• শিরোনাম

    চা-বাগানের বিন্দাঃ লাবণ্য কান্তা

    | ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০


    চা-বাগানের বিন্দাঃ লাবণ্য কান্তা

    চা-বাগানের বিন্দা
    লাবণ্য কান্তা

    বাবুকে কাকা, এ বাবুকে কাকা! কাঁহা গেলি তুঁ?
    তোকে একটা কথা বলতে আসিছি।
    হ্যাঁ রে বিন্দা তুঁ, এখন কেনে এলি?
    সকাল বেলাটাতে কি হইছে ?
    কি কথা বলবি, বল জলদি করে বল
    হামার ম্যালা কাজ আছে।


    বলছি, তুঁ কাল যাবি রেমা বাগানটাতে
    হামাকে লিয়ে যাস লগে করে।

    উঁহা তুঁ কেনে যাবি বিন্দা ?
    মেয়ে ছেলে সেখানটাতে গিয়ে কি হবেক?
    হামি যাবো বলছি, তুঁ হামাকে লিয়ে যাস।
    না বিন্দা, তুঁ ইসব বাতচিত নাই করবি,
    উ-সব জাগার পথঘাট ভালা নাই লাগে বুঝলি।
    রেমা বাগানটাতে গাঙ পার হয়ে করে
    যেতে হবেক, তুঁ গাং পার হতে নাই পারবি।


    হামি পারবো বাবুকে কাকা!তুঁ শুধু হামাকে
    লগে করে লিয়ে যাস।
    তুঁ তো জানিস, হামার দিদিটাকে হামার বাপু
    রেমা বাগানটাতে বিহা দিসে।
    বড়দিদিটা বিহা হয়ে সেই যে গেলো শ্বশুরবাড়িটাতে
    রেমা বাগানটাতে …
    বাপু তাকে একবার দেখতেও গেলো না।
    দিদিটা বড় দুখে আছে বাবুকে কাকা!
    মা বলেছে তোর লগে গিয়ে হামি দিদিকে
    দেখে আসবো আর আম, কাঁঠাল, কাঁচাকলা,
    আনারস এসব মা দিদির লাগি রাখিছে।

    দেখ বিন্দা, হামার বাত-টা তুঁ নাই বুঝিস …
    হামাকে সদরে যেতে হবেক,
    রেমা বাগানটা বন্ধ আছে,
    শ্রমিক খেতে নাই পারছে; শ্রমিকের মরণদশা হইছে
    কর্মসূচি আছে, যোগদান করতে হবেক।
    হামিও যাবো সদরে, শুধু একটাবার দিদিকে দেখে
    তোর সাথে হামিও যাবো সদরে।
    তোর সাথে সদরে যাবো,
    তাইজন্য তো মা-কে আর বাপুকে
    বলে কয়ে রাজিটা করাইছি,
    হামিও যাবো সদরে তোর সাথে।


    দেখ বিন্দা, হামি এক কথা বার বার নাই বলি __
    তুঁ ঘরে যা, কর্মসূচিতে তোকে যেতে নাই হবেক;
    মেয়েছেলে সেইখানে গিয়ে কি হবেক ?

    দেখ বাবুকে কাকা, কান খুলে শুনে রাখ,
    হামি যাবো যাবো যাবো… সদরে যাবোই যাবো।
    কর্মসূচিতে যাবো বলে বাপুকে পায়ে-হাতে ধইরে
    রাজিটা করাইছি …
    এখন তুঁ কি না হামাকে বাধ সাধিস ?

    হুম, বাধ সাধি, হামি তোকে বিহা করবো
    ই কথা তোর বাপুও জানে, তোর মা টাও জানে,
    সদরে কত ছেলেপিলে আসবে,
    তোকে সেখানে লিতে নাই পারবো।

    কিন্তু হামি কর্মসূচিতে যেতে চাই বাবুকে কাকা,
    হামি চিৎকার করে বলতে চাই
    হামাদের অধিকারের কথা।
    হামাদের ওপর জুলুম হচ্ছে …
    তোরা পুরুষ মানুষগুলান হামাদেরকে
    বাধ সেধে সেধে পায়ে শিকল দিয়ে রাখলি জীবনভর,
    আর ইদিকে তো __
    মালিক-সাহেব-বাবু হামাদেরকে না খাইয়ে রাখিছে।
    হামি সদরে যাবো
    শ্লোগান দেবো, তুঁ হামাকে লিয়ে যাবি
    এই হামার শেষ কথাটা।

    বাবুকে কাকা বলে বলে তো হামার মাথাটা খাইলি বিন্দা,
    এখন নেত্রী হতে চাস,
    হামার মরণ দেখবি তুঁ?

    ওমা! তোর মরণের কি আছে ইখানে?
    হামি নেত্রী হলে মরণের কি আছে?
    হামাদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবেক,
    নেত্রী হবো কেনে?
    অধিকারের কথা বলতে গেলে কি নেত্রী হতে লাগে?
    শ্রমিক নাই খেয়ে মরছে, হামাদের অধিকারের কথাটা বলতে হবেক
    তুঁ হামাকে বিহা করলে করবি,
    না করলে নাই করবি, নেত্রী হামি হবো।
    হামার বাপু বলেছে, হামি আন্দোলনে যাবো,
    হামাদের অধিকারের কথা বলবো।
    ঘরে যাই, তুঁ হামাকে লিয়ে গেলেও যাবো,
    না লিয়ে গেলেও যাবো
    আন্দোলনে হামি যাবোই যাবো, একলাই যাবো।

    বিন্দা, বলি এ বিন্দা….
    শোন, একটা কথা শোন, শোনে যা বিন্দা!
    যাসনে বিন্দা, এ বিন্দা, বিন্দা একটু দাঁড়া বিন্দা।

    হামি আর কোনো কথাটা নাই শুনবো বাবুকে কাকা!
    তুঁ ফিরে যা, হামি আর তোর কাছে নাই আসবো
    আর তোকে বাবুকে কাকা বলে বিরক্তটাও
    নাই করবো, হামি আন্দোলনে যাবো
    ই কথাটা তোকে বলে গেলাম; আর তুঁ যে হামাকে
    বিন্দা বিন্দা বলে মাথাটা খাস, ই কথাটা তো নাই বললি একটাবার।
    তুঁ হামাকে ভুলে যা বাবুকে কাকা, ভুলে যা, ভুলে যা।
    হামি বিহা নাই করবো।
    বিন্দা শোন, একটু দাঁড়া বিন্দা, এ বিন্দা, যাসনে এমন করে, বিন্দা, বিন্দা, বিন্দা এ তুঁ কি করলি বিন্দা!

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১