• শিরোনাম

    নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি নিয়ে টিকটক কর্তৃপক্ষ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চলেছে

    দি গাংচিল ডেস্ক | ২৩ আগস্ট ২০২০


    নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি নিয়ে টিকটক কর্তৃপক্ষ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চলেছে

    আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞাকে চ্যালেঞ্জ জানাতে চাইনিজ ভিডিও অ্যাপ টিকটক আইনী পদক্ষেপ নিচ্ছে। ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে টিকটকের মালিক বাইটড্যান্সের সাথে লেনদেন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

    ওয়াশিংটনের কর্মকর্তারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে সংস্থাটি আমেরিকান ব্যবহারকারীদের ডেটা চীনা সরকারের কাছে সরবরাহ করতে পারে,তবে বাইটড্যান্স এমন কিছু করা অস্বীকার করেছে।


    সংক্ষিপ্ত ভিডিও ভাগ করে নেওয়ার অ্যাপ্লিকেশনটিতে ৮০ মিলিয়ন সক্রিয় মার্কিন ব্যবহারকারী রয়েছে।

    কোম্পানির এক মুখপাত্র বলেছেন,”আইনের শাসন যাতে বাতিল না হয় এবং আমাদের সংস্থা ও ব্যবহারকারীদের সাথে ন্যায্য আচরণ করা হয় তা নিশ্চিত করতে বিচারিক ব্যবস্থার মাধ্যমে আমাদের কার্যনির্বাহী আদেশকে চ্যালেঞ্জ করা ছাড়া কোনও বিকল্প নেই” ।


    বিবিসি বিজনেসের প্রতিবেদক ভিভিয়েন নুনিস জানিয়েছেন ,টিকটক কর্তৃপক্ষ এই সপ্তাহে আইনী ব্যবস্থা শুরু হওয়ার আশা করছেন।

    টিকটকের ব্যবহারকারীরা নাচের রুটিন থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক রাজনীতি পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয়ে প্ল্যাটফর্মে সংক্ষিপ্ত ভিডিও ক্লিপ পোস্ট করেন। এর জনপ্রিয়তা সাম্প্রতিক মাসগুলিতে বিশেষত কিশোর-কিশোরীদের সাথে বিস্ফোরিত হয়েছিল এবং এটি বিশ্বজুড়ে এক বিলিয়নেরও বেশি বার ডাউনলোড হয়েছে।


    তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দাবি করেছেন যে চীন এই অ্যাপ্লিকেশনটি ফেডারেল কর্মীদের অবস্থানগুলি ট্র্যাক করতে, ব্ল্যাকমেইল করার  জন্য তথ্য সংগ্রহ করতে বা সংস্থাগুলির গুপ্তচর হিসেবে ব্যবহার করতে সক্ষম।

    মিস্টার ট্রাম্প বলেছেন, চীনা সংস্থাগুলির মালিকানাধীন মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলি “জাতীয় নিরাপত্তা, পররাষ্ট্রনীতি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে হুমকিস্বরূপ”।

    এই তথ্য সংগ্রহটি হুমকি স্বরুপ যে, চীনা কমিউনিস্ট পার্টি আমেরিকানদের ব্যক্তিগত এবং মালিকানা সম্পর্কিত তথ্যের রেকর্ড রাখবে,তাই ট্রাম্প এ বিষয়ে কার্যনির্বাহী আদেশে দাবি করেছেন।

    টিকটক জানিয়ছে যে, এটি কোনও মার্কিন ডেটা চীনা কর্তৃপক্ষের হাতে দেয়নি।

    নভেম্বরে মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে  টিকিটক এবং ওইচ্যাটের বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল ট্রাম্প পদক্ষেপ নিবেন।এ বিষয়টিও লক্ষনীয় যে,তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই  চীনের বিরুদ্ধে বাণিজ্য যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন।

    টিকটকে ব্লক প্রবর্তনকারী একমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নয়। ভারত অ্যাপটি ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে এবং অস্ট্রেলিয়াও ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে।

    ওইচ্যাট এমন ব্যবহারকারীদের কাছে খুব জনপ্রিয় যারা চীনের সাথে সংযোগ রয়েছে, যেখানে হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেইসবুকের মতো বড় সামাজিক নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্মগুলি অবরুদ্ধ করা হয়েছে।

     

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১