• শিরোনাম

    দৈনিক খুলনা

    দি গাংচিল ডেস্ক | ১২ আগস্ট ২০২০


    দৈনিক খুলনা

    নগরীতে মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত

    মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ৫২৪৬তম শুভ আবির্ভাব জন্মাষ্টমী তিথি পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার মধ্যরাতে নগরীর বাইতিপাড়ার জটাধারী বেদ আশ্রমের প্রধান অফিসে এ জন্মাষ্টমী তিথি পালিত হয়। জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকলের মঙ্গলার্থে দুষ্টের দমন সৃষ্টির পালন এবং সাধুগণকে রক্ষাসহ ধর্মকে সংস্থাপনের জন্য তিনি এই ধরায় আর্বিভুত হয়েছিলেন। প্রভাতে মাঙ্গলিক ক্রিয়া, মধ্যহ্নে মহানাম সংকীতর্ন, রাতে পুজা, আজ বুধবার প্রসাদ বিতরণ।


    আশ্রমের সেবাইত সমেন দেবনাথ সরকারের নির্দেশনা মেনে যত সম্ভব সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মন্দিরে অবস্থান নেয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানান। পাশাপশি কোভিড-১৯ এর কারণে মন্দিরে অযথা ভীড় না করে প্রত্যেকে তাদের নিজ নিজ ঘরে ঘরে মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের পূজা করার জন্য বিনীত অনুরোধ করেন। যে ভাবে গোপীরা সংগোপনে তাদের হৃদয় মন্দিরে কৃষ্ণ পূজা করে জীবন ধন্য করেছেন সে ভাবে সবার মঙ্গল কামনায় তিনি বলেন, “ বিশ্ব মহাবিশ্ব থেকে ক্ষুদ্রাদি ক্ষুদ্র তৃণ পর্যন্ত রোগ মুক্ত হোক আমার এই প্রার্থনায়”। মনের ব্যাকুলতা দিয়ে ঈশ্বরকে যাহা প্রদান করা হয় তাহা তিনি ভক্তের মাধ্যমে গ্রহণ করে। সনাতন ধর্মের ভক্তরা এই বিশ্বাস করেন। দিনটি হিন্দু সম্প্রদায়ের (সনাতন) ধর্মালম্বীরা ভাবগম্ভীর্য সহকারে পালিত হয়। মন্দিরের বাহির অভ্যান্তরে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূজা প্রার্থনাসহ যাবতীয় ক্রিয়া সুসম্পন্ন করেন উমা দেবনাথ, সৌমিত, সোমা, মনিষা, বিশ্বজিৎ,

    সৌম্যজিৎ, সরজিৎ, সুকুমার, মিলন, আশুতোষ, বিপ্লব, কাকুলী, জয়া, বীনা পানি দেবী প্রমুখ।


    সাতক্ষীরায় ইজিবাইক চালক হত্যার ঘটনায় চার জনকে আসামী করে মামলা, আটক-১

    নিখোঁজের ১০ দিন পর সাতক্ষীরার বাঁকাল এলাকার একটি পরিত্যক্ত ইট ভাটার সেফটি ট্যাংক থেকে স্কুল ছাত্র ও ইজিবাইক চালক ময়নুর রহমানের গলিত লাশ উদ্ধারের ঘটনায় চার জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। সোমবার রাতে নিহতের বাবা সুরত আলী বাদী হয়ে এক জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো তিন জনের নামে এ মামলাটি দায়ের করেন। ইতিমধ্যে এ মামলার অন্যতম আসামী হুমায়ন কবিরকে তার শ^শুর বাড়ি শ্রীরামপুর থেকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক পুলিশ সদর উপজেলার বাঁকাল এলাকার জয়েন্ট ব্রিকস নামক একটি পরিত্যক্ত ইট ভাটার সেফটি ট্যাংক থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।


    গ্রেফতারকৃত আসামী হুমায়ন কবির (৩৬) সদর উপজেলার আলীপুর গ্রামের আহাদ আলীর ছেলে।

    পুলিশ জানায়, ঈদের আগের দিন গত ৩১ জুলাই সদর উপজেলার পাঁচরকি গ্রামের সুরত আলীর ছেলে ও মীর্জাপুর আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শেনীর ছাত্র ময়নুর (১৬) তার লেখা পড়া শেষ করে বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে বড় ভাইয়ের ইজিবাইকটি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে সাতক্ষীরা শহরের দিকে আসে। এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন স্থানে ইজিবাইক ভাড়ায় চালানোর পর সে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় পরদিন পহেলা আগষ্ট (ঈদের দিন) ময়নুরের চাচা আফছার আলী সদর থানায় ময়নুর নিখোঁজের হয়েছে মর্মে একটি জিডি করেন। জিডির সূত্রধরে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে সদর থানা পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে হুমায়ন কবিরকে তার শ^শুর বাড়ি শ্রীরামপুর থেকে আটক করেন। একই সঙ্গে উদ্ধার করেন ময়নুরের ইজিবাইক। এরপর তার দেয়া স্বীকারোক্তি মোতাবেক বাঁকাল এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ইট ভাটার সেফটি ট্যাংক থেকে ময়নুরের লাশ উদ্ধার করা হয়।

    সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় নিহতের বাবা সুরত আলী বাদী হয়ে এক জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো তিন জনের নামে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তিনি আরো জানান, নিহতের লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

    বেনাপোল বন্দর দিয়ে সকাল থেকে দু দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বানিজ্য বন্ধ

    বেনাপোল বন্দর দিয়ে সকাল থেকে দু দেশের মধ্যে আমদানি রফতানি বানিজ্য বন্ধ রয়েছে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দেবতা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে। তবে বেনাপোল বন্দরেও মালামাল ডেলিভারি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ্ বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে বেনাপোল বন্দর কর্তৃপক্ষ।

    বেনাপোলের ওপারে বন্দরে প্রবেশের অপেক্ষায় শতশত পচনশীল পন্য সহ বিভিণœ পন্যবোঝাই ট্রাক দাড়িয়ে আছে বনগাও কালিতলা পার্কিংএ। কাস্টমস কর্তৃপক্ষ বন্দরের ভেতর বিভিণœ পন্য চালান পরীক্ষন কাজ আগাম সম্পন্ন করছেন। বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার জানান, শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি ও রফতানি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। বুধবার সকাল থেকে স্বাভাবিক নিয়মে এ বন্দর দিয়ে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হবে।

    বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন খান জানান, বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও সীমিত আকারে যাত্রী ভ্রমণের অনুমতি আছে, তারা যাতায়াত করছেন। বেনাপোল কাস্টমস এর সহকারী কমিশনার আকরাম হোসেন জানান, শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বেনাপোল বন্দরের সঙ্গে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের বানিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধ আছে। বুধবার সকাল থেকে আবারও আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হবে।

    যশোরে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় ২ মোটরসাইকেল আরোহি মারা গেছে

    যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের দুই আরোহী। মঙ্গলবার বিকালে বেনাপোল-যশোর মহাসড়কের ঝিকরগাছা উপজেলার বেনেয়ালি গির্জার সামনে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, যশোর শহরের সার্কিট হাউজ পাড়ার মোটরসাইকেলটির চালক কাজী মুশফিক মাহবুব (২৪) ও তার বন্ধু যশোর শহরের মিশনপাড়ার কাব্য দাস (২৮)।

    পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার বিকেলে মাহবুব ও কাব্য দাস বেনাপোল থেকে মোটরসাইকেলে করে যশোরে আসছিলেন। পথে ঝিকরগাছার বেনেয়ালি গির্জার সামনে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা বেপরোয়া গতির একটি কাভার্ডভ্যান তাদের মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়।ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

    সুন্দরবনে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার করায় ৯ জেলে আটক

    পূর্ব সুন্দরবনে অবৈধ অনুপ্রবেশ করে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার করায় ৯জেলেকে আটক করেছে বনবিভাগ। সোমবার বিকালে পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের কটকা অভয়ারণ্যের বেতমোড় খাড়ির খাল এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটক জেলেদের কাছ থেকে ২টি ইঞ্জিনচালিত নৌকা ও ১০টি জাল উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় তাদেরকে বাগেরহাট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

    আটক জেলেরা হলেন, মো. শহিদুল তালুকদার, হাসান মিয়া, সাদ্দাম হাওলাদার, রাসেল মাতুব্বর, রাজু আকন, আসিব হাওলাদার, রাজু মীর, আসলাম মীর ও মিলন খান। আটককৃতরা বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের সোনাতলা গ্রামের বাসিন্দা বলে জানিয়েছে বনবিভাগ।

    পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বনসংরক্ষক (এসিএফ) মো. জয়নাল আবেদীন জানান, বর্তমানে সুন্দরবনের সব ধরণের মৎস্য আহরণে দুই মাসের নিষেধাজ্ঞা চলছে। কিন্তু এসব অসাধু জেলেরা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকারে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে কটকা অভয়ারণ্য কেন্দ্রের বনরক্ষীরা তাদেরকে আটক করে। তিনি আরো জানান, আটক জেলেদের বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশ ও বন আইনে মামলা দিয়ে বিভাগীয় বন অফিসের মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

    বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসীর ৩১ সদস্য বিশিষ্ঠ কমিটি গঠণ

    বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসীর ৩১ সদস্য বিশিষ্ঠ নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত কমিটির সভাপতি হলেন মোহাম্মদ আরিফ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহবুবুর রহমান খোকন।

    গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২টায় শেরে বাংলা রোডস্থ তেতুলতলা মোড়ে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে সংগঠনের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ইমতিয়াজ আলি খোকনের সভাপতিত্বে ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে নতুন কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ইমতিয়াজ আলি খোকন, সহ-সভাপতি জি এম মহিউদ্দিন, কাউন্সিলর মাজেদা খাতুন, কবি সৈয়দ আলি হাকিম, এ্যাডভোকেট কাজী আমিনুল ইসলাম, আব্দুস সালাম আকন শিমুল, মো. সিরাজুল ইসলাম, শেখ হেদায়েত হোসেন হিদু ও ডা. আব্দুস সালাম, যুগ্ম-সম্পাদক মোহাম্মদ আলি, এস এম মিজানুর রহমান, মো. মনির হোসেন, শেখ হেমায়েতুল ইসলাম ও এম এ জলিল, সাংগঠনিক সম্পাদক শাকিল আহমেদ রাজা, দপ্তর সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম ভুট্রো, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মুন্সি আহমেদ হোসেন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. আবুল ফজল, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো. ফিরোজ আহমেদ, প্রকাশনা সম্পাদক মো. মাকসুদুল হক, প্রচার সম্পাদক মো. সবুজুল ইসলাম, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আলি হাফিজ, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মো. মীর কওসার মিজু, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. ইমরান হোসেন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ইসরাত আরা হীরা, ক্রীড়া সম্পাদক জমশের আলি খান খোকন, কার্যনির্বাহী সদস্য ডা. মো. নাসির উদ্দিন, মো. বাসিরুল ইসলাম ও ডা. সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু।

    সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহবুবুর রহমান খোকনের পরিচালনায় এবং যুগ্ম-সম্পাদক মোহাম্মদ আলির উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেন ও কাউন্সিলর মাজেদা খাতুন। এসময় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন নাজির আহমেদ সোহেল, ইকবাল আহমেদ, মো. নাসির আহমেদ, ইঞ্জিঃ শফিকুররহমান, শিক্ষক স্বদেশ সরকার, অধ্যাপক জাকির হোসেন, মাসুদ রানা, মো. নুরুল ইসলাম, মো. শফিক, এস এম হায়দার, এহতেশাম সালেক, মির্জা মাহমুদসহ সংগঠনের সকল সদস্যবৃন্দ।

    বাগেরহাটের শরণখোলায় শিশু ধর্ষণ চেষ্টায় যুবক আটক

    বাগেরহাটের শরণখােলায় শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে এসে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে (৯) ধর্ষণের চেষ্টা চালায় রফিকুল শেখ (৩০) নামের এক যুবক। সোমবার রাত ১১টার দিকে তাকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটে ওইদিন সন্ধ্যায় উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের রতিয়া রাজাপুর গ্রামে। শিশুটি স্থানীয় ইয়াসিন মেমোরিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

