতি

    বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি শরিফুল ইসলাম বাবু ৬দিন যাবত শারীরিক ভাবে খুবই অসুস্থ। মহানগর ছাত্রদলের সভাপতির সুস্থতা কামনায় সকলের নিকট দোয়া চেয়ে বিবৃতি দিয়েছেন সদর ও সোনাডাঙ্গা থানা ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ। সোনাডাঙ্গা থানা ছাত্রদলের বিবৃতিদাতারা হলেন আহবায়ক মোঃ সাইফুল ইসলাম, সদস্য সচিব শেখ মসফিকুর হাসান অভি, আশিকুর রহমান আশিক, আরিফুর রহমান টুকু, ইমরান হোসেন, মোঃ সাজিদ, নাজমুল হোসেন, মোঃ আসলাম হোসেন, মোঃ শুভ হাওলাদার, মোঃ তারেক শেখ প্রমুখ। সদর থানা ছাত্রদলের বিবৃতিদাতারা হলেন মোঃ ফিরোজ আহমেদ, রবিউল আলম, মামুনুর রহমান, মোঃ ইবাদুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ আল মামুন, জিয়াউর রহমান জুয়েল, তুহিন ইসলাম, ইয়াসিন শেখ, ইমরান হোসেন, আব্দুর রহমান গাজী, আবিদ আলম রাহাত প্রমুখ।

    যশোরে গাঁজাসহ গ্রেফতার-৩

    পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা আলাদা অভিযান চালিয়ে এক কেজি সাতশ’ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করেছে। এসময় গাঁজা নিজ দখলে রাখার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। এরা হচ্ছে,যশোর শহরের রেলগেট পশ্চিম পাড়া চঞ্চলের বাড়ির ভাড়াটিয়া মৃত রহমান গাজীর ছলে মুন্না গাজী, বেনাপোল পোর্ট থানার অন্তর্গত ৪ নং ঘিবা গ্রামের এজবার আলীর ছেলে সাজজুল আলী ও যশোর সদর উপজেলার লেবুতলা দত্তপাড়ার পরিতোষ দত্তর ছেলে প্রহলাদ দত্ত। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় আলাদা তিনটি মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের বুধবার ১২ আগষ্ট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

    চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে চাঁচড়া চেকপোষ্টের গোল চত্বও এক পূর্ব পাশ^ থেকে সাজজুল আলীকে গাঁজা বিক্রির অভিযোগে গ্রেফতার করে। পরে তার দখল হতে ১ কেজি ১শ’ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে। অপরদিকে, ফুলবাড়ী পুলিশ ক্যাম্প সূত্রে জানাগেছে,মঙ্গলবার বিকেলে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে উক্ত ক্যাম্পের পুলিশের একটি দল যশোর মাগুরা সড়কের মনোহরপুর বাজারস্থ ইছালী রোডে চেকপোষ্ট বসিয়ে মোটর সাইকেল তল্লাশী কার্যক্রম চালানোর এক পর্যায় লেবুতলাগামী একটি বাজাজ সিটি মোটর সাইকেল (যশোর হ- ১৪-১৫৮২) থামানোর সংকেত দেয়। উক্ত মোটর সাইকেল আরোহীদের মধ্যে প্রহলাদ দত্তকে গ্রেফতার করলে তার সহযোগী সদর উপজেলার লেবুতলা তেঁতুলতলার আলী হোসেন বক্সের ছেলে সাগর হোসেন দ্রুত দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় প্রহলাদ দত্তের শরীর তল্লাশী করে শরীরে বিশেষ কায়দায় বেঁধে রাখা ২শ’ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে। এছাড়া,র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্প সূত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট সন্ধ্যারাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া কয়লা পট্টি জনৈক সোহরাব হোসেন ছুটুর বাড়ির সামনে গাঁজা বিক্রি কালে মুন্না গাজী নামে এক গাঁজা বিক্রেতাকে গ্রেফতার করে। পরে তার দখল হতে ৪শ’ গ্রাম গাঁজা,গাঁজা বিক্রির নগদ ৭৪০ টাকা ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করে।

