• শিরোনাম

    রাখাইনে আরও একটি গ্রাম পুড়িয়ে দিল মিয়ানমার সেনাবাহিনী

    নয়নতারা, ঢাকা | ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০


    রাখাইনে আরও একটি গ্রাম পুড়িয়ে দিল মিয়ানমার সেনাবাহিনী

    গত বৃহস্পতিবার রাতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রাখাইনের কিউকতাও এলাকার একটি গ্রাম আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে । সেই সাথে স্থানীয় ২ জন রাখাইন নাগরিককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।থাইল্যান্ডভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ইরাওয়াদ্দি এ তথ্য জানিয়েছে।

    হামলায় ভুক্তভোগী কো মং নিন্ত উইনের বাবা ইউ নিও মাং হ্লা বলেন, আমার ছেলে বিকেলে মোটরসাইকেলে চড়ে কাজ থেকে ফিরছিল। ৫ টার দিকে কিউকতাওয়ে সেনা সদস্যদের মুখোমুখি হলে তারা তাকে পথ দেখাতে বলে।


    এ সময় গ্রামের কাছে একটি বিস্ফোরণ হলে হামলা চালায় সেনারা। এর পরপরই সেনাবাহিনীর ট্রাকগুলো পুরো গ্রাম ঘিরে ফেলে এবং গ্রামবাসীকে ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে বলা হয়। এরপর সেনারা স্থানীয়দের ঘরের মালামাল লুট করে এবং বাড়িগুলোতে আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

    গ্রামের ২০০টিরও বেশি ঘর আগুনে পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ইউ নিও মাং হ্লা। তিনি বলেন, আমার মনে হয় ২০০টির বেশি ঘর জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। অনেকেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছেন। কারণ গ্রামের লোকজন ফিরে এসে আগুন নিভিয়ে ফেলেছিলেন, যে কারনে কিছু ঘর পোড়েনি। ঘরগুলোতে আগুন ধরানোর পর সেনারা বলেছিল, কেউ আগুন নেভানোর চেষ্টা করলে তাকে গুলি করা হবে।


    এদিন মিয়ানমার সেনাদের বর্বরতার শিকার আরেক ভুক্তভোগী ৩২ বছর বয়সী যুবক কো খিন মং থিন। ঘরে পালিয়ে থাকার সময় সেনাদের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

    তবে, প্রতিবারের মতো এবারও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ অস্বীকার করেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল জাও মিন তুন এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সেনাদের ওপর আরাকান আর্মির সদস্যরা হামলা চালিয়েছিল। এই বিস্ফোরণে দুই পুলিশ সদস্য আহত হন।


    ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয় দুজনের মরদেহ এবং একটি বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতদের শরীরে গুলিবিদ্ধ হওয়া ক্ষতচিহ্ন রয়েছে এবং ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দুটি কিউকতাওয়ে পাঠানো হয়েছে।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১