    রফিকুল শেখ মোরেলগঞ্জ উপজেলার পিসি বারইখালী গ্রামের মৃত গফুর শেখের ছেলে। সে সাত-আটদিন আগে রতিয়া রাজাপুর গ্রামে শ্বশুর শাহজাহান হাওলাদারর বাড়িতে বেড়াত আসে। পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে শিশুটি ওই বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় লম্পট রফিকুল তাকে জোর করে ধরে ফাঁকা ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় ঘরের মধ্যে চিৎকার শুনে তার শ্বাশুড়ি এগিয়ে আসলে শিশুটিকে ছেড়ে দেয় রফিকুল। পরে শিশুটি বাড়িতে গিয়ে মা-বাবাকে ঘটনাটি জানায়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা শরণখোলা থানায় অভিযোগ দায়ের করলে লম্পট রফিকুল শেখকে আটক করে শরণখোল থানা পুলিশ।

    শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস.কে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, এ ঘটনায় শিশুর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। রাতেই রফিকুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশুটিকে মেডিকেল টেষ্টের জন্য বুধবার বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

    করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক নারী স্বাস্থ্যকর্মীসহ দুই জনের মৃত্যু

    কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক নারী স্বাস্থ্যকর্মী ও উপসর্গ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে তারা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

    করোনা আক্রান্ত ওই নারী স্বাস্থ্যকর্মী হলেন, তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র নার্স মর্জিনা খাতুন (৫৭)। তিনি বরগুনা জেলার কাউনিয়া উপজেলার পূর্ব কাউনিয়া গ্রামের ইফসুফ আলীর স্ত্রী। আর কোভিড উপসর্গ নিয়ে যিনি মারা গেছেন তিনি হলেন, কলারোয়া উপজেলার সদরের মৃত বদর উদ্দীনের ছেলে রহমত আলী (৫০)।

    সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ত্বাবধায়ক ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, গত ১২ জুলাই কোভিড পজিটিভ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেরে সিনিয়র নার্স মর্জিনা খাতুন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে নেয়া হয় আইসিইউতে। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি রাতে মারা যান।

    এদিকে, জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ কোভিড উপসর্গ নিয়ে গত ৬ আগষ্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন কলারোয়ার রহমত আলী। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনিও রাতে মারা যান। ভর্তির পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হলেও এখনও তার রিপোর্ট পাওয়া যায়নি। তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্য বিধি মেনে তাদের লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

    সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন আফিসের তথ্য মতে, কোভিড আক্রান্ত হয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মারা গেছেন মোট ২৪ জন। এছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরো অন্তত ৬১ জন।

    মতবিনিময় সভায় বক্তারা

    ভুলনীতি-দুর্নীতি-লুটপাট বন্ধ করে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল অবিলম্বে চালু কর ও আধুনিকায়ন কর

    পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ, খুলনা’র উদ্যোগে “পাটশিল্পের বর্তমান প্রেক্ষিত এবং নাগরিক ভাবনা” শীর্ষক মতবিনিময় সভা মঙ্গলবার সকাল ১০টায় খুলনা প্রেস কাবের শহীদ সাংবাদিক হুমায়ুন কবীর বালু মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক এড. আ ফ ম মহসীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভা সঞ্চালনা করেন পরিষদের আহ্বায়ক এড. কুদরত-ই খুদা। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিষদের সদস্য সচিব এস এ রশীদ। মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত মানবাধিকার ও সংবিধান পরিপন্থী। করোনা মহামারীকালে শ্রমিকরা কর্মহারা হচ্ছে, প্রবাসী শ্রমিকরা দেশে ফেরৎ আসছে। এটা দেশের জন্য অশনি সংকেত। এ সময়ে রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধ করে শ্রমিক ছাঁটাই করার সিদ্ধান্ত এ সংকটকে আরও বৃদ্ধি করবে। এছাড়া পাটপণ্যের অভ্যন্তরীণ বাজার সৃষ্টির জন্য ‘মেন্ডেটরি প্যাকেজিং এ্যাক্ট’ কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করা দরকার। বক্তারা আরও বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকলসমূহকে পিপিপি বা ব্যক্তিমালিকানায় দেয়া সমাধান নয়। বরঞ্চ শ্রমিকদের ব্যবস্থাপনায় যুক্ত করে শ্রমিক-রাষ্ট্র যৌথ উদ্যোগে এসব পাটকল পরিচালনা করতে হবে।

    মতবিনিময় সভায় আলোচনা করেনÑসংবিধান প্রণেতা সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক খুলনা পৌরসভার চেয়ারম্যান প্রবীণ আইনজীবী এড. এনায়েত আলী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদির, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. শাহনেওয়াজ নাজিম উদ্দিন, প্রবীণ আইনজীবী এড. মঞ্জুরুল আলম, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি ডাঃ মনোজ দাশ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক শেখ সাদী ভূঁইয়া। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেনÑখুলনা উন্নয়ন ফোরামের চেয়ারপার্সন শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন, বিশিষ্ট সাংবাদিক আইনজীবী ড. জাকির হোসেন, কাজী মোতাহার হোসেন বাবু, অর্থনীতি সমিতির অধ্যাপক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, খুলনা অর্থনীতি সমিতির সম্পাদক শেখ মোঃ সেলিম, নারী নেত্রী রসু আক্তার, পরিবর্তন খুলনা’র সভাপতি অজন্তা দাশ, অধ্যাপক সুকুমার ঘোষ, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক মোজাম্মেল হক খান, বাংলাদেশ ইউনিয়ন ফেডারেশনের সভাপতি এম হুমায়ুন কবির, শ্রমিক-ছাত্র-জনতা ঐক্যের রুহুল আমিন, কাজী দেলোয়ার হোসেন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের আব্দুল করিম, ক্ষুধামুক্ত আন্দোলনের অধ্যাপক আহসান হাবিব, নাগরিক নেতা কবি সৈয়দ আলী হাকিম, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম কমিটির যুগ্ম মহাসচিব আফজাল হোসেন রাজু, খালিশপুর দোকান মালিক সমিতি’র সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, নারী নেত্রী জেসমিন জামান, সুতপা বেদজ্ঞ, কোহিনুর আক্তার কণা, পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক জনার্দন দত্ত নাণ্টু, আনিসুর রহমান মিঠু, এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার। আরও উপস্থিত ছিলেনÑমুনীর চৌধুরী সোহেল, মনিরুল হক বাচ্চু, আল-আমিন শেখ, মাহিলা আক্তার আনিকা, শেখ বরিউল ইসলাম, নাসির উদ্দিন সরদার, গাজী নওশের আলী, নূরুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, আলগীর কবির, জসিম গাজী, মোশাররফ হোসেন, অলিয়ার রহমান, এখলাস মোল্লা, কামরুজ্জামান বিশ্বাস, সামসাদ আলাম সামশের, এম এ কাশেম, সাংবাদিক ওয়াহেদ উজ-জামান, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন জেলা সম্পাদক প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, আজিজুল খান আরমান, শ্রাবণী আফরিন, নাহিমা আক্তার, মোঃ সমশের আলম, আগুয়ান-৭১ এর মোঃ আব্দুল্লাহ চৌধুরী, রাষ্ট্র চিন্তার আবিদ রহমান প্রমুখ।

    ঝিনাইদহে স্বামীর বাড়িতে সন্তান নিয়ে ৫ দিন যাবৎ স্ত্রীর অনশন, সুষ্ঠ বিচার দাবি

    ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলা উত্তর নারায়ণপুর গ্রামে স্বামীর বাড়িতে ৯ বছরের এক কন্যা সন্তান নিয়ে ৫ দিন যাবৎ অনশন শুরু করেছে তার স্ত্রী । গত বৃহস্পতিবার থেকে এই অনশন চালিয়ে যান তিনি। খোজ নিয়ে জানা যায়, ২০০৯ সালে সদর উপজেলার ডাকবাংলা উত্তর নারায়ণপুর গ্রামের মৃত খাদিমুলের ছেলে মেহেদী হাসান বাবুর সাথে পাশ্ববর্তী ডাকবাংলা বাজারের মৃত এহেসানুল হক এর মেয়ে রোকসানা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে তাদের ঘরে মেহেমিন মারিয়া নামের এক কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।

    স্ত্রী রোকসানা অভিযোগ করেন, ২০০৯ সালে আমরা সম্পর্ক করে বিবাহ করেছি। বিবাহের পর আমার শ্বশুর বাড়ির লোকজন মেনে না নেওয়ায় আমার স্বামী আমাকে নিয়ে ঝিনাইদহ শহরের পাগলাকানাই এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস ও সংসার করে আসছিল। পরে তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান জন্ম লাভ করে। এরই মাঝে গত কিছুদিন ধরে আমার স্বামী আমার সাথে কোন যোগাযোগ না করায় আমি আমার স্বামীর বাড়িতে আসি। আমাকে ওই বাড়িতে শ্বাশুড়ির নেতৃত্বে স্বামীর পরিবারের লোকজন আমার এবং আমার সন্তানকে আটকিয়ে রাখে। এ খবর পেয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঘটনাস্থলে পৌছে আমাকে তাদের কাছে বুঝিয়ে রেখে আসে। এ ঘটনায় বুধবার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বিচার শালিসের দিন ধার্য করা হয়েছে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে।

    তবে এসকল নির্দেশ উপেক্ষা করে আমার শ্বশুর বাড়ির লোকজন আমার এবং সন্তানকে ফেলে রেখে বাড়ি থেকে সরে পড়েছে। বর্তমান আমি ওই বাড়িতে সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমি এ ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি।

    ঝিনাইদহে করোনায় পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ২১

    করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ পুলিশের আরও এক গর্বিত সদস্য এএসআই (সশস্ত্র) দলিল উদ্দিন বিশ্বাস (৫৮) করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে। সে যশোর জেলার কোতয়ালি থানার নওদা গ্রামের বাসিন্দা ও ঝিনাইদহ পুলিশ লাইন্সে কর্মরত ছিলেন। মঙ্গলবার নতুন করে জেলায় আরও ২১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

    খোজ নিয়ে যানা যায়,করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনি গত ২৫ জুলাই রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি হন। তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। সোমবার দিবাগত রাতে করোনার সাথে যুদ্ধে হেরে গিয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

    বাংলাদেশ পুলিশের ব্যবস্থাপনায় মরদেহ মরহুমের গ্রামের বাড়ি পাঠানো হয়েছে। সেখানে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী পারিবারিক কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়েছে।

    করোনায় বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত সদস্য এএসআই (সশস্ত্র) মোঃ দলিল উদ্দিন বিশ্বাসের মৃতুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান (পিপিএম)সহ পুলিশ সদস্যবৃন্দ।

    ফকিরহাট উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও সহ ১৬৯জন শনাক্ত

    বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তানভীর রহমানের করোনা পজেটিভ হয়েছে। গত ৮আগষ্ট তার নমূনা সংগ্রহ করে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। পরীক্ষার ফলাফলে ১০আগষ্ট পজেটিভ হয়েছে। এর আগে গত ৮আগষ্ট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান স্বপন দাশ এর পজেটিভ এসেছিল। গত ৬ আগষ্ট তার নমূনা সংগ্রহ করে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। ৮আগষ্ট পরীক্ষার ফলাফলে তার পজেটিভ হয়। এছাড়াও জেলা পরিষদের প্যানলে চেয়ারম্যান-১ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শেখ আঃ রাজ্জাক তারও করোনা পজেটিভ হয়েছে। এপর্যন্ত ফকিরহাটে করোনা ভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে মোট ১৬৯জন। এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন ১০জন। মোট সুস্থ হয়েছেন এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন মোট ১৩১জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: অসিম কুমার সমাদ্দার। এদিকে বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দীন এর নির্দেশও পরামর্শে ১১আগষ্ট ভোরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান স্বপন দাশকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    দেশের সকল ধর্মের মানুষ নির্বিঘ্নে ধর্মীয় উৎসব পালন করছে: সিটি মেয়র