    যশোরে ৬১জন করোনা আক্রান্ত ও ১ জনের মৃত্যু

    কোভিড-১৯ ভাইরাসে বুধবার ১২ আগষ্ট নতুন করে ৬১ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ সময়ে ১ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন। করোনা ভাইরাসে মৃত ব্যক্তির নাম সমীর সিং। সে যশোর শহরের পুরাতন কসবা এলাকার বাসিন্দা। বুধবার তিনি মারা গেছে বলে সিভিল সার্জন অফিসের পরিসংখ্যানবিদ হাইয়ূম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। সমীর সিং গত ৩ আগষ্ট করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন। এ নিয়ে যশোর জেলায় করোনা ভাইরাসে নিহত হয়েছেন ৩৩জন। আক্রান্ত হয়েছে ২৩৮৯ জন। সুস্থ্য হয়েছেন ১৩০৮জন। বুধবার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টার থেকে ১৪৯ নমুনার রিপোর্ট প্রদান করেন। যার মধ্যে ৬১জন পজিটিভ। এর মধ্যে যশোর অভয়নগর উপজেলায় ২৩জন, সদর উপজেলায় ১২জন, চৌগাছা উপজেলায় ৯জন, কেশবপুর উপজেলা ও শার্শা উপজেলায় ৮জন করে এবং বাঘার পাড়া উপজেলায় ১জন রয়েছে। সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে আরো জানাগেছে,মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট যশোর জেলা থেকে ১৪০টি নমুনা সংগ্রহ করে ও ১২ আগষ্ট বুধবার ২০৯টি নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। এ যাবত যশোর জেলায় করোনা ভাইরাসে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে ১৭৭জন আক্রান্ত হয়েছে বলে সিভিল সার্জন অফিস থেকে বলা হয়েছে।

    ২৩নং ওয়ার্ড আ’লীগের প্রস্তুতি সভা

    ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও ২৫শে আগস্ট শহীদ এ্যাডঃ মঞ্জুরুল ইমাম এর শাহাদাৎ বার্ষিকী পালনের জন্য ২৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ এর উদ্যোগে বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ এর সভাপতি চৌধুরী মিনহাজ-উজ জামান সজল ও সভা পরিচালনা করে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ ফয়েজুল ইসলাম টিটো। সভায় সর্বসম্মতি ক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারবর্গের শাহাদাৎ বার্ষিকীতে খুলনা মহানগর ও সদর থানা আওয়ামী লীগ এর নির্দেশনা অনুযায়ী সকল কর্মসুচিতে অংশগ্রহনসহ ওয়ার্ডের প্রতিটি মসজিদে বিশেষ দোয়া এবং মন্দির ও গীর্জায় বিশেষ প্রার্থনা আয়োজন করা হবে এবং ২৫ শে আগস্ট শহীদ এ্যাডঃ মঞ্জুরুল ইমাম এর শাহাদাৎ বার্ষিকীতে জোহরবাদ মতি মসজিদে দোয়া মহফিল ও দোয়া শেষে সামসুর রহমান রোডস্থ তার বাড়ির সামনে তোবারক বিতরণ করা হবে।এছাড়াও ১৫ই আগস্ট কে সামনে রেখে ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা প্যানা,ফেস্টুন তৈরি করতে চাইলে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারবর্গ ব্যতীত অন্য কোনো ছবি ব্যবহার না করতে পারবে না বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান মন্টু, আহাদ আলী, রতন মিত্র, আনোয়ার হোসেন সোনা, শেখ সমসের আলী, বিপ্লব সাহা লব, ইকবাল করীর লিটন, রাজিব সাহা, রুশিয়া রহমান, শফিকুল ইসলাম সুমন, জলিল মোল্লা, গোলাম মোরশেদ, আনোয়ার হোসেন, সাইফুল উজ্জামান, মানিরুজ্জান খান, অসিম শীল, শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জনি, প্রনব চক্রবর্তী, মোঃ হাফিজুর রহমান, বাপ্পি রায়, সোভন কর, লিমন হাসান প্রমুখ।

