• শিরোনাম

    ব্যয়বহুল অস্ত্র প্রতিযোগিতা নিয়ে ফোনালাপ করলেন পুতিন এবং ট্রাম্প

    গাংচিল আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ২৪ জুলাই ২০২০


    ব্যয়বহুল অস্ত্র প্রতিযোগিতা নিয়ে ফোনালাপ করলেন পুতিন এবং ট্রাম্প

    বেশ কিছুদিন ধরেই উন্নত বিশের ক্ষমতাধর তিনটি দেশ চীন, রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে অস্ত্র প্রতিযোগিতা চলছে। যা অত্যন্ত ব্যয়বহুল বলে ধারণা করা হচ্ছিলো। এবার সেই ব্যয়বহুল অস্ত্র প্রতিযোগিতা নিয়ন্ত্রণের বেপারে নিজেদের ভেতরে ফোনালাপ করলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

    বার্তা সংস্থা এএফপি হোয়াইট হাউজের বিবৃতির উপরে ভিত্তি করে জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার উন্নত বিশ্বের এই দুই ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্টের মধ্যে ফোনালাপ হয়। এএফপির বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ওয়াশিংটন ও মস্কো ‘নিউ স্টার্ট ট্রিটি’ নবায়নের লক্ষে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। যাদের একমাত্র উদ্দেশ্য এই ভয়াবহ পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা রুখে দেওয়া।


    নতুন পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা কমাতে ২০১১ সালে দুই দেশের মধ্যে এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হলেও পারমাণবিক অস্ত্র হ্রাসে বারবার ট্রাম্পের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে আসছে চীন। চীন দাবি করে, তাদের পারমাণবিক কার্যক্রম যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার তুলনায় খুবই কম।

    পুতিন এবং ট্রাম্পের মধ্যকার ফোনালাপের বেপারটি ক্রেমলিন তাদের এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে। তারা জানিয়েছে, ‘কৌশলগত স্থিতিশীলতা এবং অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ’ নিয়ে তারা জরুরি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন।


    এদিকে চীন সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে বিশ্বজুড়ে বিরাজমান করোনা পরিস্থিতির বেপারেও আলোচনা করেছেন পুতিন এবং ট্রাম্প।

    রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের দপ্তর থেকে বলা হয়েছে, তাদের কথোপকথনের ‘ইরানের পারমাণবিক কার্যক্রম পরিস্থিতি’ বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়েছে। এ ব্যাপারে ‘সম্মিলিত উদ্যোগের’ প্রয়োজনীয়তার কথা বলা হয়।


    হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ভিয়েনায় অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ চুক্তি অনুযায়ী চীন, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র ‘ব্যয়বহুল ত্রিমুখী অস্ত্র প্রতিযোগিতা’ থেকে সরে আসা যেতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১