    ভক্তদের জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানিয়ে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, এ সরকারের আমলেই দেশের সকল ধর্মের মানুষ নির্বিঘেœ ও শান্তিপূর্ণভাবে ধর্মীয় উৎসব পালন করে যাচ্ছে। যা এ দেশকে একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ হিসেবে বিশ্বের কাছে সুপ্রতিষ্ঠিত। বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অত্যন্ত চমৎকার।

    মেয়র মঙ্গলবার দুপুরে খুলনার ধর্মসভা মন্দির প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ মহানগর শাখার উদ্যোগে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দুস্থ ও অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ এবং অক্সিজেন ব্যাংকের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

    সিটি মেয়র বলেন, শ্রীকৃষ্ণের জীবনের উদ্দেশ্য ছিল মানুষে মানুষে ভ্রাতৃত্ববোধ স্থাপন এবং সমাজে ন্যায় প্রতিষ্ঠা করা। শ্রীকৃষ্ণ আজীবন শান্তি, মানবপ্রেম ও ন্যায়ের জন্য কাজ করে গেছেন। আমাদের সংবিধানে সকল মানুষের সমানাধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের ঐতিহ্য। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুস্থ, অসহায়, শ্রমজীবী মানুষকে নগদ অর্থসহ বিভিন্ন খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে মুক্তি পেতে স্বাস্থ্যবিধি মানা, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং সবসময় মাস্ক ব্যবহার করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।

    খুলনা মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্যামল হালদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েলের পক্ষে তাঁর ব্যক্তিগত কর্তকর্তা ড. মোঃ সাইদুর রহমান এবং মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার কুন্ড। এসময় পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দসহ ভক্তবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    পরে সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে একশত ৫০ দুস্থ ও অসহায় পরিবারের মাঝে আট কেজি করে চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ এবং অক্সিজেন ব্যাংকের উদ্বোধন করেন।

    ভৈরব সেতুর গোড়া থেকে মাটি খনন হুমকির মুখে সেতু

    যশোরের অভয়নগরে ভৈরব সেতুর গোড়া থেকে মাটি খনন করায় হুমকির মুখে পড়েছে সেতুটি। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের একটি তদন্ত টিম খনন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। খননকৃত এলাকা ভরাটের আশ্বাস দিয়েছেন অভিযুক্ত ব্যক্তি।

    জানা গেছে, গত ১৫ দিন যাবত উপজেলার মশরহাটী গ্রামে ভৈরব সেতুর উত্তর-পূর্ব পাশের তিনটি পিলারের গোঁড়া থেকে পরশ আট-ময়দা কারখানার মালিক আনিসুর রহমান স্কেভেটর দিয়ে অবৈধভাবে মাটি কাটছেন। ওই মাটি রেলওয়ের জমিতে ফেলে ভরাটও করছেন। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার দুপুরে যশোর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চার সদস্যের একটি তদন্ত টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

    এ ব্যাপারে তদন্ত টিমের প্রধান অভয়নগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেএম রফিকুল ইসলাম জানান, যশোর জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমাদের ওপর তদন্ত করার দায়িত্ব দিয়েছেন। যার প্রেক্ষিতে আমিসহ তদন্ত টিমের সদস্য বিআইডব্লিউটিএ’র উপ-পরিচালক মাসুদ পারভেজ, উপজেলা প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম সরদার ও অভয়নগর থানার এসআই গৌতম কুমার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। এসময় ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত আনিসুর রহমানকে ঘটনাস্থলে তলব করা হয়। অভিযুক্ত আনিসুর রহমান তাঁর দোষ স্বীকার করে খননকৃত স্থান এক সপ্তাহের মধ্যে ভরাটের আশ্বাস দেন।

    উপজেলা প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম সরদার বলেন, ভৈরব সেতুর নকঁশা অনুযায়ী সেতুর তলদেশের মাঝ থেকে দুই প্রান্তে ২৫ ফুট করে সরকারি জমি অধিগ্রহণ করা হয়। কিন্তু আনিসুর রহমান ওই সেতুর তিনটি পিলারের গোঁড়া থেকে মাটি কেটে নেওয়ায় হুমকির মুখে পড়েছে সেতুটি। সরেজমিনে তদন্ত করেছি। তদন্ত প্রতিবেদন উর্দ্ধতন কর্তপক্ষর নিকট পাঠানো হবে।

    উল্লেখ্য, এক বছর পূর্বে প্রায় শতকোটি টাকা ব্যয়ে ভৈরব সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ করে ম্যাক্স গুপ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

    জমি লিখে না দেয়ায় সন্তানের হাতে মা-বাবা জখম

    অভয়নগরে ছেলে আল-আমিনের (২৪) নামে জমি লিখে না দেয়ায় মা-বাবাকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে সোমবার দুপুরে উপজেলার নওয়াপাড়া বাজারের শুপারী পট্টি এলাকায়। আহত মা মাসুমা বেগম ও বাবা জালাল মুন্সি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

    আহত জালাল মুন্সি জানান, সে নওয়াপাড়া বাজারে ভাংগাড়ী ব্যবসা করে বুইকারা গ্রামের ঠাকুরপাড়ায় পাঁচ শতক জমি ক্রয় করেন। তাঁর ক্রয়কৃত জমি ছেলে আল-আমিনের নামে লিখে দেয়ার জন্য বিভিন্ন সময় চাপ প্রয়োগ করে। লিখে না দেওয়ায় ইতোপূর্বে কয়েক দফা আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারপিট করে সে। যার লিখিত অভিযোগ অভয়নগর থানায় রয়েছে।

    তিনি আরও জানান, ঘটনার দিন সোমবার দুপুরে পূনরায় জমি লিখে নেয়ার জন্য আল-আমিন আমাকে বাড়ি থেকে ডেকে রাস্তায় নিয়ে যায়। জমি লিখে দিতে না চাইলে সে রাস্তার উপর ফেলে আমাকে হকস্টিক দিয়ে এলাপাথাড়ি মারপিট শুরু করে। আমার স্ত্রী এগিয়ে আসলে তাকেও পিটিয়ে জখম করে হাত ভেঙ্গে দেয় হয়। আমাদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে আল-আমিন পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমাদের দুজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় অভয়নগর থানায় লিখিত অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে।

    খুলনা মহানগর পূজা উদ্যাপন পরিষদ উদ্যোগে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টম-২০২০ পালিত

    পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠান-২০২০ উপলক্ষে বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর শাখার উদ্যোগে মঙ্গলবার আর্য্য ধর্মসভা মন্দির প্রাঙ্গণে ১ দিনের অনুষ্ঠান পালিত হয়। মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব রেখে বেলা ১১:৩০ টায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও অক্সিজেন ব্যাংকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সংগঠনের সভাপতি শ্যামল হালদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও অক্সিজেন ব্যাংকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, মাননীয় মেয়র, খুলনা সিটি কর্পোরেশন ও সভাপতি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ। বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত কুমার কু-ুর সঞ্চালনায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা-২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য সেখ সালাহ উদ্দিন জুয়েলের পিএস ড. সাইদুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেনÑবিশিষ্ট সমাজসেবক ও ধর্মানুরাগী গৌতম লস্কর, পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর সাবেক সভাপতি পোপী কিষাণ মুন্ধড়া, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক শ্যামর সিংহ রায়, পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর সহ-সভাপতি এড. অলোকানন্দা দাস, খুলনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেনÑসংগঠনের কোষাধ্যক্ষ রতন কুমার নাথ, খুলনা সদর থানা সভাপতি বিকাশ কুমার সাহা, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব সাহা লব, সোনাডাঙ্গা থানা সাধারণ সম্পাদক রামচন্দ্র পোদ্দার, হরিণটানা থানা সভাপতি মনোজ কান্তি রায়, সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন রায়, যুব ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় সভাপতি রবার্ট নিক্সন ঘোষ, খুলনা মহানগর সভাপতি বিশ্বজিৎ দে মিঠু, বিশিষ্ট সমাজসেবক ও ধর্মানুরাগী স্বপন কুমার সাহা, শিবনাথ ভক্ত, বাবুল বিশ্বাস, পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর সম্পাদকম-লীর সদস্য উজ্জ্বল ব্যানার্জী, বিশিষ্ট সমাজসেবক গৌতম কু-ু, ছাত্র ঐক্য পরিষদ, ছাত্র ঐক্য পরিষদ, খুলনা মহানগর আহ্বায়ক পাপ্পু সরকার, সদস্য সচিব প্রণব চক্রবর্ত্তী, মানিক শীল, বাবু শীল, রবীন দাস, রাজকুমার শীল, বিধান রায় প্রমুখ।

    অনুষ্ঠানের শুরুতে করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে মৃতদের উদ্দেশ্যে দাঁড়িয়ে প্রার্থনা করা হয়। প্রধান অতিথি সকলকে শ্রীশ্রীজন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানিয়ে মহামারী করোনা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এবং দেশের অগ্রগতি অব্যাহত রাখার জন্য প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশবাসী ও বিশ্ববাসীর মঙ্গল কামনা করে অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও অক্সিজেন ব্যাংকের শুভ উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে বেলা ১২:৩০টায় দেশ, জাতি ও বিশ্বমানবের মঙ্গল কামনায় শ্রীশ্রীগীতাযজ্ঞ ও প্রার্থনা করা হয়। বাংলাদেশ ব্রাহ্মণ সংসদ, খুলনা মহানগর সাধারণ সম্পাদক সুরেশ চক্রবর্তীর পরিচালনায় ৮ জন বিশিষ্ট পুরোহিত শ্রীশ্রীগীতাযজ্ঞ ও প্রার্থনা করেন। আজ রাত ১২:০১টায় মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের পূজার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ, খুলনা মহানগর শাখার শ্রীশ্রীজন্মাষ্টমী অনুষ্ঠান সমাপ্তি।

    পাইকগাছায় কপোতাক্ষ নদের তীরে সামাজিক বনায়নে বাঁধা

    পাইকগাছায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রতিপক্ষরা হুমকি-ধামকি ও গাছ পরিচর্যার বাঁধা প্রদান করায় উপকারভোগীরা পড়েছে বিপাকে। ঘটনাটি উপজেলার পাইকগাছায় কপোতাক্ষ নদের তীরে সামাজিক বনায়নে।

    প্রকাশ, উপজেলার রাড়–লীস্থ কাটিপাড়ার মৌজার কপোতাক্ষ নদের তীরে ওয়াপদার রাস্তায় ২০১৫ সালে বন বিভাগের অনুক্রমে নিম, বাবলা সহ বিভিন্ন প্রজাতির বনজ বৃক্ষ রোপন করা হয়। উক্ত জায়গাটি নদী খননের পূর্বে ভূমিহীনদের মাঝে বন্দোবস্ত দেয়া হয়। ২০১৪ সালে নদী খননের ফলে নদীর পাশ দিয়ে খননকৃত মাটি ফেলায় ওয়াপদার রাস্তা গড়ে ওঠে। যেখানে উপজেলা বন বিভাগের সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক রেজুলেশনের মাধ্যমে সামাজিক বনায়ন করার জন্য ৪৫জন উপকারভোগীর মাঝে অনুমোদন দেয়া হয়। যার সভাপতি এম.এম. হাসানুজ্জামান। গাছ বড় হওয়ায় ২০১৯ সালে প্রতিপক্ষ তালা উপজেলার হরিহরনগর মীর সুন্দর আলীরা উক্ত গাছ কেটে ক্ষতিসাধন করলে থানায় সুন্দর আলীসহ ৪জনের নামে মামলা হলে তারা জেলহাজত খাটে। এ ঘটনার পর থেকে তারা উক্ত জায়গা জবর-দখল ও গাছপালা কাটার পায়তারা করলে হাসানুজ্জামান উপজেলা নির্বাহী আদালতে এম.আর ২৩৮/১৯ নং মামলা করলে বিজ্ঞ আদালত দ্বিতীয়পক্ষের বিরুদ্ধে অন্তর্বর্র্তীকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারী করেন। এরপরও উপকারভোগীদের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ সুন্দর আলীরা বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ ও নতুনভাবে বনায়ন ও পরিচর্যার কাজে বাঁধাগ্রস্ত করছে। যা চরম বিপাকে পড়েছে উপকারভোগীরা। এব্যাপারে সুন্দর আলী বলেন, তাদের বন্দোবস্তকৃত জমিতে বনায়ন করা হয়েছে। যা অবৈধ। এব্যাপারে বন কর্মকর্তা প্রেমানন্দ রায় জানান, বন বিভাগের বীজ ও চারা নিয়ে উপকারভোগীরা আমাদের অনুমতি নিয়ে ওয়াপদার পাশে লাগিয়েছে।