    যশোরে জাল রেভিনিউ স্ট্যাম্প উদ্ধার : গ্রেফতার-৩

    র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের একটি চৌকস দল বুধবার ১২ আগষ্ট বিকেলে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বেনাপোল কাস্টম অফিসের সামনে থেকে জাল রেভিনিউ স্ট্যাম্পসহ ৩ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে। এরা হচ্ছে, যশোর বেনাপোল পোর্ট থানাধীন নামাজ গ্রামের রুহুল আমীনের ছেলে উজ্জল হোসেন, একই থানার গয়রা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে শামীম হোসেন ও শার্শা উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের শামছুজ্জামান বিশ^াসের ছেলে কামরুজ্জামান সুমন। র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্প সূত্রে জানাগেছে, বুধবার বিকেল ৩ টায় গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বেনাপোল পোর্ট থানাধীন কাস্টম অফিসের সামনে থেকে উক্ত ৩ আসামীকে গ্রেফতার করে। পরে তাদের দখল হতে একটি খাকি খামের মধ্যে থাকা ৯৬৪ জাল স্ট্যাম্প ও বাংলাদেশ কোর্ট ফি লেখা উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত কোর্ট ফি’র মূল্য ১৯ হাজার ২শ’ ৮০ টাকা। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃতরা র‌্যাবের কাছে স্বীকার করে তারা দীর্ঘদিন যাবত গোপনে জাল রেভিনিউ স্ট্যাম্প ব্যবসার সাথে জড়িত। পরে তাদেরকে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেন।

    যশোরে অভিনব কায়দায় দুই ভাইয়ের মাদক ব্যবসার অভিযোগ

    যশোর সদর উপজেলার ঝুমঝুমপুরে রাজনৈতিক পদ ও ধর্মীয় লেবাসের আড়ালে বাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে দুই ভাইয়ের অভিনব কায়দায় মাদক ব্যবসা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী, হামলা এবং মামলায় স্থানীয়রা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। প্রকাশ্যে মাদকদ্রব্য বিক্রি হলেও চিহ্নিত সন্ত্রাসী দুই ভাইয়ের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।

    এলাকাবাসী জানায়, ২০১৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের একটি দল ঝুমঝুমপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী জাবেদের বাড়িতে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে জাবেদ পালিয়ে গেলেও তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দুই রাউন্ড গুলি, একটি বিদেশী পিস্তল, দুটি মোটরসাইকেলসহ তার সহযোগী সুমন, মেজবাউল ও ইমরান হোসেন সবুজকে আটক করে। মুক্তিপণের দাবিতে এক কিশোরকে তার ঘরে বন্ধি করে রাখার অভিযোগে র‌্যাব অভিযান চালায়। বন্ধি ওই কিশোরকে এসময় উদ্ধার করা হয়। এভাবে মুক্তিপণের দাবিতে শিশু, কিশোর ও কিশোরী অপহরণ করে তার বাসায় রেখে দেয়।

    যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্র হত্যা মামলার আসামি জাবেদ এবং তার ভাই সেলিম অভিনব কায়দায় ইয়াবা ব্যবসা করছে করছে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। এর মধ্যে সেলিম তাবলিক জামায়াতের লেবাসের আড়ালে বড় বড় ইয়াবা চালানের বেচাকেনা করছে। বর্তমানে তাদের বাড়ির সামনে চান্দের মোড়ে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে দেদারসে মাদক ব্যবসা করছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। জাবেদ ঘরের মধ্যে বসে থাকে। তার বাড়ির সামনে চান্দের মোড়ে পুলিশ বা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন আসলে সে ঘরের পিছন থেকে বের হয়ে যায়। ফলে সে ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে যাচ্ছে।

    তাছাড়া রাজনৈতিক ব্যানারে থাকা চাঁদাবাজ জাবেদের রয়েছে ইয়াবা পাচারের বাহিনী। এর মধ্যে বজলুর ছেলে রাজু, ইজিবাইক চোর সবুজ, হামিদের ছেলে হেকমত, হাবিবের ছেলে নাসির, বাহাউদ্দিনের ছেলে রনি, রানির ছেলে সোহেল, জিল্লু এক প্রকার প্রকাশ্যে মাদক বেচাকেনা করে। এছাড়া বিভিন্ন অঞ্চলেও রয়েছে তার ইয়াবা বাহিনী। তার এ ইয়াবা বিক্রির টাকা একটি অংশ পাচ্ছে প্রশাসনের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তারা। জাবেদ পুলিশের অনেক কর্মকর্তারা প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছে বলে তার লোকজন বিভিন্ন মহলে প্রচার করছে।

