• শিরোনাম

    শুধুমাত্র নেইমার নন, মেসিকেও ‘বামন’ বলে কটূক্তি করেছিলেন গঞ্জালেস

    সুজিত মন্ডল | ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০


    শুধুমাত্র নেইমার নন, মেসিকেও ‘বামন’ বলে কটূক্তি করেছিলেন গঞ্জালেস

    গত রবিবার রাতে লিগ-১ এর পিএসজি বনাম মার্সেই এর ম্যাচে নেইমারকে ‘বানর’ বলে কটূক্তি করেছেন মার্সেই দলের ডিফেন্ডার আলভারো গঞ্জালেস। এই কটূক্তিকে নেইমার বর্ণবৈষম্যের অংশ হিসেবে তুলে ধরেছেন এবং তিনি গঞ্জালেসের বিরুদ্ধে কর্তৃপক্ষের কাছে শাস্তির আহবান জানিয়েছেন।

    নিজের নামে কটূক্তি শোনার পরে গঞ্জালেসের মাথায় একটি চড় মারেন নেইমার। আর এই কারণে ম্যাচ রেফারি নেইমারকে লাল কার্ড দেখান এবং তাকে মাঠ পরিত্যাগের নির্দেশ দেন।


    শুধু নেইমারকেই নয়, নিজের ফুটবল ক্যারিয়ারে একাধিকবার এই ধরনের আচরণ করেছেন আলভারো গঞ্জালেস। অনেকে এটাকে গঞ্জালেসের সহজাত প্রবৃত্তি বলে মনে করেন।

    স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার ফুটবল কিংবদন্তি লিওনেল মেসিও গঞ্জালেসের কটূক্তির স্বীকার হয়েছিলেন। মেসির শরীর নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন গঞ্জালেস। ২০১৫-১৬ মৌসুমে এস্পানিওল বনাম বার্সেলোনার ম্যাচে লিওনেল মেসিকে ইচ্ছাকৃতভাবে ফাউল করেন গঞ্জালেস। তারপর দুইজনের ভেতর অনেক তর্কাতর্কি হয়। বাক্য বিনিময়ের এক পর্যায়ে মেসিকে ‘বামন’ এবং ‘অত্যন্ত ক্ষুদ্রকায়’ বলে উপহাস করেন গঞ্জালেস। এমন কটূক্তির প্রতিবাদে গঞ্জালেসকে ‘একজন ঘৃণ্যতম ফুটবলার’ হিসেবে অভিহিত করেন লিওনেল মেসি।


    চলতি বছরের ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লোয়েড নামক একজন কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি পুলিশের হাতে নির্মমভাবে খুন হওয়ার পর গোটা বিশ্ব বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠেছে।

    গঞ্জালেসের করা খারাপ মন্তব্যটিকেও নেইমার বর্ণবৈষম্যের অংশ হিসেবে তুলে ধরেছেন এবং তিনি গঞ্জালেসের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন।


    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিদায় ফুটবল ঈশ্বর!

    ২৫ নভেম্বর ২০২০

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১