• শিরোনাম

    বন্যায় প্লাবিত টাঙ্গাইলের অনেক অঞ্চল : শিশুর মৃত্যু

    | ২৬ জুলাই ২০২০


    বন্যায় প্লাবিত টাঙ্গাইলের অনেক অঞ্চল : শিশুর মৃত্যু

    চরের বাসিন্দা পোড়ান শেখ তার স্ত্রী ও তিন শিশুকে একটি ছোট মাছ ধরার নৌকায় করে একটি নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন যখন বিপর্যয় ঘটেছিল।তিস্তা হঠাৎ অশান্ত হয়ে উঠল এবং বিশাল ঢেউএ নৌকোটিকে ধাক্কা দিচ্ছিল বলে নৌকাটি ভেসে গেলো।

    তার তিন বছরের বাচ্চা সুমন মায়ের কোল থেকে পিছলে গেল এবং চোখের পলকে নিখোঁজ হয়ে নদীতে পড়ে গেল।


    পরিবারটি গত সপ্তাহে তিস্তা নদীর ডিমলা উপজেলার অন্তর্গত কিসামোটার চর শোল থেকে বন্যার শিকার।

    সুমনের মতো আরও অনেক শিশু বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে এবং বন্যাকবলিত এলাকার পরিবারগুলির মধ্যে উদ্বেগ বাড়িয়ে তুলেছে।


    শুধু ডুবে যাওয়া নয়, বন্যার সময় শিশুরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয় কারণ তারা বিশেষত বিভিন্ন জলবাহিত রোগের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

    মাঠ পর্যায়ের স্বাস্থ্য আধিকারিকরা বলছেন, বন্যাকবলিত এলাকায় শিশু রোগীর সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।


    ডিমলা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সরোয়ার আলম বলেন, “বন্যার সময় শিশুরা ডায়রিয়া, চর্মরোগ, অপুষ্টি ও অন্যান্য রোগে ভুগছে। আমরা অন্যান্য সময়ের তুলনায় শিশু রোগীর সংখ্যা বেশি পেয়েছি।”

    বৃহস্পতিবার ইউনিসেফের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশে প্রায় ১.৩ মিলিয়ন শিশু সহ ২.৪ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ বন্যার ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা করছেন। টাঙ্গাইলের শুক্রবার টাঙ্গাইলের কালিহাতী ও নগরপুর উপজেলায় দুই শিশু বন্যার পানিতে ডুবে গেছে।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিদায় ফুটবল ঈশ্বর!

    ২৫ নভেম্বর ২০২০

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১