    এছাড়া ঝুমঝুপুর এলাকায় কেউ জমি বা বাড়ি করতে গেলে জাবেদকে চাঁদা দেয়া লাগছে। সম্প্রতি ফলব্যবসায়ী খোকন চাঁন্দের মোড়ে জমি কিনে বাড়ি তৈরি করতে গেলে তার কাছ থেকে ১ লাখ টাকা চাঁদা নিয়েছে। আক্তার নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা চাঁদা নিয়েছেন। কেউ বাড়ি করতে গেলে তাকে চাঁদা দিতে হচ্ছে।

    যশোর পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, জাবেদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। তার বিষয়ে সকল তথ্য রয়েছে পুলিশের কাছে। যে কোন মুহূর্তে তার বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হবে বলে জানা গেছে।

    খুলনা বেতারের আঞ্চলিক পরিচালকের শুদ্ধাচার পুরস্কার অর্জন

    বাংলাদেশ বেতার, খুলনা কেন্দ্রের আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ বশির উদ্দিন ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের জন্য বাংলাদেশ বেতার ঘোষিত শুদ্ধাচার পুরস্কার অর্জন করেছেন। শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান নীতিমালা ২০১৭ অনুযায়ী, গত অর্থবছরে বাংলাদেশ বেতারের সকল কেন্দ্র ও ইউনিট প্রধানের মধ্য থেকে তিনি এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন।

    মোঃ বশির উদ্দিন বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের তথ্য ক্যাডারের ১৫ ব্যাচের কর্মকর্তা। তিনি ২০১২ সালে আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ বেতার, খুলনা কেন্দ্রে যোগদান করেন। যশোর, নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতীরার আবহমান সংস্কৃতি প্রচার ও প্রসারের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশ বেতার, খুলনা কেন্দ্রকে শ্রোতাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধের উপর শ্রোতাপ্রিয় অনুষ্ঠান সম্প্রচারে অবদান রাখায় তাঁর নের্তত্বে বাংলাদেশ বেতার, খুলনা কেন্দ্র ২০১৩ সালে খুলনা সিটি কর্পোরেশন ঘোষিত মেয়র পদক-২০১৩ অর্জন করে। এছাড়াও তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বে খুলনা বেতার জনসংখ্যা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ অর্জন করে।

    আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে যোগদানের পর থেকেই মোঃ বশির উদ্দিন লোকনন্দিত লোক গান শিরোনামে একটি অনুষ্ঠানের সূচনা করেন, যার মাধ্যমে তিনি এ অঞ্চলের হারিয়ে যাওয়া গান সংরণের উদ্যোগ নেন। তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ বেতার সমৃদ্ধ হয় পাগলা কানাই, পাঞ্জু শাহ, দুদ্ধ শাহ, বেহাল শাহ ও মোসলেম বয়াতির গানে। এছাড়া তিনি এ অঞ্চলের বিয়ের গান, কবি গান, হালৈ ও অষ্টকগান প্রচার ও সংরণের ব্যবস্থা করেন। এেেত্র তিনি এসব গানের মূল শিল্পী বা তাঁদের শিষ্যদের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে খুঁজে স্টুডিওতে এনে মূল সুরে গান রেকর্ডের উদ্যোগ নেন। এছাড়া, তিনি বাংলাদেশ বেতার সদর দপ্তরের সানুগ্রহে এ অঞ্চলের বিশ্বখ্যাত সাধক ও বাউল লালন ফকির ও পাগল বিজয় সরকারের গান প্রচারের জন্য নির্দিষ্ট অনুষ্ঠান সূচীতে বিশেষ চাঙ বা নির্ধারিত সময়ের ব্যবস্থা করেন। নিয়মিত বিরতিতে খুলনা বেতারের বিভিন্ন শাখায় অডিশন ও গ্রেডেশনের মাধ্যমে তিনি এ অঞ্চলের যোগ্য শিল্পীদের বাছাইয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।