    পাইকগাছায় ভ্যান চাপায় শিশু নিহত

    পাইকগাছার নতুন বাজারে পিচের রাস্তায় ইঞ্জিন ভ্যানের চাপায় রানী (৮) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় উপজেলার নতুন বাজারের মিনা জুয়েলার্সের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি ইঞ্জিনচালিত ভ্যান তাকে চাপা দিলে গুরুতর আহত হয়। আহত শিশুকে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। নিহত শিশু গদাইপুর গ্রামের রনি সরদারের মেয়ে ও তকিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

    খুলনা নদী বন্দরের ৫ নম্বর ঘাটের দ্রুত সংস্কারের দাবি উন্নয়ন কমিটির

    খুলনা ৫ নম্বর ঘাটের স্কীট ঘাট ডেবে যাওয়ায় নদী বন্দর থেকে মালামাল ওঠা-নামায় সমস্যা তৈরী হচ্ছে। ঘাটটি দ্রুত সংস্কার না হলে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এবং পণ্য ওঠা-নামার বড় ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। ৫নম্বর স্কীট ঘাটটি স্থায়ীভাবে সংস্কারসহ রূপসা এবং ভৈরব নদীর তীর ঘেষে শহর রক্ষা বাঁধসহ রিভারভিউ রোড বাস্তবায়ন প্রকল্প দ্রুত গ্রহণ করার জন্য বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দরা বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিদাতারা হলেন, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব শেখ মোশাররফ হোসেন, মহাসচিব শেখ আশরাফ উজ জামান, নিজাম উর রহমান লালু, শাহিন জামান পন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম দাউদ আলী, মীনা আজিজুর রহমান, অধ্যাপক আবুল বাশার, শেখ আব্দুলাহ, মামুনুরা জাকির খুকুমনি, শেখ ফজলুর রহমান, এডভোকেট শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ, মো: মনিরুজ্জামান রহিম, মিজানুর রহমান বাবু, মিজানুর রহমান জিয়া, আফজাল হোসেন রাজু, রকিব উদ্দীন ফারাজি, এসএম ইকবাল হোসেন বিপব, আলহাজ্ব মিজানুর রহমান টিংকু, মতলেবুর রহমান মিতুল, এসএম আক্তারউদ্দিন পান্নু, শেখ মোহাম্মদ আলী, সৈয়দ এনামুল হাসান ডায়মন্ড, মো: খলিলুর রহমান, সরদার রবিউল ইসলাম, মো: মনিরুল ইসলাম, অধ্যাপক মো: আজম খান, এস এম দেলোয়ার হোসেন, রসু আক্তার, সরদার জিহাদুল ইসলাম প্রমুখ।

    খুবিতে জন্মাষ্টমী পালন

    মঙ্গলবার সকাল ১১টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় মন্দির প্রাঙ্গনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে সনাতন ধর্মালম্বী মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালন করা হয়। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান এবং ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। মন্দির প্রাঙ্গণে সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

    মণিরামপুরে নতুন পাঁচ জনের করোনা সনাক্ত

    যশোরের মণিরামপুরে প্রতিদিনই করোনা রোগী সনাক্ত হচ্ছে। মঙ্গলবার (১১ আগষ্ট) নতুন আরও পাঁচজনের আক্রান্তের খবর এসেছে। এই নিয়ে মণিরামপুরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১২৬জনে।

    মণিরামপুর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. অনুপ কুমার বসু এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মণিরামপুরে নতুন করোনা সনাক্ত পাঁচজন হলেন, উপজেলার বাটবিলা গ্রামের পরিবার পরিকল্পনা সহকারী প্রদীপ চক্রবর্তী (৫৬), শ্রীপুর গ্রামের মোহাম্মদ আসাদুল্লাহ (৪০), মশ্মিমনগরের হাজরাকাটি গ্রামের রফিকুল ইসলাম (৪৫), মণিরামপুরে অবস্থানরত এনজিও কর্মী অভয়নগরের বনগ্রামের আজম (৪৫) ও কেশবপুরের আলতাপোল গ্রামের ব্যবসায়ী শিমুল পাল (৩০)।

    ডা.অনুপ বসু বলেন, গত রোববার (৯ আগষ্ট) মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে দশ জনের নমুনা সংগ্রহ করে সিভিল সার্জন অফিসের মাধ্যমে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। তাদের মধ্যে আজ (মঙ্গলবার) পাঁচ জনের নমুনা পজেটিভ এসেছে।

    নতুন আক্রান্ত সবাই নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। তাদের বাড়ি লকডাউনের জন্য উপজেলা প্রশাসনকে তালিকা দেওয়া হয়েছে, বলেন ডা. বসু। এইপর্যন্ত মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে ৬০৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া এই অঞ্চলের অনেকে বিভিন্ন হাসপাতালে নমুনা দিয়েছেন। তাদের মধ্যে ১২৬ জনের পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। যাদের ৮৫ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

    এস এম এ রব মুজিব আদর্শের একজন জনবান্ধব রাজনৈতিক নেতা ছিলেন: সিটি মেয়র

    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, এস এম এ রব মুজিব আদর্শের একজন জনবান্ধব রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি প্রতিদিন সাধারণ মানুষের আর্থিক ও সামাজিক বিভিন্ন উপকার করতেন। অল্প সময়ের মধ্যে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে অত্যন্ত সুসম্পর্ক গড়েছিলেন। তিনি আরো বলেন, এস এম এ রবকে মেয়র পদে মনোনয়ন দেয়ায় প্রতিপক্ষরা তাকে হত্যা করেছিলো। বিএনপি-জামায়াত অত্যন্ত সুপরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগের মেধাবী রাজনীতিকদের হত্যা করেছে। প্রাকৃতিক নিয়মেই আজ বিএনপি সকল অপকর্মের প্রতিদান পেয়েছে। তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এস এম এ রব রাজনীতিতে অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। রবের মত মানুষকে ভালোবেসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু’র আদর্শকে বাস্তবায়ন করার জন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

    গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এস এম এ রবের ২০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে স্মরণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা। সভা পরিচালনা করেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. কাজী বাদশা মিয়া, নুর ইসলাম বন্দ, সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, কামরুজ্জামান জামাল, শ্যামল সিংহ রায়, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, অধ্যক্ষ আলমগীর কবীর, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, বিরেন্দ্র নাথ ঘোষ, হাফেজ মো. শামীম, এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, মো. মোজাম্মেল হক হাওলাদার, ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, তসলিম আহমেদ আশা, অধ্যক্ষ দেলোয়ারা বেগম, অধ্যা. রুনু ইকবাল, এ্যাড. আব্দুল লতিফ, মাকসুদ আলম খাজা, মনিরুজ্জামান খান খোকন, এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, সফিকুর রহমান পলাশ, সমীর কৃষ্ণ হীরা, টিএম আরিফ, মো. মোতালেব মিয়া, শেখ ফারুক হাসান হিটলু, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, আব্দুল হাই পলাশ, মো. শিহাব উদ্দিন, এ্যাড. শামীম মোশাররফ, এস এম আকিল উদ্দিন, মুন্সি নাহিদুজ্জামান, জামিল খান, তোতা মিয়া, মো. রিয়াজ হোসেন, মাহফুজুর রহমান সোহাগ, আবুল কালাম আজাদ, শিপন, আসাদুজ্জামান বাবু, ইকতিয়ার মোল্লা, আব্দুর জব্বার হীরা, জহির আব্বাস, মাহমুদুল ইসলাম সুজন, দিদারুল আলম, ইয়াসির আরাফাত, মাহমুদুর রহমান রাজেস, হিরণ হাওলাদার, শংকর কুন্ডু, পরশ আহমেদ, মুক্তাজুল ইসলাম সোহাগ, টিকলী শরীফ, ওমর কামাল, পিয়াল, আলামিন সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী। স্মরণ সভা শেষে এস এম এ রবের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বেলা ১১টায় বসুপাড়া কবরস্থানে মরহুমের কবর জিয়ারত করা হয়। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, আওয়ামী লীগ নোত মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, আলী আকবর টিপু, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, তসলিম আহমেদ আশা, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, কাউন্সিলর আনিছুর রহমান বিশ্বাষ, এ্যাড. এনামুল হক পিপি, মুন্সি আইয়ুব আলী, শেখ জাহিদুর রহমান, মো. জাহিদুল হক, চ. ম. মুজিবর রহমান, সরদার আব্দুল হালিম, মো. মোতালেব মিয়া, জাকির হোসেন, মো. আমির হোসেন, টি এম আরিফ, শরীফ এনামুল হক, রফিকুল ইসলাম পিটু, রুহুল আমিন খান, আলী আকবর, তোতা মিয়া, সোহেল চৌধুরী, আসাদুজ্জামান মিলটন, মঈন খান সেলিম, খাজা মঈন উদ্দীন, এ্যাড. শামীম আহমেদ পলাশ, আসাদুজ্জামান রিয়াজ।

    বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে গণতন্ত্র ও অর্থনৈতিক মুক্তিকে বাধাগ্রস্থ করা হয়েছিলো: বাবুল রানা

    খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা বলেছেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে গণতন্ত্র ও অর্থনৈতিক মুক্তিকে বাধাগ্রস্থ করা হয়েছিলো। পরাজিত শত্রুরা বুঝেছিলো বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে অল্প সময়েই বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হয়ে যাবে। সে কারনেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিলো। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে তাঁর সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য প্রাণপন চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। একই সাথে গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনার এই প্রচেষ্টাকে বাস্তবায়ন করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

    গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় ২৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোকাবহ আগস্টের আলোচনা সভা ও ওয়ার্ডের ১০ পয়েন্টে প্যানা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ওয়ার্ড সভাপতি আব্দুল হাই পলাশের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, বিশিষ্ট আইনজীবী এ্যাড. সাজ্জাদ আলী, ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শবনম মোস্তারি বকুল। সভা পরিচালনা করেন, ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শামীম মোশাররফ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আহমেদ রাজা, কাজী নজরুল ইসলাম, আব্দুল জলিল হাওলাদার, হাফেজ আবু দাউদ, মাওলানা আব্দুল ওয়াদুদ, মোস্তাইন বিন চঞ্চল, ইলিয়াছ হোসেন লাবু, আশরাফুল আলম পাপ্পু, শেখ হারুন মানু, আল আমীন কবির, রাজু, শহিদুল ইসলাম, জাহিদুল ইসলাম, মল্লিক আলমগীর, মনিরুল ইসলাম মনি, মো. সিদ্দিকুর রহমান সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

    সদর থানা আ’লীগের রক্তদান কাল শোক সভা শুক্রবার

    শোকাবহ মাসের ১৩ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় সদর থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দলীয় কার্যালয়ে রক্তদান কর্মসূচি এবং ১৪ আগস্ট শুক্রবার বিকাল ৫টায় দলীয় কার্যালয়ে শোক সভা অনুষ্ঠিত হবে। এ সকল কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম।

    ডুমুরিয়ায় ওসির হাঁসের খামার দেখভাল করে আসামী কিন্তু পুলিশ খুঁজে পায় না !

    খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানাধিন বাদুরগাছা গ্রামের উজ্জ্বল অধিকারীর স্ত্রী মিলি অধিকারী (৩২) কে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে একই গ্রামের বিনোদ বিহারী সরদারের ছেলে অনিমেষ সরদার (৪০)। এ ঘটনায় মিলি অধিকারী বাদী হয়ে অনিমেষের বিরুদ্ধে ডুমুরিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। কিন্তু মামলা দায়েরের ১ মাস ৬দিন অতিবাহিত হলেও আসামি অনিমেষ সরদারকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বাদীর অভিযোগ অনিমেষ প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং প্রতিনিয়ত মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিচ্ছেন কিন্তু গ্রেফতার করছে না পুলিশ।

    মামলার সাবেক তদন্ত কর্মকর্তা বর্তমান মনিরামপুর থানায় কর্মরত এসআই কাজী নাসমুস সাকিব জানান, আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা হয়নি কথাটি ঠিক নয়। তিনি বলেন, উর্ব্ধতন একজন কর্তার কারনে তাকে ধরা সম্ভব হয়নি। তবে মামলার চার্জশিট দেয়া হয়েছে।

    মামলার বিবরণে জানা যায়, খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানাধিন বাদুরগাছা গ্রামের উজ্জ্বল অধিকারীর স্ত্রী মিলি অধিকারীর মাদারতলা বাজারে একটি চায়ের দোকান রয়েছে। পাশেই রয়েছে অনিমেষ সরদারের পোল্ট্রি মুরগীর খাবারের দোকান। পাশাপাশি থাকার সুবাদে অনিমেষ প্রায় মিলিকে কু-প্রস্তাব দিত। ২৫জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে অনিমেষ মিলি অধিকারীর বাড়িতে প্রবেশ করে কু-প্রস্তাব দেয়। এতে মিলি রাজি না হলে তাকে ঝাপটে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। মিলি চিৎকার দিলে অনিমেষ ধারালো দা দিয়ে কোপ দেয়। এতে মিলি গুরুতর আহত হয়। মিলি চিৎকারে এলাকাবাসি ছুটে এলে অনিমেষ পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মিলি অধিকারী বাদী হয়ে অনিমেষের বিরুদ্ধে ডুমুরিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন যার নং-১২, তারিখ : ৬/৭/২০ ইং।

    কথা হয় অভিযুক্ত অনিমেষের সাথে তিনি বলেন, হাঁসের ফার্মটি মুলতঃ এখন আমার না। এক সময় আমি ওখানে মুরগীর খামার করতাম। এখন ওই খামারটি ডুমুরিয়া থানার ওসির। তিনি এখানে হাঁস পালন করেন। লোকের মুখে শোনা যায় ওসি সাহেব মামলার কারণে খামারটি নিয়েছেন সত্য কিনা প্রশ্নের জবাবে অনিমেষ বলেন, আমার খামারটি পড়েছিলো তাই ওসি স্যার এখানে ২/৪শত হাঁস পালন করছেন। মামলার কারনে খামারটি দিয়েছেন কি-না? এমন প্রশ্নে অনিমেষ বলেন, না- এমনিতে দিয়েছি।

    মামলার ব্যাপারে অনিমেষ বলেন আইনজীবীর সাথে কথা হয়েছে শীঘ্রই আদালতে সারেন্ডার করবো। ডুমুরিয়া থানার ওসি অসুস্থ থাকার কারনে তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

    মাগুরার পাট চাষিদের মুখে হাসি

    বিজেএমসির দ্বার বন্ধ হলেও সব আশঙ্কা কাটিয়ে হাসি ফুটেছে মাগুরার পাট চাষিদের মুখে। সম্প্রতি সরকার রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধ ঘোষণা করায় পাট ক্রয় বন্ধ করে দেয় বাংলাদেশ জুট মিল কর্পোরেশন (বিজেএমসি)। ফলে বাম্পার ফলন হওয়ার পরও পাটের বাজার নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়ে কৃষক। ব্যক্তি মালিকানাধীন পাটকলগুলো যথাযথ মূল্যে পাট কেনা শুরু করায় সব শঙ্কা কেটে গেছে মাগুরার পাট চাষিদের।

    মাগুরা কুষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এ বছর মাগুরায় ৩৫ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ করা হয়েছে। উৎপাদন হয়েছে ৩ লাখ ৫০ হাজার ৪২০ মেট্রিক টন পাট, যা লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করেছে।

    মাগুরা নিজনান্দুয়ালীর কৃষক রইস উদ্দীন বলেন, এবার দুই বিঘা জমিতে পাট চাষ করেছি। বিজেএমসি পাট নেওয়া বন্ধ ঘোষণা করায় খুবই চিন্তায় ছিলাম। কিন্তু আমার তিন বেল পাট উৎপাদিত হয়েছে। শেষ পর্যন্ত ২৫০০ টাকা মন দরে তা বিক্রি করেছি। পাটের দরে আমি খুবই খুশি।

    সদর উপজেলা কছুন্দি গ্রামের কৃষক মোতাহার বলেন, চার বিঘা জমিতে পাট লাগিয়ে ছিলাম। এবার বৃষ্টির কারণে ফলন ভালো হয়েছে। পাটের বাজার নিয়ে নানা রকম কথাবার্তা শুনলেও ভলো দামেই বিক্রি করতে পেরেছি। মহম্মদপুরের রামদেবপুরের কৃষক বাচ্চু মোল্লা জানান, এবার আবহাওয়া ভালো ছিল তাই সেচের জন্য বাড়তি খরচ হয়নি। সরকারও করোনার কারণে বীজ, সার ও অন্য প্রণোদনা দিয়েছে। বাজারে পাটের দামও ভালো। সব মিলে ৫০ হাজার টাকা মুনাফা আসবে আশা করছি।

    মাগুরার বিশিষ্ট পাট ব্যবসায়ী বিধান সাহা বলেন, বিজেএমসির কাছে ব্যবসায়ীদের কয়েক কোটি টাকা পাওনা থাকায় অনেক ব্যবসায়ী এবার পাট কিনবে না বলে ভেবেছিল। কিন্তু বেসরকারি মিলগুলো নগদ অর্থে পাট কেনায় আমরা অনেকেই আবার কৃষকের কাছ থেকে পাট সংগ্রহ করছি। মিলগুলো ভালো দাম দেওয়ায় আমরা কৃষককেও খুশি করতে পারছি।

    কৃষি ও প্রকৃতি বিষয়ক স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা পল্লী-প্রকৃতির নির্বাহী পরিচালক শফিকুর রহমান বলেন, বিজেএমসি দেশের উৎপাদিত পাটের দশ ভাগও ক্রয় করে না। শতকরা ৯০ ভাগ পাট ক্রয় করে বেসরকারি পাটকলগুলো। উপরন্ত, পাকিস্তান ও চীনের পাট আমদানির প্রতি আগ্রহ এবার পাটের বাজারকে ঊর্ধ্বমুখী করে তুলেছে। সব শঙ্কা কাটিয়ে কৃষক হাসতে পেরেছে এটাই বড় কথা।

    মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, মাগুরায় এবার বৃষ্টি ভালো হওয়ায় পাটের উৎপাদন ভালো হয়েছে। সেই সঙ্গে সরকারি প্রণোদনা কৃষকের উৎপাদন খরচ অনেক কমিয়ে দিয়েছে। সব মিলিয়ে বিজেএমসি বন্ধ থাকলেও কৃষকের মুখে হাসি আছে।

    খুলনা বিভাগে কোভিডে আক্রান্ত ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে, সুস্থ ৬৬ শতাংশ

    খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা সাড়ে ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। বিভাগে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার ১৪৬তম দিন আজ মঙ্গলবার রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় ১৪ হাজার ৬৮৯। সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে খুলনা বিভাগে নতুন ৩০০ জন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে মোট সুস্থতার হার ৬৬ শতাংশের কিছুটা বেশি।

    বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা জানান, বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২ জন। এ নিয়ে করোনায় বিভাগে মোট ২৪৯ জনের মৃত্যু হলো। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২১৮ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলেন ৯ হাজার ৭৫২ জন।

    বিভাগের মধ্যে করোনায় সবচেয়ে বেশি ৭২ জন মারা গেছেন খুলনায়। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ৪৪ জন, যশোরে ৩২, সাতক্ষীরায় ২৩, ঝিনাইদহে ২০, বাগেরহাটে ১৬, চুয়াডাঙ্গায় ১৪, নড়াইলে ১৩, মাগুরায় ৮ ও মেহেরপুরে ৭ জন মারা গেছেন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত হওয়া ৩০০ জনের মধ্যে খুলনা জেলায় ৮৪ জন, বাগেরহাটে ২, চুয়াডাঙ্গায় ১২, যশোরে ৬৯, ঝিনাইদহে ২১, কুষ্টিয়ায় ৭১, মাগুরায় ২০, মেহেরপুরে ৩ ও নড়াইলে ১৮ জন রয়েছেন। এই সময়ে সাতক্ষীরায় কোনো রোগী শনাক্ত হননি।

    স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, বিভাগে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ১৪ হাজার ৬৮৯ জনের মধ্যে ৪ হাজার ৮৩১ জনই খুলনা জেলার। বিভাগের মোট রোগীর প্রায় ৩৩ শতাংশ খুলনার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৭২৩ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৮৬৮, যশোরে ২ হাজার ৩৩৫, ঝিনাইদহে ১ হাজার ১৪৯, কুষ্টিয়ায় ২ হাজার ১২১, মাগুরায় ৬০৭, মেহেরপুরে ২৮০, নড়াইলে ৯৪৮ জন ও সাতক্ষীরাতে ৮২৭ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

    যশোরে মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় মামলা

    বিয়ের দাওয়াত খেতে গিয়ে মেহেদী হাসান বিপ্লব নামে এক যুবকের এক লাখ সত্তর হাজার টাকা মূল্যের এ্যাপাচী আরটিআর মোটর সাইকেল চুরি সংঘঠিত হয়েছে। ঘটনাটি যশোর সদর উপজেলার মোবারককাঠি সন্যাসী দিঘীর পাড় এলাকার। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ চুরি যাওয়ার মোটর সাইকেল উদ্ধার করতে পারেনি।

    যশোর শহরের শংকরপুর ইসাহাক সড়কের আলী আকবর মোল্যার ছেলে মেহেদী হাসান বিপ্লব মঙ্গলবার রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় অজ্ঞাতনামা চোরদের বিরুদ্ধে এজাহার দিয়ে বলেছেন,গত ৭ আগষ্ট বিকেলে বিয়ের দাওয়াত থেকে মোকারককাঠি সন্যাসী দিঘীর পাড়ের বিপরীত পাশের্^ মান্নানের চায়ের দোকানের সামনে সামনে এ্যাপাচী আরটিআর (যশোর ল-১১-৬৪৭০) নাম্বারের মোটর সাইকেল ঘারে লক করে যায়। বিকেল ৩ টার সময় রেখে ১ ঘন্টা পর বিকেল ৪ টায় এসে দেখে মোটর সাইকেলটি নাই। সংঘবদ্ধ চোরেরা মোটর সাইকেলের ঘাড়ের লক কৌশলে খুলে মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে গেছে।

    যশোরে প্রতারক আটক

    ট্রেনের যাত্রী হিসেবে পরিচয় তার পর মোবাইল ও ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জারে কথা বার্তার এক পর্যায় প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে এক প্রতারক নিজেকে সেনা কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এক কলেজ শিক্ষার্থীর কাছ থেকে নগদ ৮০ হাজার টাকা ও ৫৭ হাজার টাকা মূল্যের ল্যাপটপ হাতিয়ে নিয়েছে। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) দপ্তরের একটি চৌকস টিম প্রতারক আলমগীর হোসেন ওরফে আশিকুর রহমান রাব্বি (২৭) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। সে ঝিনাইদহ জেলার কোট চাঁদপুর উপজেলার ছয়খাদা গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে। মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট প্রতারক রাব্বি জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহাদী হাসানের আদালতে প্রতারনার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে বলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রেজোয়ান জানিয়েছেন।

    ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার আলমপুর গ্রামের বর্তমানে যশোর এমএম কলেজ দক্ষিণ গেট রুপরেখা ছাত্রী মেসে ভাড়াটিয়া হাবিবুর রহমানের মেয়ে মোছাঃ হামিদা খাতুন (২১) সোমবার বিকেলে কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন, ৬ মাস পূর্বে ট্রেনে কওে মহেশপুর উপজেলায় যাওয়ার সময় প্রতারক রাব্বির সাথে পরিচয়। তার পর মোবাইল, ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে প্রেমেজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রতারক নিজেকে সেনা বাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয় দেয় হামিদার কাছে। উক্ত প্রতারক গত ১ জানুয়ারী সকাল সোয়া ১০ টায় উক্ত রুপরেখা ছাত্রী মেস থেকে পারিবারিক আর্থিক সমস্যা দেখিয়ে ধার স্বরুপ ফেরত দেওয়ার শর্তে হামিদা খাতুনের কাছ থেকে নগদ ৮০ হাজার টাকা ও একদিন পর অফিসের কাজে প্রয়োজনের কথা বলে হামিদা খাতুনের ৫৭ হাজার টাকা মূল্যের এইচপি ল্যাপটপ নিয়ে যায়। পরবর্তীতে উক্ত প্রতারক হামিদা খাতুনের কাছ থেকে ধার স্বরুপ নেওয়া নগদ উক্ত টাকা ও ল্যাপটপ ফেরত না দিয়ে নানা তালবাহনা শুরু করে। হামিদা খাতুন বিষয়টি পিবিআই যশোর অফিসে অভিযোগ দায়ের করেন। পিবিআই অফিসের একটি চৌকস টিম সোমবার দিবাগত রাতে কোট চাঁদপুর এলাকা থেকে প্রতারক রাব্বিকে গ্রেফতার করে। পরে রাব্বির দখলে থাকা উক্ত ল্যাপটপ ও প্রতারনার কাজে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন প্রতারক রাব্বি কর্তৃক সেনাবাহিনীর র‌্যাংক পরিহিত স্থির ছবি ও উদ্ধার করে। পিবিআইয়ের সহযোগীতায় হামিদা কোতয়ালি মডেল থানায় প্রতারক রাব্বির বিরদ্ধে ম ামলা দায়ের করেন। হামিদা খাতুন রাব্বির প্রতারনায় পড়ে নিজের গহনা বন্ধক রেখে ও কলেজের বেতন এবং ইন্টার্নির টাকাসহ নগদ ৮০ হাজার টাকা তুলে দেয়। পিবিআই চৌকস টিমের এসআই রেজোয়ান প্রতারক রাব্বিকে মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাহাসী হাসানের আদালতে সোপর্দ করলে সে প্রতারণার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেন।

    গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের শ্রদ্ধা

    গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পবিত্র ফাতেহা পাঠ, বঙ্গবন্ধুসহ ১৫ আগষ্টে নিহত তাঁর পরিবারের সকল সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মোনাজাত করেন। এসময় গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ নিয়াজ মোহাম্মদ, শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ডাঃ সাইফউদ্দিন, শেখ সাহেরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ লিয়াকত হোসেন গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডাঃ অসিত কুমার মল্লিক প্রমুখ।

    শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার সকল কার্যক্রমের সাথে আমরা রয়েছি। করোনার ভ্যাকসিন আবিস্কৃত হলে অন্যান্য সকল দেশের সাথে আমরাও তা পেয়ে যাবো। প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদেরকে অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে।

    পরে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল সহ জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্য বিভাগের সকল কর্মকর্তা কর্মচারিদের সাথে মতবিনিময় করেন তিনি।

    যশোরে মঙ্গলবার করোনায় ৬৯ আক্রান্ত

    ১১ আগষ্ট মঙ্গলবার যশোরে নতুন করে কোভিড-১৯ রোগে ৬৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে যশোর জেলায় এ রোগে আক্রান্তর সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩২৮জন। সুস্থ্য হয়েছেন ১৩০৮জন। এ সময়ের মধ্যে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেছে ৩২জন। যশোরের সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন মঙ্গলবার ১১ আগষ্ট সকালে সাংবাদিকদের এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো জানান,মঙ্গলবার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টার থেকে ১৯৪ টি নমুনা আসে। এর মধ্যে ৬৯জন পজিটিভ রোগী। পজিটিভ রোগীদের মধ্যে যশোর সদর উপজেলায় ৩৪জন, অভয়নগর উপজেলায় ১২জন, ঝিকরগাছা উপজেলায় ১০জন, কেশবপুরে ৮জন, ও মণিরামপুর উপজেলায় ৫জন রয়েছে।

    সিভিলসার্জন অফিস সূত্রে জানাগেছে,সোমবার ১০ আগষ্ট যশোর জেলা থেকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৩২টি নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছিল। গত ১০ মার্চ থেকে ১০ আগষ্ট পর্যন্ত যশোর জেলা থেকে ৯৬৫৪ টি নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে ৮৬২৭টি রিপোর্ট প্রদান করেন। তার মধ্যে ২৩২৮ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ। বর্তমানে ১০৮৭টি রিপোর্ট পেন্ডিং রয়েছেন।

    শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে বেনাপোলে আমদানি-রফতানি বন্ধ

    সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দেবতা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে। তবে সীমিত আকারে পাসপোর্ট ধারী যাত্রী যাতায়াতে স্বাভাবিক রয়েছে।

    মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) সকাল থেকে সারাদিন এ পথে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে বেনাপোল বন্দর কর্তৃপক্ষ। বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার জানান, শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বেনাপোল বন্দরের সঙ্গে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সাথে আমদানি ও রফতানি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। বুধবার সকাল থেকে স্বাভাবিক নিয়মে এ পথে বাণিজ্যিক কার্যক্রম চলবে।বেনাপোল চেকপোস্ট কার্গো শাখার সুপার নাসিদুল হক জানান, শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বেনাপোল বন্দরের সঙ্গে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সাথে সব ধরনের বানিজ্য বন্ধ থাকবে।আজ ১২ আগষ্ট বুধবার সকাল থেকে আবারও আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হবে। এদিকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন খান জানান, বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও সীমিত আকারে যাত্রী ভ্রমণের অনুমতি আছে, তারা যাতায়াত করতে পারবেন।

    কেশবপুরের শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপন

    কেশবপুরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপিত হয়েছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমনের কারনে মঙ্গল শোভাযাত্রা না করে সীমিত আকারে গীতাযজ্ঞ, পূজাঅর্চনা, তারকব্রহ্ম হরিনাম সংকীর্তন ও তারকব্রহ্ম নামযজ্ঞ ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। মন্দির ছাড়াও ঘরে ঘরে ভক্তরা উপবাস থেকে জন্মাষ্টমীতে শ্রীকৃষ্ণের আরাধনা ও পূজা করেন। মঙ্গলবার শ্রী-কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালন উপলক্ষ্যে কেশবপুরে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে দেবালয় প্রাঙ্গনে আলোচনা সভায় হিন্দু ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্ট যশোরের সহকারি প্রকল্প পরিচালক লিটন শিকদার সভাপতিত্ব করেন। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্যামল সরকার । বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কেশবপুর প্রেসকাবের সভাপতি আশরাফ উজ জামান খান, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুকুমার সাহা, যুগ্ম সম্পাদক গৌতম রায় প্রমুখ ।

    বাগেরহাটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

    বাগেরহাটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি দখলে বাধা দেওয়ায় সন্ত্রীদের হামলায় গুরুত্বর আহত হয়েছে বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার ডুমুরিয়া গ্রামের মৃত শশধর বিশ্বাসের ছেলে বিরেন বিশ্বাস ও তার স্ত্রী মিরা বিশ্বাস। আহতরা চিতলমারী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

    হামলার শিকার বিরেন বিশ্বাসের ভাই বিষ্ণুপদ বিশ্বাস অভিযোগে জানান,আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি যাহার সি.এস নং-১৩,এস এ খতিয়ান-২৪৮,দাগ নং-৩৮৩। ৩১ শতক জায়গার মধ্যে .০৭ একর সম্পত্তি নিয়ে বর্তমানে দেওয়ানী ৪৪/২০২০ নং মামলা চলে। গত রবিবার বিকালে ডুমুরিয়া গ্রামের নির্মল বিশ্বাসের ছেলে লিটন বিশ্বাস,কালিপদ বিশ্বাসের ছেলে মিলন বিশ্বাস,রাজেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের ছেলে নির্মল বিশ্বাস ও নির্মল বিশ্বাসের স্ত্রী দিপালী বিশ্বাসসহ অপরিচিত কিছু সন্ত্রাসী দিয়ে আমাদের জমি গড়া দিয়ে ঘিরে রাখে। এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করলে আসমীরা আমাদের উপর আরো ক্ষিপ্ত হয় ও ভয়-ভীতি দেখায়। মঙ্গলবার সকালে আসমীরা আমার জমিতে মাছ ছাড়তে আসলে আমার ভাই বিরেন বিশ্বাস বাধা দেয়। এসময় স্থানীয় লিটন বিশ্বাস, মিলন বিশ্বাস, নির্মল বিশ্বাস ও দিপালী বিশ্বাস আমার ভাই বিরেন বিশ্বাস ও তার স্ত্রী মিরা বিশ্বাসকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও বাশের লাঠি দিয়ে আঘাত করে গুরুত্ব জখম করে। তারা এখন চিতলমারী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

    এলাকার একাধিক লোক অভিযোগ করে বলেন,দিপালী বিশ্বাসের অনৈতিক সম্পর্কের কারনে অনেক পরিবার ভেঙ্গে গেছে। যারা এর প্রতিবাদ করতে যায় তারাই এই মহিলা ও তার লোকজনের হয়রানির শিকার হয়। তার গ্যাংবাহিনীর সদস্য লিটন বিশ্বাস ও মিলন বিশ্বাসের নামে এলাকায় নারী,মাদকসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। তাদের কারনে এলাকার যুব সমাজ ধংসের মুখে। ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে এলাকার সাধারন মানুষকে মামলার হমকি দেয় ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ট এলাকার সাধারন মানুষ বলে জানান তারা।

    এ বিষয়ে পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন,এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। চিতলমারি থানা বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে বলে তিনি জানান।

    ফকিরহাট উপজেলা চেয়ারম্যানের সুস্থ্যতা কামনায় মন্দিরে প্রার্থনা

    খুলনা বিভাগের শ্রেষ্ট, ফকিরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সুযোগ্য সভাপতি স্বপন দাশ এর সুস্থ্যতা কামনায় দুইটি জাগ্রত কালি মন্দিরে প্রার্থনা সভা ও প্রসাদ বিতরন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে টাউন নওয়াপাড়ার চামারিয়া শ্রী শ্রী শ্নশানকালি মন্দিরে এই প্রার্থনা সভা ও প্রসাদ বিতরন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সুবীর কুমার মিত্র, তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ ঘোষ, পিলজংগ ইউনিয়ন আ,লীগের সভাপতি প্রভাষক অঞ্জন কুমার দে, সাধারন সম্পাদক মোড়ল জাহিদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি অলোক কুমার সেন, যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক প্রভাষক সুমন কুমার ধর, অমল কুমার দত্ত (মনি), সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোশারেফ হোসেন, কোষাধক্ষ রানা কুমার দে, ইউনিয়ন পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক আশিষ রায় চৌধুরী, শিক্ষক রিংকু কুমার চক্রবর্তী, সুপ্রভাত চক্রবর্তী, মন্দির কমিটির সাধারন সম্পাদক কাত্তিক কুমার দে, অসিম কুমার শীল, গৌর চন্দ্র দাশ ও দীপ্ত কুমার মিত্র। এর আগে সাধুর সাধের বটতলা শ্রী শ্রী কালি মন্দিরে অনুরুপ প্রার্থনা সভা ও প্রসাদ বিতরন করা হয়।

