• শিরোনাম

    জাতিসংঘ জানিয়েছে, লেবাননের অর্ধেকের বেশি নাগরিক খাদ্য সঙ্কটের মুখোমুখি হতে পারে

    গাংচিল আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ৩১ আগস্ট ২০২০


    জাতিসংঘ জানিয়েছে, লেবাননের অর্ধেকের বেশি নাগরিক খাদ্য সঙ্কটের মুখোমুখি হতে পারে

    গতকাল রবিবার জাতিসংঘের একটি সংস্থা জানিয়েছে, বৈরুত বন্দরের বিস্ফোরণের পর লেবাননের অর্ধেকেরও বেশি জনসংখ্যার খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে।

    জাতিসংঘের পশ্চিম এশিয়ার অর্থনৈতিক ও সামাজিক কমিশন (ইএসসিডব্লিউএ) বলেছে, চলতি বছরের শেষ নাগাদ দেশটির অর্ধেকেরও বেশি জনসংখ্যা তাদের মৌলিক খাদ্য যোগানে ব্যর্থ হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।


    ইএসসিডব্লিউএ’র নির্বাহী সম্পাদক রোলা দাশতি বলেছেন, খাদ্য সংকট রোধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত।

    তিনি জানিয়েছেন, লেবাননের সরকার অবশ্যই দেশের বৃহত্তম শস্য সংগ্রহস্থল বৈরুত বন্দরে সাইলো পুনর্নির্মাণকে অগ্রাধিকার দেবে।


    তবে বৈরুত বন্দরে ৪ আগস্টের ভয়াবহ বিস্ফোরণের আগেও লেবাননের অর্থনৈতিক পতন ঘটেছিল। বিস্ফোরণের কারণে ১৮৮ জন মানুষ নিহত হয়েছিল, হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছিল এবং রাজধানীর বিভিন্ন অঞ্চল ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল।

    স্থানীয় কালোবাজারে মুদ্রার মূল্য হ্রাস পাওয়ায় এবং দারিদ্র্যের হার বেড়ে যাওয়ায়, লেবানন তার ঋণ পরিশোধ করতে অক্ষম হয়। করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে এই সঙ্কট আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।


    ইএসসিডব্লিউএ এক বিবৃতি অনুযায়ী, ২০২০ সালের বার্ষিক গড় মূল্যস্ফীতির হার ৫০ শতাংশের বেশি হবে বলে আশা করা হচ্ছে যা ২০১৯ সালের তুলনায় অনেক বেশি।

    সহায়তা সংস্থা এবং বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, লেবানন তার খাদ্য চাহিদার ৮৫ শতাংশ আমদানির উপর নির্ভর করে এবং বৈরুত বন্দরে সাইলো ধ্বংসের ফলে ইতিমধ্যে এই ব্যাপারে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে চলেছে।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১