    বাংলাদেশ বেতার, খুলনা অঞ্চলের আওতাভুক্ত ১০টি জেলার অধিকাংশ জায়গায় বেতার শ্রোতাকাব ও কিশোর-কিশোরীদের নিয়ে কৈশোরের অগ্রদূত বেতার শ্রোতাকাব গঠনের মাধ্যমে মোঃ বশির উদ্দিন বেতারকে প্রান্তিক মানুষের কাছে পৌছে দিয়েছেন। তিনি আঞ্চলিক পরিচালক থাকাকালে বাংলাদেশ বেতার, খুলনা ইউনিসেফের সহায়তায় উপকূলীয় দুর্গম এলাকার স্কুলগুলোর ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে কুইজ প্রতিযোগিতা, জীবন দতা প্রশিণ, মৌলিক আচরণগত বিষয়ে প্রশিণ কার্যক্রমও পরিচালনা করেন।

    ফকিরহাটের টাউন নওয়াপাড়া গোবিন্দ মন্দিরে প্রার্থনা

    বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সুযোগ্য সভাপতি স্বপন দাশ এর সুস্থ্যতা কামনায় টাউন নওয়াপাড়া বাজার গোবিন্দ মন্দিরে প্রার্থনা সভা ও প্রসাদ বিতরন করা হয়েছে। বুধবার রাত ৯টায় এই প্রার্থনা সভা ও প্রসাদ বিতরন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ ঘোষ, পিলজংগ ইউনিয়ন আ,লীগের সভাপতি প্রভাষক অঞ্জন কুমার দে, সাধারন সম্পাদক মোড়ল জাহিদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি অলোক কুমার সেন, যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক প্রভাষক সুমন কুমার ধর, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোশারেফ হোসেন, কোষাধক্ষ রানা কুমার দে, শিক্ষক রিংকু কুমার চক্রবর্তী, সুপ্রভাত চক্রবর্তী, মন্দির কমিটির প্রধান উপদেষ্টা মিলন ঘোষ, সভাপতি দীপক কুমার দাশ ও সাধারন সম্পাদক সুশীল কুমার দাশ সহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

    শিরোমণিতে নিজ সন্তান কর্তৃক নির্মমভাবে নির্যাতিত গর্ভধারিনী বৃদ্ধা মা মনোয়ারা বেগম

    নগরীর খানজাহান আলী থানধীন শিরোমনি পূর্বপাড়ার বাসিন্দা ও বন্ধকৃত মহসেন জুট মিলের তাঁত বিভাগের শ্রমিক জালাল শেখ (৯০) এর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৭০) কে নিজ সন্তান কর্তৃক নির্মমভাবে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জালাল শেখ স্ত্রী মনোয়ারা বেগম জানান তাঁর বড় ছেলে উজ্জলকে স্বামীর জমি বিক্রি করা ৪ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা জমা রাখা হয়। টাকা দেয়ার সময় ষ্টাম্পে লিখিত থাকে আমার স্বামী এবং আমি জীবিত থাকা কালিন আমাদের ভরণ পোষণসহ যাবতীয় দায়ীত্ব বড় ছেলে উজ্জল পালন করবে। কিন্তু বড় ছেলে উজ্জল ভরণ পোষণতো দেয়ই না উপরন্ত ঔষধ পত্র বা কোন কিছু চাইলে ঘাড় ধরে ধাক্কা দেয়। এ নিয়ে চার বার নিজের ছেলের হাতে মার খেলাম। মনোয়ারা বেগমের বড় মেয়ে মোসাঃ বেগম (৪৫) বলেন আমার পিতার জমি বিক্রি করে আমরা ৫ ভাইবোন সিদ্ধান্ত নিয়ে বড় ভাই উজ্জলের কাছে ৪ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা দিয়েছিলাম মা বাবা যত দিন বেচে থাকবে তাদের ভরণ পোষণসহ যাবতীয় খরচ বহন করার জন্য। কিন্তু বড় ভাই উজ্জল সেটা না করে উল্টো মা’কে মারধোর করে। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পুত্র উজ্জলের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে । এব্যপারে এলাকার জনপ্রতিনিধিসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গেও আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১