    দেবহাটায় প্রতিপক্ষের হামলায় দফাদার সহ ৫ জন আহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা

    দেবহাটায় প্রতিপক্ষের হামলায় দফাদার সহ ৫ জন আহত হওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মোহাম্মাদালীপুর গ্রামে ছাগলে সবজি খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার আবুল হোসেন সহ তার পরিবারের ৫জন আহত হয়। আহত দফাদার আবুল হোসেন জানান, তার পুত্র আশারুল ইসলামের সবজি বাগান খেয়ে নষ্ট করে প্রতিবেশী আব্দুল মাজেদের ছাগল। তারা ঐ ছাগলটি বেধে রাখলে রাতে প্রতিবেশী আব্দুল মাজেদ ও তার পরিবারের সদস্যরা এসে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। ছাগল নিয়ে ফেরার পথে রাস্তায় দাড়িয়ে অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ ও হুমকি দিতে থাকে তারা। এসময় তাদেরকে বাড়ি চলে যাওয়ার কথা বলেন দফাদার আবুল হোসেন। পরে আব্দুল মাজেদ বাড়িতে গিয়ে তার ভাই আবু সাঈদ, জাহিদ হোসেন, আব্দুল মালেক, সাহেব আলী, সাঈদের স্ত্রী শাহানারা বেগম ও পুত্র শাহিন আলম, মালেকের স্ত্রী ফতেমা খাতুন, মাজেদের পুত্র সাহাজুল ইসলাম, মালেকের পুত্র মুছা করিম, আজিতের পুত্র ইসমাইল সহ পরিবারের আরো কয়েকজন এসে আমার পুত্র আশারুল, পুত্রবধু আছিয়া বেগম, পৌত্র নাইমুর রহমানের উপর অতির্কিত হামলা চালাতে থাকে। এসময় হামলাকারীদের বাধা দিতে গেলে আমাকে এবং আমার ভাইজি বিলাত গাজীর কন্যা রোজিনা খাতুনকেও মারাত্মক জখম করে এবং আমার পুত্র আশারুল ইসলামের মাথায় ইটের বাড়ি মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয় । এসময় স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে মাজেদ তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চলে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছিল। এঘটনায় সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার আবুল হোসেন বাদি হয়ে দেবহাটা থানায় ৭জনের নামে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং- ৭, তাং- ১০/০৮/২০২০। তবে, এঘটনায় অভিযুক্ত আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে সাজানো নাটক সাজিয়ে মিথ্যা মামলা করার পায়তারা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করে দফাদার আবুল হোসেন। এবিষয়ে দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহা জানান, দফাদার সহ তার পরিবারের সদস্য আহতের বিষয়ে থানায় একটি মামলা হয়েছে।

    বাগেরহাটে জন্মাষ্টমী উদযাপন

    বাগেরহাটে করোনা মুক্তির প্রার্থনার মধ্যদিয়ে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব ঘরোয়া আয়োজনে পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে বাগেরহাট শালতলাস্থ কেন্দ্রীয় শ্রীশ্রী হরিসভা মন্দির প্রাঙ্গনে মঙ্গলদ্বীপ প্রজ্জলন, সমবেত প্রার্থনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে অলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। হিন্দু কল্যান ট্রাস্ট ও পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে পৃথক এ অনুষ্টানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ। সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোছাব্বেরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত আলোচনা সভায় সন্মানিত অতিথি ছিলেন, পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়, ডিডিএলজি দেব প্রসাদ পাল, আওয়ামীলীগ নেতা ফিরোজুল ইসলাম, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অমিত রায়, সম্পাদক অবনিশ চক্রবর্ত্তী সোনা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শিবপ্রসাদ ঘোষ, সম্পাদক এ্যাড:মিলন ব্যানার্জী, সদর থানার ওসি মাহাতাব উদ্দিন, পৌর কাউন্সিলর তানিয়া খাতুন, প্রধান শিক্ষিকা ঝিমি মন্ডল, মধু দাম, স্বপন কুমার। অনুষ্টান সঞ্চালনা করেন, ক্যাব সভাপতি ও জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি বাবুল সরদার। এদিন বিকেলে গীতা পাঠ প্রতিযোগীতা ও সন্ধ্যায় মন্দিরে মন্দিরে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়।

    চিতলমারীতে আবার ও সুদ কারবারির চাপে অতিষ্ঠ ১ পান চাষী

    বৃদ্ধা মা ও স্ত্রী সন্তানকে নিয়ে পান চাষ করে খাই। হঠাৎ করে পানের বরজে টাকার দরকার অনেকের কাছে হাত পেতেছি কোন ধার মেলেনি।বাধ্য হয়ে ক্ষেতের পান বাঁচাতে বড়গুনী গ্রামের শাহারু মন্ডলের কাছ থেকে শতকরা ৫ টাকা হারে ৩০ হাজার টাকা সুদে নিয়াছিলাম। ১৭ মাস পরে ৪৬ হাজার টাকা পরিশোধ করতে গেলে ওরা গাছের সাথে বেঁধে আমার উপর মধ্যযুগীয় বর্বর নির্যাতন করে। প্রায় দেড় মাস চিকিৎসা শেষে ৬ আগস্ট থানায় লিখিত অভিযোগ করি। তারপরে প্রভাবশালী ওই সুদ কারবারি আমাকে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। সোমবার দুপুরে সাংবাদিকদের এভাবেই নিজের ওপর নির্মম নির্যাতনের বর্ণনা দিলেন পান চাষি সঞ্জয় কুমার মজুমদার( ৪০)।

    চিতলমারী উপজেলার বড়বাড়িয়া ইউনিয়নের বড়গুনী গ্রামের মৃত হরষিত মজুমদারের ছেলে সঞ্জয় কুমার মজুমদার আরও জানান, গত ২৫ জুন বিকেলে ৩০ হাজার টাকার সুদ সহ ৪৬ হাজার টাকা পরিশোধ করতে গেলে সুদ কারবারি শারুক মন্ডলের বড়গুনী গ্রামের বাড়েতে যান। শাহরুখকে ৪৬ হাজার টাকা দেওয়ার পর সে আরো ৯ হাজার টাকা দাবি করেন। তখন সঞ্জয় ৪ হাজার টাকা দিতে চাইলে শাহরুখ তার লোকজন মিলে তাকে সুপারি গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় বর্বর নির্যাতন শুরু করে।

    এক পর্যায়ে তারা তার গোপনাঙ্গে একাধিক আঘাত করে। পরে সঞ্জয় বৃদ্ধা মা যশোদা মজুমদার তাকে নিয়ে গোপালগঞ্জ একটি প্রাইভেট কিনিকে ভর্তি করেন। সেখানে তার গোপনাঙ্গে চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচার অপারেশন করেন। প্রায় দের মাস সেখানে চিকিৎসা শেষে গত ৬ আগস্ট তিনি বাদী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন৷ তার পরেও প্রভাবশালী ওই সুদ কারবারি শাহরুখ মন্ডল তাকে নানা হুমকি-ধামকি দিচ্ছেন। তার অব্যাহত হুমকিতে গোটা পরিবার ভয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে।

    এ ব্যাপারে শাহরুখ মন্ডলের বড় ভাই স্বপন মন্ডল সব অভিযোগ অস্বিকার করে জানান, সঞ্জয়ের গোপনাঙ্গে কোন আঘাত করা হয়নি।

    তবে চিতলমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর শরিফুল হক জানান, মাদক ও সুদ কারবারি দের বিরুদ্ধে চিতলমারী থানা পুলিশ জেহাদ ঘোষণা করেছেন। এ ধরনের কোন অভিযোগ তার কাছে পৌঁছায়নি। তিনি বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ ভাবে দেখা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। প্রসংগত, সুদ কারবারিদের নির্যাতনে চিতলমারী কয়েক শত পরিবার ভিটেমাটি জায়গা- জমি ও গাড়ি বাড়ি হারিয়ে আজ তারা নিঃস্ব । এ ছাড়া সুদে কারবারিদের অত্যাচার নির্যাতন সইতে না পেরে বাপ – দাদার বসত বাড়ি ফেলে বহু পরিবার পালিয়েছে। এ ছাড়া এখানে সুদের চাপ সইতে না পেরে আত্মাহত্যার পথ ও বেছে নেন অনেক পরিবারের সদস্য। গত ২০ জুলাই সুদখোর দের নির্মম অত্যাচার – নির্যাতন সইতে না পেরে স্কুল শিক্ষিকা হাসিকানা বিশ্বাস ( ৩৮) আত্মাহত্যা করেছেন।

    বাগেরহাটে ৫ বছরের শিশু ধর্ষণ, থানায় মামলা

    বাগেরহাটের কচুয়ায় ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগে টেংরাখালী গ্রামের মৃত ইমদাদ হাজরার ছেলে ইয়াকুব হাজরা (৭০) কে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে কচুয়া থানায় এই মামলা দায়ের করেন। নির্যাতিতা শিশুটির বাবা বলেন, গত সোমবার সকাল ৮টার সময় তিনি গাছের কাজ করার জন্য বাইরে যান। বাড়িতে স্ত্রী, মা ও ছোট মেয়ে ছিলো। ছোট মেয়েটি ঘরের মধ্যে টেলিভিশন দেখতে ছিলো। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বিস্কুটের প্রলোভন দেখিয়ে শিশুটিকে তার নিজ বাড়িতে নিয়ে যায় আসামী ইয়াকুব হাজরা। ইয়াকুব মেয়েটিকে বাড়ির ভিতরে নিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে। মেয়েটির ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এসে ওই মেয়েটিকে উদ্ধার করে।

    কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মনি শংকর পাইক বলেন, সোমবার রাত ১১ টায় শিশুটির বাবা শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ফোলা ও রক্তপাতের চিহ্ন রয়েছে শিশুটির। শিশুটিকে পরীক্ষার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

    কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ সফিকুর রহমান জানান, নির্যাতিতা শিশুটির বাবা বাদী হয়ে রাতেই মামলা করেছেন। আসামী ইয়াকুব হাজরাকে আটকের জন্য পুলিশ জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

    করোনা মোকাবেলায় অকান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবর রহমান

    করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ৪ নং নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখে মঙ্গলবারে (১১ই আগষ্ট ) এল জি এস পি ৩ প্রকল্পের অর্থায়নে ১০০ অসহায় দুস্থ পরিবারের মাঝে ৫ টি মাক্স ১ টি সাবান ও ১প্যাকেট ব্লিচিং পাউডার বিতরন করেন দেবহাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ মুজিবর রহমান । উপস্থিত ছিলেন ইউপি সচিব শেখ কামরুজ্জামান ইউ পি সদস্য মোঃ আবুল কাসেম,মোঃ নুরুজ্জামান সরদার মোঃ মিজানুর রহমান মোঃ মনিরুজ্জামান মনি মোঃ আসমতুল্লাহ গাজী, ফতেমা খাতুন। ইউপি চেয়ারম্যান বলেন করোনা মোবাবেলায় সবাই একসাথে কাজ করতে হবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডাঃ আ ফ ম রুহুল হক মহাদয়ের নির্দেশ আপনাদের জন্য কাজ করে যাচ্ছি সবাই সামাজিক দুরুত্ব বজায় রাখবেন এবং জরুরি প্রয়োজন সবাইকে মাক্স ব্যাবহার করতে হবে এবং দেবহাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আঃ গনি’র মৃত্যুতে নওয়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেন ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

    নগরীতে র‌্যাবের অভিযানে এক মানবপাচারকারী গ্রেফতার

    নগরীর খানজাহানআলী থানাধীন ১নং আটরা গিলাতলা ইউনিয়নের আটরা শেখপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে কশোরীকে অপহরণপূর্বক পাচার করে মধ্যযুগীয় কায়দায় আটকে রেখে ধর্ষণ ও জোরপূর্বক দেহ ব্যবসায় নিয়োজিত করার অপরাধে এক মানব পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬।

    ১০আগস্ট রাত পৌনে ১২টার দিকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মানব পাচারকারী হলেন খুলনা জেলার রূপসা থানার কাজদিয়া গ্রামের মো. মুনসুর গাজীর ছেলে মো. আশিক গাজী (২৫)।

    র‌্যাব-৬ জানায়, ১০আগস্ট যশোর জেলার অভয়নগর থানার বাসিন্দা ভিকটিম মোছাঃ জান্নাতি (১৭) র‌্যাব-৬ এর নিকট একটি অভিযোগ দায়ের করেন যে, গত ২০১৯ সালে তাকে আশিক গাজী অপহরণ করে অবৈধভাবে পাচার করে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের উত্তর প্রদেশের লকনৌ তে নিয়ে যায়। সেখানে ভিকটিমকে উক্ত আসামি জোড়পূর্বক প্রায় একবছর আটকে রাখে এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে জোড়পূর্বক ধর্ষণসহ তার অশ্লীল ভিডিও ও নগ্ন ছবি মোবাইলে ধারন করে সেগুলো তার ফোনে সংরক্ষণ করে রাখে।পরবর্তীতে জোরপূর্বক ভিকটিমকে দেহ ব্যবসায় লিপ্ত হতে বাধ্য করে। এছাড়াও ভিকটিমকে দালালের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে বেঙ্গালুর ও কলকাতাসহ ভারতের বিভিন্ন স্থানে দেহব্যবসার জন্য নিয়ে যায়। গত ২০জুলাই ভিকটিমকে ভারত থেকে বাংলাদেশে নিয়ে এসে উক্ত আসামি নিজ বাড়িতে নিয়ে জোরপূর্বক আটকে রাখে। সেখানে কয়েকদিন থাকার পর ভিকটিম কৌশলে তার বোনের বাড়ি খুলনা জেলার ফুলতলা থানাধীন প্রায়গ্রাম এর কসবায় পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আসামি ভিকটিমকে ফোন দিয়ে পূনঃরায় ভারতে নিয়ে যাওয়ার জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করে। ভিকটিম ভারতে যেতে রাজি না হলে সে তার মোবাইলে ধারণকৃত ভিকটিমের নগ্ন ছবি ও ভিডিও ফেইসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেবে বলে হুমকি দেয়। এতে কাজ না হলে উক্ত আসামি নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টসহ ভিকটিমের বিভিন্ন আত্মীয স্বজনের ইমো এবং ফেসবুক মেসেঞ্জারে ভিকটিমের ধারণকৃত অশ্লীল ছবি এবং ভিডিওর স্ক্রীনশট পাঠাতে শুর করে।

    প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ১০আগস্ট রাত পৌনে ১২টার দিকে নগরীর খানজাহানআলী থানাধীন ১নং আটরা গিলাতলা ইউনিয়নের আটরা শেখপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো. আশিক গাজীকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ এবং তার কাছ থেকে জব্দকৃত দুটি মোবাইল ফোন পরীক্ষা করে উপরোক্ত ঘটনার প্রাথমিক সত্যতার প্রমাণ পাওয়া যায়। তাকে খানজাহানআলী থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

    বটিয়াঘাটায় সুস্থতা কামনায় বিবৃতি

    বটিয়াঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য দিলীপ হালদার ও তার সহধর্মিণী দাকোপ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র স্টাফ নার্স এর সুস্থতা কামনা করে বিবৃতি প্রদান করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগ, সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। প্রদত্ত বিবৃতিদাতারা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুল আলম খান, অধ্যাঃ ফিরোজুর রহমান, মোঃ আকরাম হোসেন, মীর মোহাম্মদ আলী, প্রদীপ বিশ্বাস, পলাশ রায়, রবীন দত্ত, অনুপ গোলদার, বিবেক বিশ্বাস, মাসুদ রানা, মনোরঞ্জন মন্ডল, রবীন্দ্র নাথ ঢালী, শেখ ওয়েদুর রহমান, এ্যাড. অনাদি মন্ডল, মোশারেফ হোসেন, শুধাংশু রায়, চঞ্চলা মন্ডল, কার্তিক রায়, খলিলুর রহমান, শেখ হাদী উজ জামান হাদী, শেখ জাকির হোসেন লিটু, নারায়ন সরকার, মোল্লা মিজানুর রহমান বাবু, মোক্তার হোসেন, রবীন্দ্রনাথ সরকার, তুলসীদাস বিশ্বাস, আবুল কালাম আজাদ, নাসির উদ্দিন, মানষ পাল, মিজানুর রহমান, মুস্তাফিজুর রহমান, মুজিবুর রহমান, অরিন্দম গোলদার, আসলাম তালুকদার, হুমায়ুন কবির, মিজানুর রহমান মিজান, রিয়াজুল ইসলাম রিপন প্রমুখ। অন্যদিকে কোভিক ১৯ এ আক্রান্ত থানার ওসি মোঃ রবিউল কবীর ও আ’লীগনেতা দিলীপ হালদার এবং তাঁর পরিবার আক্রান্ত হওয়ায় তাদের আরোগ্য কামনা করে বিবৃতি প্রদান করেছেন বটিয়াঘাটা উপজেলা প্রেসকাবের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন উপজেলা প্রেসকাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, কোষাধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান মনি, সাংবাদিক অ্যাডভোকেট প্রশান্ত বিশ্বাস, সাংবাদিক শাহীন বিশ্বাস, সাংবাদিক বিপ্রদাস রায়, সাংবাদিক এসএমএ ভূট্টো, সাংবাদিক বুদ্ধদেব মন্ডল, সাংবাদিক পরিতোষ রায়, সাংবাদিক শাওন হাওলাদার, সাংবাদিক ইমরান হোসেন, সাংবাদিক আহসান কবির, সাংবাদিক নিখিলেশ গাইন প্রমূখ।

    পাইকগাছায় চাঁদখালী ইউনিয়ন আ’লীগের শোক দিবসের প্রস্ততি সভা অনুষ্ঠিত

    পাইকগাছায় চাঁদখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্ততি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে চাঁদখালী বাজারের দলীয় কার্যালয়ে ইউনিয়ন আ’লীগের আহবায়ক আলহাজ্ব মুনছুর আলী গাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্ততি সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মোঃ আনোয়ার ইকবাল মন্টু। প্রধান বক্তা ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু। উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি সমীরন সাধু, আনন্দ মোহন বিশ্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শিহাবুদ্দীন ফিরোজ বুলু। জি,এম, ইকরামুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, প্রভাষক ময়নুল ইসলাম, কাজল কান্তি বিশ্বাস, এসএম রেজাউল হক, এ্যাড. শেখ মোঃ আবুল কালাম আজাদ, প্রভাষক আঃ ওহাব বাবলু, এস,এম, আজিজুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম মিনু, আব্দুর রহিম সরদার, নুরুল ইসলাম সরদার, জাকির খান, শেখ হুমায়ুন আহম্মেদ, আব্দুল গফুর সরদার, আমিনুল ইসলাম, আব্দুল বারিক গাজী, ফয়জুদ্দীন মোল্লা, আব্দুল হালিম খোকন, নজরুল ইসলাম হিরা, সুব্রত মন্ডল।

    কয়রায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে খেজুর, নারিকেল ও তালের চারা রোপন

    মুজিব বর্ষের আহবান ৩ টি করে গাছ লাগান, লাগাও গাছ বাঁচাও দেশ শেখ হাসিনার নির্দেশ। প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচি পালন করেছেন বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউট। গোপালগঞ্জ জেলায় বিএআরআই এর কৃষি গবেষণা কেন্দ্র স্থাপন প্রকল্পের আওতায়, দেশের দক্ষিণাঞ্চলে ৫ টি জেলায় ৩৮ টি উপজেলায় ফল বাগান স্থাপন ও রাস্তার ধারে তাল, খেজুর ও নারিকেল গাছ লাগানোর অংশ হিসেবে উপ প্রকল্প পরিচালক ও খুলনার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ হারুন অর রশিদের প্রচেষ্টায় কয়রায় এ গাছ রোপন করা হয়। মঙ্গলবার বিকাল ৩ টায় মহারাজপুর ইউনিয়নের মঠবাড়ী গ্রামের কায়েমের ব্রীজ থেকে সেরাজিয়া হাইস্কুল পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার রাস্তার দু’পাশে খেজুর ও তালের চারা রোপন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চারা রোপনের শুভ উদ্বোধন করেন মহারাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা জিএম আব্দুল্লাহ আল মামুন লাভলু। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত এককোটি গাছ লাগানোর কর্মসুচি তারই অংশ হিসেবে এ গাছ রোপন করা হচ্ছে। চেয়ারম্যান লাভলু আরও বলেন, তালগাছ সাধারণত বজ্রপাত থেকে মানুষকে রক্ষাসহ পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা করে। অথচ কালের বিবর্তনে বাংলাদেশে তালগাছগুলো হারিয়ে যাচ্ছে। ফলে বিপর্যয় ঘটছে,পভাব পড়ছে জলবায়ুতে এবং দেশে প্রতিনিয়ত বজ্রপাতের আঘাতে অকালে প্রাণ হারাচ্ছে অসংখ্য মানুষ। গাছ লাগানোর সাথে সাথে সরেজমিন গবেষণা বিভাগ কে গাছ সংরক্ষনের জন্য বাশের চাঁচি দিয়ে খাঁচা করে দিতে বলেন।

    উপ প্রকল্প পরিচালক ও খুলনার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ হারুন অর রশিদের সাথে কথা বলেলে তিনি বলেন, বর্তমানে বিদ্যুৎ চমকিয়ে অনেক মানুষ মারা যাচ্ছে, তাছাড়া পশুপাখির আশ্রয়স্থল হিসেবে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছের বিকল্প নেই। একটি গাছ ৫০ বছরে ৪১ লক্ষ টাকা মূল্যের উপকার করে থাকে। কোভিট এর প্রভাবে অক্সিজেনের গুরুত্ব মানুষ হাড়ে হাড়ে উপলব্ধি করছে। তিনি বলেন, এছাড়া আমরা আগামীতে স্কুলে স্কুলেও গাছ লাগানোর পরিকল্পনা আছে। গাছ রোপনকালে এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আ’লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক প্রভাষক শাহাবাজ আলী, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের এমএল সাইট কয়রার বৈঞ্জানিক সহকারি মোঃ জাহিদ হাসান, ছাত্রলীগ নেতা আলী ইমরান মুকুল ও তরিকুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু যুব পরিষদের উপদেষ্টা আঃ হালিম, ফরহাদ হোসেন, সহ সভাপতি বাসারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মহররম হোসেন সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

    রোটারী কাব খুলনা মহানগরের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

    রোটারী কাব অব খুলনা মহানগর আয়োজিত জাতীয় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ২০২০ উপলক্ষে সরকারি জয় বাংলা কলেজে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় বৃক্ষ রোপন করা হয়। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী অনুষ্ঠানে কাবের প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান উত্তম কুমার দাস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রোগ্রাম চেয়ার ও স্পন্সর রোটারিয়ান খোকন রায় এবং সার্বিক ব্যবস্থায় থাকেন কাব সেক্রেটারী রোটারিয়ান মোকলেসুর রহমান পিন্টু। এসময় উপস্থিত থেকে বিশেষ ভাবে বক্তব্য প্রদান করেন রিজন চেয়ার রোটারিয়ান পিপি এ এফ এম মাহামুদুর রহমান কার্নি, এসিষ্টান্ট গর্ভনর রোটারিয়ান মোস্তাফিজুর রহমান, রোটারিয়ান এ্যাডঃ হেমন্ত সরকার, প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট রোটারিয়ান আসমুন নাহার রিনা, সরকারী জয় বাংলা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) নিপা রহমান। বক্তারা রোটারী কার্যক্রম এবং রোটারী ভবিস্যত কর্মসূচী তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন। পরে কলেজ মাঠের চারিপাশে বনজ, ফলজ ও ঔষধি চারা রোপন করা হয়। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন বদরুদ্দিন খান, কুমারেশ সরদার, সুরাইয়া আখতার, নাজিম উদ্দিন, আবুল বাশার শেখ, নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১